Logo
আজঃ মঙ্গলবার ১৬ এপ্রিল ২০২৪
শিরোনাম

বাংলাদেশে বিদ্যুৎ আমদানি নিয়ে কোনো শঙ্কা নেই : প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিত:রবিবার ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ এপ্রিল ২০২৪ | ২৫৬জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক ;বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, ভারতের আদানি গ্রুপের বিদ্যুৎকেন্দ্রের কমিশনিং হবে আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি। বাংলাদেশে বিদ্যুৎ আমদানি নিয়ে কোনো শঙ্কা নেই, মার্চের প্রথম সপ্তাহে বিদ্যুৎ সরবরাহ শুরু হবে।  

আজ রোববার সচিবালয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী এ কথা বলেন। 

নসরুল হামিদ বলেন, ‘আদানির বিদ্যুৎ নিয়ে যেসব কথা হচ্ছে তার কোনো ভিত্তি নেই। আমরা প্রতিযোগিতামূলক বাজার দরেই বিদ্যুৎ পাব। এ নিয়ে কোনো সংশয়ের সুযোগ নেই। মার্চে প্রথম ইউনিট থেকে আসবে ৭৫০ মেগাওয়াট। দ্বিতীয় ইউনিট থেকে আরও ৭৫০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আসবে এপ্রিল মাসে।’


তিনি বলেন, ‘আসছে সেচ ও গীষ্ম মৌসুমে বিদ্যুৎ সরবরাহ নিয়ে উদ্বেগের কিছু নেই। আমাদের বেশকিছু কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র উৎপাদনে আসবে। রামপাল এসেছে, এসএস পাওয়ার আসবে, বরিশাল বিদ্যুৎকেন্দ্র আসবে। সরবরাহ স্বাভাবিক রাখার উদ্যোগ নিয়েছি, সেচ মৌসুম নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই।

স্পট মার্কেট থেকে এলএনজি আমদানি শুরু হয়েছে। গ্যাস সরবরাহ বেড়ে যাবে।’

স্পট মার্কেট থেকে ৮ কার্গো এলএনজি আমদানির পরিকল্পনার কথাও জানান প্রতিমন্ত্রী। তিনি গ্যাসের নতুন দর ফেব্রুয়ারি থেকে কার্যকর না করার বিষয়ে ব্যবসায়ীদের দাবির বিষয়টি নাকচ করে দেন।

২০১৭ সালে ভারতের ঝাড়খণ্ড রাজ্যের গোড্ডা জেলায় আদানি গ্রুপের কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে বাংলাদেশে বিদ্যুৎ কেনার চুক্তি হয়। ঝাড়খণ্ড থেকে বাংলাদেশ সীমান্ত পর্যন্ত প্রায় ৯৫ কিলোমিটারের জন্য লাইন স্থাপন করেছে আদানি গ্রুপ। ঝাড়খণ্ড থেকে বিদ্যুতের এ লাইন মূলত পশ্চিমবঙ্গের মালদা ও মুর্শিদাবাদ জেলার ওপর দিয়ে গেছে।

সম্প্রতি মুর্শিদাবাদে ফারাক্কার বেশ কয়েকজন কৃষক অভিযোগ করেন, বিদ্যুতের তার যাওয়ার কারণে তাদের লিচু ও আম বাগানের ফলন নষ্ট হচ্ছে। বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় প্রশাসনের দ্বারস্থ হয়ে পরপর তিন দফা বৈঠকের উদ্যোগ নেওয়া হয়। কিন্তু তিনবারই চেষ্টা ব্যর্থ হয়।

কৃষকদের হয়ে গত ৩১ জানুয়ারি কলকাতা হাইকোর্টে মানবাধিকার সংগঠন এপিডি জনস্বার্থে একটি মামলার আবেদন করলে আদালত তা গ্রহণ করে আগামী ৭ তারিখ সব পক্ষকে ডেকে পাঠান।


আরও খবর



রাণীশংকৈলে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠির ছাত্র ছাত্রীদের মাঝে উপবৃত্তি বিতরণ

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৯ মার্চ ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ এপ্রিল ২০২৪ | ৭১জন দেখেছেন

Image

রাণীশংকৈল (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধি:ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলায় বৃহস্পতিবার (২৮ মার্চ) প্রধানমন্ত্রীর অর্থে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর ছাত্র ছাত্রীদের মাঝে শিক্ষা উপবৃত্তি ও বাইসাইকেল বিতরণ করা হয়েছে। উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে উপজেলা পরিষদ হল রুমে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর শিক্ষা উপবৃত্তি ২ লাখ ৫৬ হাজার টাকা ৫২ জন ছাত্রছাত্রীদের মাঝে এবং ৬ জন ছাত্রীর মাঝে বাইসাইকেল বিতরণ করা হয়।

বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য তার সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কাজ করে যাচ্ছেন। বর্তমান সরকার ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর ছেলে মেয়েরা যাতে লেখাপড়া করতে পারে, এজন্য বিশেষ বরাদ্দের মাধ্যমে নতুন বই, শিক্ষা বৃত্তি, শিক্ষা উপকরণ সহয়তা করছেন। বর্তমান সরকার দেশের ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী আদিবাসী ছেলে মেয়েরা যাতে উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত হতে পারে, সেজন্য শিক্ষা বৃত্তি চালু করেছেন। আদিবাসী সন্তানরা যেন সহজে স্কুল-কলেজে যেতে পারে সেজন্য বাই সাইকেল প্রদান করেছেন। বিতরণী অনুষ্ঠানে উপজেলা নির্বাহী অফিসার রকিবুল হাসান এ কথা বলেন। 

এ সময় উপজেলা চেয়ারম্যান শাহরিয়ার আজম মুন্না, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা সামিয়েল মার্ডি,উপজেলা ইএসডিও ম্যানেজার খায়রুল আলম, আদিবাসী নেতা সুগা মর্ম,স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপকারভোগী প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন। 

আরও খবর



১৩ বছরপর বাবার পৈত্রিক ভিটা ফিরে পেলো রোকন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৬ মার্চ ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ এপ্রিল ২০২৪ | ৯২জন দেখেছেন

Image

ডোমার (নীলফামারী) প্রতিনিধি:নীলফামারীর ডোমারে দীর্ঘ ১৩ বছরপর আদালতের নির্দেশনায় বাবার রেখে যাওয়া পৈত্রিক ভিটা ফিরে পেলো রোকনুজ্জামান রোকন (৪৫)। যার জন্য মহামান্য বিজ্ঞ আদালতের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে ভুক্তভুগি রোকনের পরিবার।

মামলা সুত্রে জানাযায়, ডিমলা বাবুরহাট এলাকার মৃত আব্দুল জব্বারের সর্বকনিষ্ঠ ছেলে রোকনুজ্জামান রোকন। তার বাবার রেখে যাওয়া ডোমার পৌর এলাকার ছোটরাউতা মৌজায় কাজী পাড়া এলাকায় জেএল নং-২৩, খতিয়ান-৩৭৪, ১৩১৬ হালদাগে ৮৫ শতক জমি রেখে রোকনের বাবা আব্দুল জব্বার ১৯৭৯ সালে মৃত্যু বরণ করেন। তারা ৯ ভাই বোনের মধ্যে রোকন ছিলো সর্বকনিষ্ঠ বাবার মৃত্যু কালীন সময়ে রোকনের বয়স ছিলো ৩ বছর। নাবালক থাকাকালীন অবস্থায় সেই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে রোকনের বড় ভাইবোনেরা ১৯৮০ সালে উক্ত জমিটি রোকনকে ঠকিয়ে এলাকার আনোয়ার, মোকলেছার, আঃ আজিজ নামক ব্যাক্তির কাছে বিক্রি করে দেয়। রোকন সাবালক হওয়ার পর জমি বিক্রির বিষয়টি জানতে পেরে দিশেহারা হয়ে পড়ে এবং স্ত্রী সন্তান নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করতে থাকে। রোকনুজ্জামান

রোকন তার নাবালকের সম্পত্তি এবং বাবার পৈত্রিক জমি উদ্ধারের জন্য গত ০৫/০৬/২০১১ইং তারিখে নীলফামারী জেলার বিজ্ঞ বিচারক আদালতে অন্য-১৯/১১ মোকদ্দমা দায়ের করে। দীর্ঘদিন মামলা চলাকালীন সময়ে যাহা-২৮/০২/২০১৮ইং তারিখে বিজ্ঞ আদালত রোকনের পক্ষে রায় প্রদান করেন। ০৬/০৩/২০১৮ইং তারিখে ডিক্রী লাভ করে। নীলফামারী জেলা জজ আদালতের বিজ্ঞ বিচারক জনাব মোঃ মাহমুদুল করিম এ রায় প্রদান করেন। এরই ধারাবাহিকতায় গত ২৪/০২/২০২৪ ইং তারিখে আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী ডোমার থানা পুলিশ এবং বিজ্ঞ আদালতের লোকজন ভেকু মেশিন দিয়ে উক্ত জমিটির স্থাপনা ভেঙেদিয়ে বাদী রোকনুজ্জামান রোকনকে ২ দাগে প্রায় ৯ শতক জমি উদ্ধার করে দখল বুঝিয়ে দেয়।

এ বিষয়ে রাকনুজ্জামান রোকন জানান, দীর্ঘ ১৩ বছর পর আমার নাবালকের সম্পত্তি আমাকে সুন্দর ও সুষ্ঠ ভাবে ফিরিয়ে দেয়ায় সেখানে আমার স্ত্রী, সন্তান পরিবার মিলে ঘড়বাড়ী তুলে সুখে শান্তিতে বসবাস করছি। বাংলাদেশ বিচার বিভাগ এবং বিজ্ঞ আদালতের প্রতি চির কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি।


আরও খবর



রেললাইনের প্যাচানো ক্লিপ খোলার সময় দুই যুবক আটক

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০২ এপ্রিল 2০২4 | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ এপ্রিল ২০২৪ | ১০৩জন দেখেছেন

Image
সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি:রেললাইনের প্যাঁচানো ক্লিপ খোলার সময় দুই যুবককে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্হানীয়রা। ওইসময় তাদের কাছ থেকে ১৬টি ক্লিপ উদ্ধার করা হয়।মঙ্গলবার সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সৈয়দপুর রেলওয়ে পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এম নুরুল ইসলাম।সোমবার দিবাগত গভীর রাতে নীলফামারি সদর উপজেলার সোনারায় ইউনিয়নের খয়রাত নগর এলাকা থেকে ক্লিপ খোলার সময় তাদের আটক করা হয়। রেলওয়ের সংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্মকর্তা জানিয়েছেন নাশকতার উদ্দেশ্যেই ক্লিপগুলো খোলা হচ্ছিল। তবে ঘটনার প্রায় ১৫ ঘন্টা অতিবাহিত হলেও থানায় মামলা দায়ের না হওয়ায় ঘটনাটি নিয়ে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে। আটককৃতরা হলেন সোনারায় ইউনিয়নের জয়চন্ডী পুটিহাট এলাকার শহিদুল ইসলামের ছেলে আল আমিন (২৬) ও উত্তর মুসশুর কুখাপাড়া এলাকার আবুল কালাম আজাদের ছেলে মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন ওরফে বেলাল।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, আটককৃত দুইজন উচ্চ শিক্ষিত বেকার যুবক। ওদিন রাতে তারা রেললাইনের ফাঁকা জায়গায় ক্লিপ খুলছিলেন। এ সময় স্থানীয়রা টের পেয়ে তাদের আটকে রেখে পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ এসে তাদের আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

সৈয়দপুর রেলওয়ের উর্ধ্বতন উপ-সহকারী প্রকৌশলী (পথ) সুলতান মৃধা বলেন, যদি স্থানীরা বিষয়টি না দেখতেন তাহলে বড় ধরণের দুর্ঘটনা হওয়ার সম্ভাবনা ছিল । ধারনা করছি ওই দুই যুবক নাশকতার উদ্দেশ্যেই ক্লিপগুলো খুলেছে। তবে তাদের জিজ্ঞাসা করলেই সঠিক তথ্য পাওয়া যাবে।এ বিষয়ে সৈয়দপুর রেলওয়ে থানার ওসি এম নুরুল ইসলাম বলেন, জিজ্ঞাসাবাদের পরে বলা যাবে তাদের উদ্দেশ্য নাশকতা নাকি অন্য কিছু। এই ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন আছে।

আরও খবর



৬০ কি. মি. বেগে ঝড়সহ বৃষ্টির আভাস

প্রকাশিত:শনিবার ০৬ এপ্রিল ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১৫ এপ্রিল ২০২৪ | ৫৫জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:দেশের দুই বিভাগে দুপুরের মধ্যে ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ৬০ কিলোমিটার বেগে অস্থায়ীভাবে ঝড় বয়ে যেতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। একইসঙ্গে বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে।

শনিবার (৬ এপ্রিল) সকাল সাড়ে চারটা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত দেশের অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরগুলোর জন্য দেওয়া এক পূর্বাভাসে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

ফলে এসব এলাকার নদীবন্দর সমূহকে ১ নম্বর সতর্কতা সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

অভ্যন্তরীণ নদীবন্দর সমূহের জন্য দেওয়া পূর্বাভাসে বলা হয়, ময়মনসিংহ এবং সিলেট অঞ্চলসমূহের ওপর দিয়ে পশ্চিম অথবা উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে ঝড় বয়ে যেতে পারে।

একইসঙ্গে বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনাও রয়েছে।


আরও খবর



প্রধানমন্ত্রী সমরাস্ত্র প্রদর্শনী উদ্বোধন করলেন, চলবে ৫ দিন

প্রকাশিত:রবিবার ২৪ মার্চ 20২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ এপ্রিল ২০২৪ | ১৬৩জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাজধানীর জাতীয় প্যারেড স্কয়ারে স্বাধীনতা দিবস এবং জাতীয় দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত সম্মিলিত সমরাস্ত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেছেন।

রোববার (২৪ মার্চ) সকালে ফিতা কেটে বেলুন উড়িয়ে তিনি প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন।

আইএসপিআরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, প্রদর্শনী ২৬ মার্চ থেকে ৩০ মার্চ সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত সবার জন্য খোলা থাকবে। এতে বাংলাদেশ সেনা, নৌ ও বিমানবাহিনী তাদের সমরাস্ত্রসহ সরঞ্জাম প্রদর্শন করে। এ উপলক্ষে বিমান বাহিনীর যুদ্ধ বিমানের ফ্লাই-পাস্ট এবং অনুষ্ঠানস্থলে হেলিকপ্টার থেকে সেনা বাহিনীর প্যারাট্রুপারদের সফল অবতরণ প্রত্যক্ষ করেন প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনা তিন বাহিনীর বিভিন্ন স্টল ও প্যাভিলিয়ন ঘুরে দেখেন এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা সমরাস্ত্র সম্পর্কে তাকে ব্রিফ করার সময় সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীর সৈন্যদের ব্যবহৃত বিভিন্ন হালকা ও ভারী অস্ত্র প্রত্যক্ষ করেন।

প্রধানমন্ত্রী ও অতিথিরা স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শিল্পীদের পরিবেশিত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করেন এবং পরে তাদের সঙ্গে ফটোসেশনে যোগ দেন।

জাতীয় প্যারেড স্কয়ারে প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানান সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ, নৌবাহিনী প্রধান অ্যাডমিরাল এম নাজমুল হাসান, বিমান বাহিনী প্রধান এয়ার চিফ মার্শাল শেখ আবদুল হান্নান।

অনুষ্ঠানে মন্ত্রিপরিষদ সদস্য, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা, সংসদ সদস্য, সচিব, বিদেশি রাষ্ট্রদূত, ঊর্ধ্বতন বেসামরিক ও সামরিক কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর