Logo
আজঃ শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪
শিরোনাম

বাংলাদেশ প্রবাসী অধিকার পরিষদের তৃতীয় বর্ষপূর্তি উদযাপন

প্রকাশিত:সোমবার ১৫ মে ২০২৩ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ৫৭৪জন দেখেছেন

Image

মোঃ নূরুল্লাহ খান শাজাহান, আরব আমিরাত থেকে :

বাংলাদেশ প্রবাসী অধিকার পরিষদ সংযুক্ত আরব আমিরাতের উদ্যোগে প্রবাসী বাংলাদেশীদের নিয়ে বাংলাদেশ প্রবাসী অধিকার পরিষদের তৃতীয় প্রতিষ্ঠা বার্ষিক, ও নবগঠিত কার্যনির্বাহী পরিষদ ইউএই এর সংবর্ধনা আবুধাবি সিটিতে রবিবার ১৪ মে অনুষ্ঠিত হয় । 


অনুষ্ঠানটি  ইউ এ ই -এর ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মোহাম্মদ উমর ফারুকের সুন্দর কোরআন তেলয়াতের মাধ্যম দিয়ে সূচনা করা হয়। পরে  মৃত ডাঃ জাফরুল্লাহ সাহেবের জন্য এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। উক্ত অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন সংযুক্ত আরব আমিরাতের সম্মানীত সভাপতি আজিজ কাজল।

দপ্তর সম্পাদক আলাউদ্দীন আকাশ ও প্রচার সম্পাদক ওয়াহিদুল আল কারিম এর যৌথ সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন বিশেষ অতিথি এবং ইউ এ ই এর প্রতিষ্ঠা কালীন সাবেক সভাপতি মাহফুজর রহমান রোমান এবং তাকে ফুল দিয়ে স্বাগতম জানান সভাপতি আজিজ কাজল , সাধারন সম্পাদক হাবিবুর রহমান এবং সাংগঠনিক সম্পাদক জুয়েল রানা ।


সংগঠন নিয়ে বিশেষ বক্তব্য রাখেন সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান ও সাংগঠনিক সম্পাদক জুয়েল রানা এবং অনলাইনের মাধ্যমে যুক্ত হন গনঅধিকার পরিষদের সদস্য সচিব জনাব সাবেক ডাকসুর ভিপি নূরুল হক নূর  এবং বাংলাদেশ প্রবাসী অধিকার পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইন্জিনিয়ার কবির হোসেন ও সাধারন সম্পাদক সাফায়েদ হোসেন এছাড়াও অন্যন্যাদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন প্রবাসী অধিকার পরিষদের সহ-সভাপতি মোস্তফা কামাল, যুগ্ন সাধারন সম্পাদক আবু সাহেদ, ইন্জিঃ মোহাম্মদ সেলিম , ফোরকান হোসেন , মজনু মিয়া,নজুরুল ইসলাম অর্থ সম্পাদক,উমর ফারুক, মোহাম্মদ হালিম , মোহাম্মদ পারভেজ মোঃ আলী , মদরিছ আলী , রাসেল চৌধরি রানা ,রাসেদ নিজাম ,ইলিয়াস অভি, জুয়েল,হৃদয় এবং প্রমূখ আরো অনেকে । 


উক্ত অনুষ্ঠানে বক্তৃতাকালে সারাবিশ্বে ছড়িয়ে ছিটে থাকা ১ কোটি ২০ লাখের ও বেশি প্রবাসীদের প্রতিনিধিত্ব কারী সংগঠন বাংলাদেশ প্রবাসী অধিকার পরিষদের পক্ষ থেকে সরকারের কাছে দশ দফা দাবি জানান প্রবাসীরা। 


বক্তব্যে প্রদান কালে সরকারের কাছে এই প্রবাসে বেকার থাকা সকলের প্রতি ট্রেনিং এর ব্যবস্থা করার জন্য আহ্বান জানান। প্রবাসীদের স্মার্ট কার্ড ও ভোটাধিকার প্রয়োগ, প্রবাসে মৃত ব্যক্তির লাশ বিনা খরচে দেশে প্রেরণ, বিমানবন্দরে প্রবাসীদের হয়রানি বন্ধ, প্রবাসী সুরক্ষা প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন, জাতীয় বাজেটে প্রবাসীদের জন্য বিশেষ বরাদ্দ, প্রবাসীদের জন্য যুগ উপযোগী দ্বৈত নাগরিকত্ব আইন ও পেনশন সুবিধা , বিদেশের পর্যাপ্ত দূতাবাস ও শ্রম কল্যাণ উইং, বিদেশে কাগজপত্র বিহীন প্রবাসীদের বৈধকরণের সরকারের সহযোগিতা, পাসপোর্ট সংশোধনের সুযোগসহ দালালমুক্ত পাসপোর্ট ও দূতাবাস সেবা, অভিবাসন ব্যয় ১ লক্ষ টাকার মধ্যে সীমাবদ্ধ ও প্রবাস ফেরতদের কর্মসংস্থান সুদ মুক্ত পর্যাপ্ত ঋণ সহ ১০ দফা দাবি জানান। অনুষ্ঠান শেষে সংগঠনের তৃতীয় বর্ষপূর্তির কেক কেটে পরিসমাপ্তি করা হয়।

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর

সোনার খনি ধসে ভেনেজুয়েলায় নিহত ২৩

বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




রিপিয়ারিং কাজে ব্যাপক অনিয়ম দূর্নীতি

প্রকাশিত:রবিবার ২৮ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১০২জন দেখেছেন

Image
আব্দুস সবুর তানোর থেকে:ইচ্ছে মত অনিয়ম দূর্নীতি করছেন, প্রতিটি রিপিয়ারিং রাস্তার কাজে অনিয়মে ভরপুর, আবার সিন্ডিকেটে অগ্রিম লাভ দিয়ে কিনে করা হচ্ছে রিপিয়ারিং কাজ। অবস্থাটা এমন এলজিইডি ও কতিপয় ঠিকাদারেরা মিলেমিশে লুটপাট শুরু করেছেন। রাজশাহীর তানোরে প্রায় ৯৭০ মিটার রাস্তার রিপিয়ারিং কাজে যত্রতত্র ভাবে বেড তৈরি করে  কার্পেটিং করার অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার তালন্দ ইউনিয়ন (ইউপির)  মোহর ঘোড়াডুবি মোড় থেকে দরগা মোড় পর্যন্ত রাস্তার কার্পেটিং করা হচ্ছে। রিপিয়ারিং রাস্তা টি কিনে করছেন স্থানীয় যুবদল নেতা ঠিকাদার নজরুল ও আতিকুর রহমান লিটন এবং পৌর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ঠিকাদার ইয়াসিন। তারা দরপত্রে কাজ না পেলেও অগ্রিম কয়েক পারসেন্ট লাভ দিয়ে কিনে করছেন কাজ। স্থানীয় ঠিকাদার হওয়ার কারনে ইচ্ছে মত অনিয়ম দূর্নীতি ও নিম্মমানের সামগ্রী ব্যবহার করে কাজ করলেও রহস্য জনক কারনে এলজিইডি কর্তৃপক্ষ একেবারেই নিরব ভূমিকা পালন করছেন। এতে করে রাস্তার টিকসই নিয়ে সন্দিহান গ্রামের লোকজন।
স্থানীয়রা জানান, রাস্তাটিতে ডাবলু বিএম করা হয়েছে পুরাতন খোয়া ও ভিজে মাটি দিয়ে। প্রাইম কোড করার পর প্রচুর ভাবে বালু মারা হয়েছে। যাতে কেউ বুঝতে না পারে। প্রাইম কোড করার সময় তেমন ভাবে রোলার মারা হয়নি, দেয়া হয়নি পানি। এজন্য পুরো রাস্তায় উঁচু নিচু হয়ে আছে।

মোহরগ্রামের বাসিন্দা মিলন, মাসুদ, মুকলেস, সাজাসহ অনেকে ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, এভাবে রাস্তার কাজ হয় এই প্রথম দেখলাম। বেডের বেশির ভাগ জায়গায়  খোয়াগুলো উঠে যাচ্ছে। ঠিকাদার সবার পরিচিত স্থানীয় ও তানোর সদরে বাড়ি। মুলত এজন্যই তাদেরকে  কেউ কিছুই বলতে পারেনা। অফিসের লোকজনদের দেখা পাওয়া যায় না। এত অনিয়ম দূর্নীতি করছে যা দিবালোকের মত পরিস্কার। কিন্তু সবাই নিরব। আমরা কৃষক, কাজের কি বুঝি, তারপরও যতটুকু বুঝি সে তুলনায় কাজের মান এত পরিমানে খারাপ বলা যাবে না। সরকার উন্নয়নের জন্য অধিক বরাদ্দ দিচ্ছেন, আর সেই বরাদ্দ লুটেপুটে খাচ্ছেন। কয়েক দিন পর আলু উত্তোলন শুরু হবে। আলু বহনকারী যানবাহন চলাচল করলেই রাস্তার বারোটা বেজে যাবে। আর বর্ষা মৌসুমে ঢল মারা পানি হলে পিচ থাকবে না। কারন পিচ ও বিটুমিন একেবারেই নাই বললেই চলে।
সরেজমিনে দেখা যায়, মোহর ঘোড়াডুবি মোড় থেকে দরগা মোড়ের আগ পর্যন্ত বেড তৈরি করা আছে। বাকি কয়েক মিটার রাস্তার কার্পেটিং ভালো থাকার কারনে নাম মাত্র পরিস্কার করে তার উপরেই কার্পেটিং করার কারনে পিচ দেয়া হচ্ছে। যাতা মাতা ভাবে পরিস্কার করে যে পিচ দেয়া হচ্ছে শুধু পোড়া মবেলের গন্ধ বের হচ্ছে। ঘোড়া ডুবি মোড় থেকে বালাইনাশকের দোকানের সামনে ইউড্রেন করা হয়েছে। তার চারদিকে বাঁশ দিয়ে ঘিরা আছে এবং ইউড্রেনের দু'ধারে যত সামান্য খোয়া ফেলা আছে।

কয়েকজন দোকানীরা জানান, অনেক রাস্তার কাজ দেখেছি। কিন্তু এরকম রাস্তার কাজ আর দেখিনি। কার্পেটিং করার পর মুরগীর পায়ে উঠে যাবে পিচ খোয়া। জানা গেছে,  রাস্তার কাজের সামগ্রীর দাম অধিক বাড়তি। দিনের দিন পাথর ও বিটুমিনের দাম প্রচুর ভাবে বাড়ছে । দরপত্রে যিনি কাজ পান তার পক্ষে একশো ভাগ না সত্তর ভাগ সঠিক কাজ করা কষ্টকর ব্যাপার। তাহলে যারা কিনে কাজ করছেন কি পরিমানে দূর্নীতি করছে বুঝে নিতে হবে। বিশেষ করে কাজের দায়িত্বে থাকা কর্তা বাবুদের ম্যানেজ ছাড়া কিনে কাজ করা অসম্ভব। আর বিএনপি নেতা ঠিকাদার ইয়াসিন, যুবদল নেতা ঠিকাদার নজরুল ও লিটন এলজিইডিকে ম্যানেজ করে প্রতিনিয়তই কিনে এভাবেই  কাজ করে থাকেন। এটা কর্তৃপক্ষ ও তাদের মহা সিন্ডিকেট। তাছাড়া এসময় কিনে কাজ করা অসম্ভব। চল্লিশ  ভাগও সঠিক ভাবে কাজ করতে পারবেনা। এসব অসাধু কর্মকর্তাদের জন্যই সরকারের উন্নয়ন মুলুক কাজ নিয়ে নানা প্রশ্ন উঠছে, সেই সাথে স্থানীয় এমপিরও বদনামের সৃষ্টি হয়। 

ঠিকাদার নজরুল ও লিটনের কাছে কাজের বিষয়ে জানতে চাইলে তারা কোন রকমের কথা বলবেনা বলে সাব জানিয়ে দেন। কাজের দায়িত্বে থাকা উপসহকারী প্রকৌশলী শাহিন জানান, ৯৭০ মিটার রাস্তার রিপিয়ারিং কাজ হচ্ছে। দরপত্রে যে ঠিকাদার কাজ পেয়েছেন তার কাছ থেকে কত লাভ দিয়ে কিনে করছেন এবং কাজের বরাদ্দ কত জানতে চাইলে তিনি জানান পরে কথা বলছি বলে দায় সারেন তিনি।উপজেলা প্রকৌশলী সাইদুর রহমানের ০১৭৪৯৪৫৭৯১৭ মোবাইল নম্বরে একাধিকবার ফোন দেয়া হলেও তিনি রিসিভ করেন নি।নির্বাহী প্রকৌশলী নাসির উদ্দীনের ০১৭০৮১২৩২৩২ মোবাইল নম্বরে ফোন দেয়া হলে তিনিও রিসিভ করেন নি। 

আরও খবর

জয়পুরহাটে হুমকি পাওয়া সেই বিচারক প্রত্যাহার

বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে সরকারের নবম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে হবে: জনপ্রশাসনমন্ত্রী

প্রকাশিত:শনিবার ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১২৯জন দেখেছেন

Image

মজনুর রহমান আকাশ, মেহেরপুর প্রতিনিধি:২০৪১ সালের স্মার্ট বাংলাদেশা গড়ার পথে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ। এ লক্ষ্যের জন্য সরকারের নবম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা বাস্তবায়ন অত্যন্ত জরুরী।

আজ শনিবার দুপুরে মেহেরপুর জেলা প্রশাসন আয়োজিত সংবর্ধনা সভায় প্রধান অতিতির বক্তৃতায় সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারীদে উদ্দেশ্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন তিনি।

বক্তৃতায় মন্ত্রী বলেন, সরকারী দপ্তরের প্রতিটি বিভাগের এপিআই আছে। আমরা যথাযথভাবে এপিআই মূল্যায়ন করছি। সরকারি কর্মকর্তাদের কাজের অনুকুল পরিবেশ তৈরী করে দিয়েছি। এপিআই মূল্যায়নে মেহেরপুর জেলার সকল সরকারি কার্যালয় সবার সেরা হবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

পূর্ণমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পাওয়ায় এ সংবর্ধার আয়োজন করে মেহেরপুর জেলা প্রশাসন।সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সভাপত্বি করেন মেহেরপুর জেলা প্রশাসক শামিম হাসান। মুজিবনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি রবিউল ইসলাম, মেহেরপুর পুলিশ সুপার এসএম নাজমুল হকসহ জেলার সকল সরকারি দপ্তর, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে জনপ্রশাসনমন্ত্রী ফরহাদ হোসেনকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়।

গেল সরকারের প্রতিমন্ত্রী হিসেবে সফল দায়িত্ব পালনের পর এবার মন্ত্রী সভায় পুর্ণ মন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়েছেন মেহেরপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য ফরহাদ হোসেন।


আরও খবর



প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে দ. আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট ও জর্জিয়ার প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন

প্রকাশিত:সোমবার ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24 | ৯১জন দেখেছেন

Image

খবর প্রতিদিন ২৪ডেস্ক :শেখ হাসিনাকে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে পুনরায় নির্বাচিত হওয়ায় অভিনন্দন জানিয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট মাতামেলা সিরিল রামাফোসা ও জর্জিয়ার প্রধানমন্ত্রী ইরাকলি গরিবাশভিলি৷

দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট মাতামেলা সিরিল রামাফোসার পাঠানো এক চিঠিতে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে পুনরায় নির্বাচিত হওয়ায় শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানান। শেখ হাসিনার কাছে পাঠানো ওই চিঠিতে দক্ষিণ আফ্রিকার রাষ্ট্রপতি লিখেছেন, দক্ষিণ আফ্রিকার সরকার ও জনগণের পক্ষ থেকে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে আপনি পুননির্বাচিত হওয়ায় আমাকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানানোর অনুমতি দিন।

তিনি উল্লেখ করেন যে, দক্ষিণ আফ্রিকা বাংলাদেশের সাথে সম্পর্ককে বিশেষভাবে গুরুত্ব দেয়, বিশেষ করে সংহতি, বন্ধুত্ব ও পারস্পরিক বোঝাপড়ার ওপর ভিত্তি করে শক্তিশালী ভিত্তি। কূটনৈতিক সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার পর থেকে আমাদের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের শক্তিশালীকরণে প্রতিফলিত স্থির অগ্রগতিতে আমি উৎসাহিত হয়েছি। গত আগস্টে ব্রিকস-আফ্রিকা আউটরিচ এবং ব্রিকস প্লাস সংলাপে আপনার উপস্থিতির দ্বারা এটি পাকাপক্ত করা হয়েছিল। আমি আপনাকে আশ্বস্ত করতে চাই যে, দক্ষিণ আফ্রিকাসহ আমাদের দেশগুলোর মধ্যে পারস্পরিক উপকারী দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের আরও সম্প্রসারণে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

তিনি শেখ হাসিনার অব্যাহত সুস্বাস্থ্য কামনা করেন এবং দুই দেশের মধ্যে বিদ্যমান বন্ধুত্বের বন্ধনকে আরও জোরদার ও সুসংহত করার আকাঙ্ক্ষা পুনর্ব্যক্ত করেন।

এক শুভেচ্ছা বার্তায় জর্জিয়ার প্রধানমন্ত্রী ইরাকলি গরিবাশভিলি লিখেছেন, জর্জিয়া সরকারের পক্ষ থেকে এবং আমার নিজের সরকারের পক্ষ থেকে, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে আপনার পুননির্বাচিত হওয়ার জন্য আন্তরিক অভিনন্দন জানাতে এবং আপনার দায়িত্বশীল দায়িত্ব পালনে সাফল্য কামনা করছি। আমি এটা দেখে আনন্দিত যে, আমাদের দেশগুলো পারস্পরিক বোঝাপড়া ও সম্মানের ভিত্তিতে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক গড়ে তুলেছে। আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি যে, আমাদের সহযোগিতামূলক প্রচেষ্টার মাধ্যমে বর্তমান সম্পর্কগুলো ভাগ করা স্বার্থের সব ক্ষেত্রেই জোরদার হতে থাকবে।


আরও খবর



কুমিল্লায় পপুলার লাইফ ইনস্যুরেন্সের মাসিক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:রবিবার ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৭১জন দেখেছেন

Image
এস এম শফিকুল ইসলাম, জয়পুরহাট প্রতিনিধিঃপপুলার লাইফ ইনস্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেডের কুমিল্লা  অঞ্চলের উন্নয়ন কর্মকর্তাদের নিয়ে ব্যবসা মাসিক সমন্বয়  সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারী ) সকালে কুমিল্লায় কোম্পানীর নিজস্ব ভবনের অফিস রুমে  এ মাসিক সমন্বয়  সভা অনুষ্ঠিত হয়।পপুলার লাইফ ইনস্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেডের অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক বি এম শওকত আলীর সভাপতিত্বে মাসিক সমন্বয়  সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন পপুলার লাইফ ইনস্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও, বাংলাদেশ ইনস্যুরেন্স ফোরামের প্রেসিডেন্ট ও বাংলাদেশ ইনস্যুরেন্স অ্যাসোসিয়েশনের কার্যনির্বাহী সদস্য  বি এম ইউসুফ আলী। 


বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন  পপুলার লাইফ ইনস্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেডের একক বীমা প্রকল্পের  উর্দ্ধতন  উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক (ব্রাঞ্চ কন্ট্রোল) সৈয়দ মোতাহার হোসেন, আল আমীন বীমা প্রকল্পের  উর্দ্ধতন  উপ- ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবু তাদের, জনপ্রিয় বীমা প্রকল্পের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক কামাল হোসেন মহসিন, ইসলামী ডিপিএস প্রকল্পের উপ- ব্যবস্থাপনা পরিচালক খলিলুর রহমান সিকদার।

এ সময়ে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, আল বারাকাহ ইসলামী ডিপিএস প্রকল্পের উর্দ্ধতন নির্বাহী পরিচালক ও প্রকল্প  পরিচালক সেলিম মিয়া, জনপ্রিয় একক বীমা প্রকল্পের  উর্দ্ধতন নির্বাহী পরিচালক ও প্রকল্প পরিচালক জাহাঙ্গীর হোসেন, পপুলার ডিপিএস প্রকল্পের নির্বাহী পরিচালক ও প্রকল্প পরিচালক আবু মুঈদ শাহীন,  আল বারাকা ইসলামী একক বীমা প্রকল্পের নির্বাহী পরিচালক ও প্রকল্প পরিচালক মাহাবুবুর রহমান আল,  ইসলামী বীমা তাকাফুল প্রকল্পের নির্বাহী পরিচালক ও প্রকল্প পরিচালক সাজ্জাদ মাহমুদ কিশোর, আল বারাকা ইসলামী একক বীমা প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক অরুণ চন্দ্র নাথ, ইসলামী ডিপিএস প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক ও জেলা সমন্বয়কারী সোলাইমান হোসেন সোহাগ, ইসলামী বীমা তাকাফুল  প্রকল্পের মহা-ব্যবস্থাপক ও জেলা সমন্বয়কারী আহসানুল ইসলাম প্রমুখ। 


আরও খবর



অপতথ্যকে জবাবদিহিতার আওতায় আনতে চাই : তথ্য প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ১০২জন দেখেছেন

Image
মারুফ সরকার, স্টাফ রিপোর্টার:তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী মোহাম্মদ আলী আরাফাত বলেছেন, আমরা গণমাধ্যমের পূর্ণাঙ্গ স্বাধীনতা চাই, অপতথ্যকে জবাবদিহিতার আওতায় আনতে চাই। আমরা দিন শেষে চাই গুজব বা রিউমারমুক্ত গণমাধ্যম। যেখানে তথ্যের অবাধ প্রবাহ থাকবে এবং সরকার বা অথোরিটিকে অবশ্যই প্রশ্ন করা হবে। উত্তর দেওয়ার সুযোগ থাকবে এবং সমালোচনার জায়গা থাকবে। 

আজ বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে টেলিভিশন ওনার্স এসোসিয়েশন-এটকো’র সাথে এক সভায় প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, প্রথম কেবিনেট মিটিংয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বলেছেন অনেক ক্ষেত্রে সমালোচনা হবে, কিছু কিছু সমালোচনা হবে সঠিক তথ্যের ভিত্তিতে, সেগুলো জেনে সুধরে নেওয়ার চেষ্টা করতে হবে। তিনি চান সমালোচনা হোক সঠিক তথ্যের ভিত্তিতে। 

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, সরকার বা সরকারের বিভিন্ন অধিদপ্তর বা মন্ত্রণালয় বিভিন্ন কাজ নিয়ে যদি কোনো বিচ্যুতি বা ব্যর্থতা থাকে অবশ্যই সমালোচনা হবে এবং সেটা যদি প্রথম পাতায় প্রিন্ট মিডিয়া বা ইলেক্টনিক মিডিয়াতে হেডলাইনে থাকে তাহলে সরকারের সেই সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় বা ব্যক্তিবর্গ যে জবাব দিবেন সেই জবাবগুলো যাতে একইভাবে গুরুত্বসহকারে মিডিয়াতে আসে; যেন জনগণ একটা সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পারে। কারণ গণতন্ত্রে কিন্তু মানুষকে স্বাধীনভাবে সিদ্ধান্ত নিতে হয় এবং ইনফর্ম ডিসিশন নিতে হয়।

এ আরাফাত বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে ব্যবহার করে এক ধরণের অপচেষ্টা চলে। গত ১৫ বছরে গণমাধ্যমের যে বিস্তৃতি ঘটেছে সেখানে কীভাবে প্রতিষ্ঠান দাঁড় করানো যায় এবং শৃঙ্খলা আনা যায় সেই চেষ্টা করতে হবে। প্রথমেই সতর্ক থাকতে হবে, আমরা যেমন মিসইনফরমেশনকে নির্মূল করতে চাই, অপতথ্যকে জবাবদিহিতার আওতায় আনতে চাই কিন্তু সেটি করতে যেয়ে মতপ্রকাশের স্বাধীনতা, গণমাধ্যমের স্বাধীনতা সেখানে যেন ওভারস্টেপ না হয়। তবে দেশ, জাতীয় পতাকা, জাতীয় সংগীত, মুক্তিযুদ্ধ এবং ত্রিশ লক্ষ শহিদদের নিয়ে কোনো বিতর্ক থাকতে পারে না। এগুলো দেশবিরোধী কর্মকান্ড।

তিনি মনে করেন আলাপ আলোচনার ভিত্তিতে সমালোচনার স্পেজ রেখে কীভাবে একসাথে কাজ করা যায় সেই চেষ্টা থাকবে। 

আরও খবর