Logo
আজঃ Tuesday ২৬ October ২০২১
শিরোনাম
আমরা আজকে ফেসবুকে যা নিয়ে কথা বার্তা বলছি সেটাই বুঝি বাংলাদেশ

বাংলাদেশের প্রায় ১২ কোটি মানুষের কোন আগ্রহই নেই ফেসবুকে

প্রকাশিত:Sunday ১০ October ২০২১ | হালনাগাদ:Tuesday ২৬ October ২০২১ | ১৩৩জন দেখেছেন
Image


 

Solaiman Shukhon  এর পেইজ থেকে নেয়া

 

 

আমরা ঢাকা বা কিছু বিভাগীয় শহরে বাস করা মানুষজন নিজেদেরকে বেশ খানিকটা পন্ডিত মনে করি |আমরা ভাবি আমরা আজকে ফেসবুকে যা নিয়ে কথা বার্তা বলছি সেটাই বুঝি বাংলাদেশ |

 

বাংলাদেশের প্রায় ১২ কোটি মানুষের কোনো অংশগ্রহণ এবং আগ্রহই নেই এসবে |

অধিকাংশ বাংলাদেশিদের মনোযোগ তার গ্রাম তার ধানক্ষেত তার মাছ ধরার নৌকা কিংবা বিদেশে কাজ করতে যাওয়া ছেলেকে নিয়ে |

 

শহরের কিছু মানুষ ফোনের স্ক্রিনে কি দেখে হাহা হিহি করছে সেটা এখনো বাংলাদেশকে রিপ্রেসেন্ট করে না | শহরের আমরা নিজেদের যতটা পন্ডিত মনে করি আমরা আসলে ততটা পন্ডিত না 🙂|

 

 

 

 


আরও খবর



২০২২-২৩ অর্থবছরেই জিডিপি প্রবৃদ্ধিতে এশিয়ার বেশিরভাগ দেশকে আবারও পেছনে ফেলবে বাংলাদেশ

দ. এশিয়ায় অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতে সবচেয়ে ধারাবাহিক বাংলাদেশ

প্রকাশিত:Sunday ১০ October ২০২১ | হালনাগাদ:Tuesday ২৬ October ২০২১ | ৭২জন দেখেছেন
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image



আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

 

করোনাভাইরাস মহামারির ভয়াল থাবা থেকে ধীরে ধীরে বেরিয়ে আসছে দক্ষিণ এশিয়া। স্থবিরতা কাটিয়ে ফের গতিশীল হচ্ছে এ অঞ্চলের অর্থনীতি। কিন্তু বছরখানেক আগে অর্থনীতিতে যে আঘাত দিয়েছিল করোনা, তার ক্ষত পুরোপুরি মেটানো বেশ কঠিন। অথচ এমন কঠিন সময়েও দারুণ কৃতিত্ব দেখিয়ে অর্থনীতিতে ইতিবাচক প্রবৃদ্ধি ধরে রেখেছে বাংলাদেশ। বলা বাহুল্য, ২০১৯-২০ অর্থবছরে দক্ষিণ এশিয়ায় একমাত্র ইতিবাচক প্রবৃদ্ধি হওয়া দেশের নাম বাংলাদেশ। উন্নয়নের সেই ধারা অব্যাহত থাকতে পারে আগামী বছরগুলোতেও। আর তা হলে ২০২২-২৩ অর্থবছরেই জিডিপি প্রবৃদ্ধিতে ভারতসহ দক্ষিণ এশিয়ার বেশিরভাগ দেশকে আবারও পেছনে ফেলবে বাংলাদেশ।

 

গত বৃহস্পতিবার (৭ অক্টোবর) বিশ্বব্যাংক প্রকাশিত দক্ষিণ এশীয় অর্থনীতি বিষয়ক সবশেষ প্রতিবেদনে (সাউথ এশিয়া ইকোনমিক ফোকাস) এসব তথ্য উঠে এসেছে।

 

বিশ্বব্যাংক প্রকাশিত হিসাবে দেখা যায়, ২০১৯-২০ অর্থবছরে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে শুধু বাংলাদেশের (জুলাই-জুন) জিডিপি প্রবৃদ্ধি হয়েছে ইতিবাচক ধারায় ৩ দশমিক ৫ শতাংশ। একই সময় এ অঞ্চলের বাকি সব দেশের প্রবৃদ্ধিই ছিল নেতিবাচক। ওই অর্থবছরে ভারতের (এপ্রিল-মার্চ) প্রবৃদ্ধি মাইনাস ৭ দশমিক ৩ শতাংশ, মালদ্বীপের (জানুয়ারি-ডিসেম্বর) মাইনাস ৩৩ দশমিক ৬ শতাংশ, শ্রীলঙ্কার (জানুয়ারি-ডিসেম্বর) মাইনাস ৩ দশমিক ৬ শতাংশ, ভুটানের (জুলাই-জুন) মাইনাস ০ দশমিক ৬ শতাংশ, নেপালের (জুলাই-জুন) মাইনাস ২ দশমিক ১ শতাংশ ও পাকিস্তানের (জুলাই-জুন) অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ছিল মাইনাস ০ দশমিক ৫ শতাংশ।

 

এরপর ধীরে ধীরে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসায় ফের ইতিবাচক ধারায় ফেরে দক্ষিণ এশিয়ার অর্থনীতি। ২০২০-২১ অর্থবছরে এ অঞ্চলের দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৫ শতাংশ, ভারতের ৮ দশমিক ৩ শতাংশ, নেপালের ১ দশমিক ৮ শতাংশ, পাকিস্তানের ৩ দশমিক ৫ শতাংশ, মালদ্বীপের ২২ দশমিক ৩ শতাংশ ও শ্রীলঙ্কার ৩ দশমিক ৩ শতাংশ। এই বছরটিতে কেবল ভুটানই নেতিবাচক ধারা থেকে বের হতে পারেনি। তাদের প্রবৃদ্ধি ছিল মাইনাস ১ দশমিক ২ শতাংশ।

 

বিশ্বব্যাংকের পূর্বাভাস অনুসারে, ২০২১-২২ অর্থবছরেও বাংলাদেশ আশাব্যঞ্জক গতিতে প্রবৃদ্ধি অর্জন করবে। এসময় বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধি হতে পারে ৬ দশমিক ৪ শতাংশ। এছাড়া নেপালের প্রবৃদ্ধি বেড়ে ৩ দশমিক ৯ শতাংশ ও ভুটানের প্রবৃদ্ধি বেড়ে হতে পারে ৩ দশমিক ৬ শতাংশ। ওই বছর এ অঞ্চলের বাকি দেশগুলোর প্রবৃদ্ধি কমতে পারে। সেসময় ভারতের প্রবৃদ্ধি কমে ৭ দশমিক ৫ শতাংশ, পাকিস্তানের ৩ দশমিক ৪ শতাংশ, মালদ্বীপের ১১ শতাংশ ও শ্রীলঙ্কার প্রবৃদ্ধি কমে দাঁড়াতে পারে মাত্র ২ দশমিক ১ শতাংশে।

 

ভারতের অবনতি অব্যাহত থাকবে এর পরের বছরও। অর্থাৎ ২০২২-২৩ অর্থবছরে দেশটির প্রবৃদ্ধি আরও কমে হবে ৬ দশমিক ৫ শতাংশ। অন্য দেশগুলোর প্রবৃদ্ধি কিছুটা বাড়বে। ওই বছর উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রেখে জিডিপি প্রবৃদ্ধিতে ভারতকে আবারও ছাড়িয়ে যাবে বাংলাদেশ। ২০২২-২৩ অর্থবছরে বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধি বেড়ে দাঁড়াবে ৬ দশমিক ৯ শতাংশ। সে সময় দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে জিডিপি প্রবৃদ্ধিতে কেবল মালদ্বীপের চেয়েই পিছিয়ে থাকবে বাংলাদেশ।

 

সুতরাং বিশ্বব্যাংকের পূর্বাভাস বলছে, আগামী বছরগুলোতে দক্ষিণ এশিয়ার বাকি দেশগুলো অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধারে উত্থান-পতন দেখলেও সুষমগতিতেই এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ।

খবর প্রতিদিন /সি.বা 


আরও খবর



প্রথমবারের মতো থাকছে রিভিউ, টি-২০ বিশ্বকাপে আছে আরও নতুনত্ব

টি-২০ বিশ্বকাপেপ্রথমবারের মতো থাকছে রিভিউ , আছে আরও নতুনত্ব

প্রকাশিত:Sunday ১০ October ২০২১ | হালনাগাদ:Tuesday ২৬ October ২০২১ | ৬৭জন দেখেছেন
স্পোর্টস ডেস্ক

Image


স্পোর্টস ডেস্ক :

 

আইসিসি পুরুষ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে প্রথমবারের মতো ব্যবহার করা হবে ডিসিশন রিভিউ সিস্টেম (ডিআরএস)। ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা গভর্নিং বডি এই ঘোষণা দিয়েছে। কুড়ি ওভারের বিশ্ব আসরের আগের ছয় টুর্নামেন্টে ছিলো না আম্পায়ারদের সিদ্ধান্ত রিভিউ করার সিস্টেম।

 

আগামী ১৭ অক্টোবর থেকে ওমান ও আরব আমিরাতে শুরু হতে যাওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্লেয়িং কন্ডিশনে বলাহয়েছে, প্রতি ইনিংসে প্রতিটি দল সর্বোচ্চ দুইটি করে রিভিউ নিতে পারবে।

 

গত বছরের জুলাইয়ে করোনাভাইরাসজনিত কারণে রিভিউ সিস্টেমে পরিবর্তন এনেছিলো আইসিসি। তখন থেকেই টি-টোয়েন্টি ম্যাচে প্রতি ইনিংসে দেয়া হয় দুইটি করে রিভিউ। এই সিদ্ধান্তের পেছনে মূলত কারণ ছিলো সব ম্যাচে নিরপেক্ষ ও অভিজ্ঞ আম্পায়ার পাওয়ার অনিশ্চয়তা।

 

তবে এবারের বিশ্বকাপের সবগুলো ম্যাচেই থাকবে আইসিসির প্যানেলভুক্ত বিশেষজ্ঞ ও নিরপেক্ষ আম্পায়াররা। তবু রিভিউয়ের সংখ্যা কমিয়ে আগের মতো একে নামানো হয়নি। বরং সব দলই পাবে ইনিংসপ্রতি দুইটি করে রিভিউ।

 

শুধু তাই নয় বৃষ্টিবিঘ্নিত কিংবা অন্যান্য কারণে খেলায় দেরি হলে, ন্যুনতম ওভারের সংখ্যাও বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে আইসিসি। আগের নিয়ম অনুযায়ী যেকোনো টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ন্যুনতম পাঁচ ওভারই যথেষ্ঠ ছিলো ফলাফল আসার জন্য। আসন্ন বিশ্বকাপের গ্রুপপর্বেও বহাল থাকবে নিয়ম।

 

এই নিয়ম বদলে যাবে সেমিফাইনাল ও ফাইনালের তিন ম্যাচের জন্য। নকআউট পর্বের তিন ম্যাচে ফলাফল আসার জন্য ন্যুনতম ১০ ওভার করতে খেলতে হবে দুই দলকেই। অন্যথায় পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হবে ম্যাচটি।

পুরুষদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মতো আসরে আগে রিভিউ সিস্টেম না থাকার কারণ মূলত গত পাঁচ বছরের মধ্যে কোনো বিশ্বকাপ না হওয়া। ২০১৮ সালে নারীদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ছিলো রিভিউ সিস্টেম। একইভাবে ২০২০ সালের আসরেও ছিলো এটি।

 

কিন্তু পুরুষদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সবশেষ আসর বসেছিলো ২০১৬ সালে। তখন পর্যন্ত কুড়ি ওভারের ক্রিকেটে রিভিউয়ের ব্যবহারই শুরু হয়নি।

 

খবর প্রতিদিন/ সি.বা 


আরও খবর



স্থানীয় সাংসদের ডিওলেটার নকল অর্ধকোটি আয়, সিন্ডিকেটে জড়িত সরকারী কর্মকর্তারা

মিঠাপুকুরে ভুয়া কাজীর হাতে ২ হাজার বিয়ে ও তালাক রেজিস্ট্রি

প্রকাশিত:Sunday ১০ October ২০২১ | হালনাগাদ:Monday ২৫ October ২০২১ | ৭১জন দেখেছেন
Image

 

রুবেল ইসলাম,মিঠাপুকুর :

 

রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলায় ভূয়া নিকাহ্ রেজিস্ট্রার সেজে ৭ বছরে বিয়ে ও তালাক রেজিস্ট্রি করে কোটি টাকা আয় করেছেন এনামুল হক নামে কাজী। এই সময়ে তিনি ২ হাজারেরও বেশি নিকাহ্ ও তালাক রেজিস্ট্রি করেছেন। সম্প্রতি জানা গেছে তিনি একজন ভুয়া কাজী। এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও চেয়ারম্যানের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন আমিরুল ইসলাম নামে এক ব্যক্তি।

 

গত ২৬ শে আগস্ট আলোচিত অভিযোগটি উঠেছে-উপজেলার ময়েনপুর ইউনিয়নে দক্ষিণপাড়া গ্রামের আব্দুল হান্নানের পুত্র কাজী এনামুল হকের বিরুদ্ধে।ভুয়া রেজিস্ট্রারি নিয়োগ দেখিয়ে কাজির দায়িত্ব পালন করছেন তিনি।এতে সহযোগিতা করছেন জেলা রেজিস্ট্রার অফিস, মুদ্রণ ও প্রকাশনা অধিদপ্তর রংপুর আঞ্চলিক অফিসের কিছু কর্মচারী।তবে এই বিষয়ে উভয় উভয়কে দোষারোপ করছেন।

 

অভিযোগকারী ও অভিযোগ সূত্রে জানা যায়- বরিশাল জেলার উজিরপুর উপজেলার শিকারপুর ইউনিয়নের মুন্ডপাশা গ্রামের আলাউদ্দিন মিয়ার ছেলে আমিরুল ইসলাম মুসলিম বিবাহ ও তালাক (নিবন্ধন)আইনে ১৯৭৪(১৯৭৪ সনের ৫২ নং আইন)এর ৪ ধারানুযায়ী নং-বিচার-৭/২এন/২০০৪-৪৪২ নং স্মারেেক কাজীর দায়িত্ব পালন করে আসছেন। সেই স্মারক জালিয়াতি করে দীর্ঘ ৭বছর ধরে কাজীর দায়িত্ব পালন করে আসছেন এনামুল হক।তিনি আরও বলেন-তৎকালীন সময়ে আইন ও বিচার বিভাগ থেকে নিকাহ্ রেজিস্ট্রার নিয়োগপ্রাপ্ত সঠিকতা প্রসঙ্গে ও তার বিরুদ্ধে বিচার-৭/২এন-৬৯/২০০৪-২৬৫ স্মারকে ৮ই মার্চ ২০১৭ সালে জেলা রেজিস্ট্রারকে ফৌজদারি মামলার নির্দেশ দেন সিনিয়র সহকারী সচিব জি.এম.নাজমুল শাহাদাৎ।কিন্তু তৎকালীন জেলা রেজিস্ট্রার অর্থের বিনিময়ে কোন ধরণের ব্যবস্থা গ্রহণ করেননি।জানা যায়-গত ১৬ই ফেব্রয়ারী ২০১৪ সালে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা যান কাজী আব্দুল ওয়াদুদ(৪৫)।তার মৃত্যুর পর থেকে ভুয়া নিয়োগপত্র দেখিয়ে কাজীর দায়িত্ব পালন করছেন তিনি।

 

নামপ্রকাশে অনিশ্চুক স্থানীয় বাসিন্দা জানান-এনামুল কাজী এলাকায় ৮-১০ হাজার টাকার বিনিময়ে বাল্যবিবাহ পড়িয়ে থাকেন।এছাড়া বিভিন্ন ধরণের ঝামেলার বিয়ে অনেক অর্থের বিনিময়ে রেজিস্ট্রোর করেন বলে দাবী তাদের।

এই বিষয়ে এনামুল হকের কাছে জানতে চাইলে তিনি কোন মন্তব্য করেননি। আবু তালেব মিয়া ও ইদ্রিস আলী নামে দুজনকে সাব কাজীর দায়িত্ব দেওয়ার কথা অস্বীকার করেন তিনি।

মুদ্রণ ও প্রকাশনা অধিদপ্তর রংপুর আঞ্চলিক অফিসের ম্যানেজার আব্দুস ছালাম বলেন-ময়েনপুর ইউনিয়নের কাজী এলামুল হকের কোন ফাইল তার অফিসে নেই ।জেলা রেজিস্ট্রার স্বাক্ষরিত অনুমতি ও সরকারী মূল্য পরিশোধ না হওয়া পযর্ন্ত আমাদের কাছ থেকে বই পাওয়ার কোন সুযোগ নেই।তাহলে বই পেল কিভাবে এমন প্রশ্নে জেলা রেজিস্ট্রার অফিসকে দায়ী করেন তিনি।

 

জেলা রেজিস্ট্রার আব্দুল সালাম প্রামাণিক জানান-তিনি এই বিষয়ে অবগত নন।ইতিপূর্বে যিনি দায়িত্বে ছিলেন তিনি এই কাজ করেছেন। তার অফিসের সুপারিশ ছাড়া মুদ্রণ শাখা কখনই কোন বই হস্তান্তর করেন না। কাজী বই কিভাবে পেল এমন প্রশ্নে  তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানান তিনি।

 

খবর প্রতিদিন/ সি.বা 


আরও খবর



যাত্রাবাড়ীতে ইয়াবাসহ দুই মাদক কারবারি গ্রেফতার

যাত্রাবাড়ীতে পোলট্রি ফিড ব্যাগে ইয়াবা পাচারকালে দুই মাদক কারবারি গ্রেফতার

প্রকাশিত:Wednesday ১৩ October ২০২১ | হালনাগাদ:Tuesday ২৬ October ২০২১ | ২৭১জন দেখেছেন
Image

 

নিজস্ব সংবাদদাতা :

 

রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে পোলট্রি ফিড ব্যাগে ইয়াবা পাচারকালে দুই মাদক কারবারিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশের এলিট ফোর্স র্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র্যাব)।বুধবার (১৩ অক্টোবর) ভোরে র্যাব- ১০ এর একটি দল যাত্রাবাড়ী থানার দনিয়া এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে তাদের গ্রেফতার করে। এ সময় ৫ হাজার ৭০২ পিস ইয়াবা জব্দ করা হয়।

 

গ্রেফতাররা হলেন- মো. দেলোয়ার হোসেন (৩৬) ও সমীর হোসেন (২০)। এ সময় মাদক পরিবহনে ব্যবহৃত ট্রাক জব্দ করা হয়।বুধবার সন্ধ্যায় র্যাব-১০ এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) এএসপি এনায়েত কবির সোয়েব এসব তথ্য জানান।

 

তিনি বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, গ্রেফতার দুজনই পেশাদার মাদক কারবারি। আইনশৃ্ঙ্খলা বাহিনীর নজরদারি এড়াতে পোলট্রি ফিড ব্যাগে অভিনব কায়দায় ইয়াবা ঢুকিয়ে তারা বেশ কিছুদিন ধরে যাত্রাবাড়ীসহ রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় সরবরাহ করে আসছিল।

 

গ্রেফতার ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মাদক মামলা দায়ের করা হয়েছে বলেও জানান এএসপি এনায়েত কবির সোয়েব।

 

খবর প্রতিদিন / সি.বা


আরও খবর



স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে গ্রিসে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ‘বাংলাদেশ উৎসব ২০২১

১৭ অক্টোবর গ্রিসে অনুষ্ঠিত হবে ‘বাংলাদেশ উৎসব’

প্রকাশিত:Sunday ১০ October ২০২১ | হালনাগাদ:Tuesday ২৬ October ২০২১ | ৫৮জন দেখেছেন
ডেস্ক এডিটর

Image



ডেস্ক এডিটর :

মুজিববর্ষ ও বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে গ্রিসে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ‘বাংলাদেশ উৎসব ২০২১’।মুজিববর্ষের কূটনীতি, প্রগতি ও সম্প্রীতি এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে এথেন্সে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসের আয়োজনে আগামী ১৭ অক্টোবর আয়োজিত হবে এই জমকালো উৎসব।

 

দূতাবাস কার্যালয় প্রাঙ্গণে ওইদিন দুপুর ২টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত চলবে এ উৎসব। দূতাবাস সূত্রে জানা যায়, এরই মধ্যে নানা ধরনের অনুষ্ঠানমালা চূড়ান্ত করা হয়েছে। এছাড়া বাংলাদেশি খাবার, পণ্য প্রদর্শনী ও মেলার আয়োজন রয়েছে।

 

শেষে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হবে। আয়োজনে গ্রিসে বসবাসকারী বাংলাদেশি শিল্পীরা সংগীত পরিবেশন করবেন। এরই মধ্যে যাবতীয় প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে দূতাবাস।

 

উৎসবকে আনন্দমুখর করে তুলতে প্রবাসী বাংলাদেশিদের সবান্ধব/সপরিবারে উপস্থিত হওয়ার জন্য আমন্ত্রণ জানিয়েছে বাংলাদেশ দূতাবাস, এথেন্স, গ্রিস।

 

খবর প্রতিদিন /সি.বা 


আরও খবর