Logo
আজঃ শুক্রবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২৩
শিরোনাম

বাগেরহাটে ব্যাডমিন্টন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:সোমবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | ৭৮জন দেখেছেন

Image

বাগেরহাট প্রতিনিধি:বাগেরহাট জেলা ক্রীড়া অফিসের আয়োজনে ব্যাডমিন্টন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে।বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করে জেলা প্রশাসক মোহা: খালিদ হোসেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. হাফিজ আল আসাদ. সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রাসেদুজ্জামানসহ আরও অনেকে।  প্রতিযোগিতায় বাগেরহাট জেলার  পাঁচটি উপজেলার ৬৪ জন খেলোয়াড় অংশ নেয়।প্রতিযোগিতায় সিনিয়র গ্রুপে  সদর উপজেলার হুমায়ুন ও অয়ন, জুনিয়র গ্রুপে ফকিরহাট উপজেলার গালিব ও পলক এবং প্রমিলা গ্রুপে মোংলার লিকা পোদ্দার ও স্বর্ণালী চ্যাম্পিয়ন হয়। বাগেরহাটের জেলা ক্রীড়া অফিসার হুসাইন আহমাদ বলেন, এ প্রতিযোগিতা বাগেরহাট জেলার ব্যাডমিন্টন খেলোয়াড়দের খেলার প্রতি আগ্রহ আরো বৃদ্ধি করবে। এছাড়া নতুন খেলোয়াড় তৈরীতে সহযোগী ভূমিকা রাখবে। প্রতিযোগিতা পরিচালনা করেন বাগেরহাট সরকারী  প্রফুল্ল চন্দ্র কলেজের শারীরিক শিক্ষার শিক্ষক মো: শামিম।এর আগে শনিবার সকালে  প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করা হয়।


আরও খবর



‘কারাগারে ধারণক্ষমতার দ্বিগুণ বন্দি’

প্রকাশিত:সোমবার ০৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | ১১১জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:দেশের কারাগারগুলোতে ধারণক্ষমতার দ্বিগুণের বেশি বন্দি রয়েছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। তিনি বলেন, কারাগারের ধারণক্ষমতা ৪২ হাজার ৮৬৬ জন হলেও বর্তমানে বন্দির সংখ্যা ৭৭ হাজার ২০৩ জন।

রোববার (৩ সেপ্টেম্বর) জাতীয় সংসদ অধিবেশনের প্রশ্নোত্তর পর্বে এক প্রশ্নের লিখিত উত্তরে তিনি এ তথ্য জানান।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, যশোর, সিলেট, দিনাজপুর, ফেনী, পিরোজপুর ও মাদারীপুর কারাগার ব্যতীত বর্তমানে দেশের সব কারাগারে ধারণক্ষমতার চেয়ে অতিরিক্ত বন্দি আটক রয়েছে। এরমধ্যে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে সর্বোচ্চ ৯ হাজার ৭৬৫ জন বন্দি রয়েছে। এই কারাগারের ধারণক্ষমতা ৪ হাজার ৫৯০ জনের। ঝালকাঠি জেলা কারাগারে সর্বনিম্ন ১৮৯ জন বন্দি রয়েছে।

আসাদুজ্জামান খান কামাল জানান, কারাগারের ধারণক্ষমতা বৃদ্ধি একটি চলমান প্রক্রিয়া। বর্তমানে ময়মনসিংহ, কুমিল্লা, খুলনা, নরসিংদী ও জামালপুর- এই ৫টি কারাগার নির্মাণ ও সম্প্রসারণের কাজ চলছে। কারাগারগুলোর নির্মাণকাজ সমাপ্ত হলে বন্দি ধারণক্ষমতা প্রায় ৫ হাজার জন বৃদ্ধি পাবে।

আওয়ামী লীগের সদস্য নিজামউদ্দিন হাজারীর এক প্রশ্নের উত্তরে মন্ত্রী আরও জানান, কারাগারে আটক বন্দিদের মানবিক মূল্যবোধ জাগ্রত করতে ধর্মীয় শিক্ষক নিয়োজিত আছে। এছাড়া বন্দিদের বিভিন্ন ধরনের ইনডোর খেলাধুলা, বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণ, মেডিটেশন, বই ও পত্র-পত্রিকা পড়ার ব্যবস্থা রয়েছে।


আরও খবর

এডিসি হারুন রংপুরে যোগ দিলেন

বৃহস্পতিবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২৩




মার্কিন ডেপুটি অ্যাসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি যে কারণে ঢাকায়

প্রকাশিত:সোমবার ০৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | ১১৭জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:নবম নিরাপত্তা সংলাপে বসবে বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্র। মঙ্গলবার (৫ সেপ্টেম্বর) অনুষ্ঠিত এ সংলাপে যোগ দিতে ঢাকায় এসেছেন মার্কিন রাজনৈতিক-সামরিকবিষয়ক ব্যুরোর ডেপুটি অ্যাসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি মিরা রেজনিক।

সোমবার (৪ সেপ্টেম্বর) রেজনিকের ঢাকায় পৌঁছা‌নোর তথ‌্য এক টুইট বার্তায় নি‌শ্চিত ক‌রে‌ছে ঢাকাস্থ মা‌র্কিন দূতাবাস।

টুই‌টে জানা‌নো হয়, যুক্তরাষ্ট্রের রাজনৈতিক-সামরিক বিষয়ক ডেপুটি অ্যাসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি মিরা রেজনিককে স্বাগতম। তিনি যুক্তরাষ্ট্র-বাংলাদেশ দ্বিপাক্ষিক নিরাপত্তা সংলাপের জন্য ঢাকায় এসেছেন। যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধিদল আঞ্চলিক উন্নয়ন, মানবাধিকার, নিরাপত্তা সহায়তা এবং সন্ত্রাসবাদ দমন নিয়ে আলোচনা করবে।

এদিকে রোববার মা‌র্কিন দূতাবাস জানায়, নিরাপত্তা সংলাপ একটি বার্ষিক বেসামরিক আয়োজন, যেখানে আমাদের নিরাপত্তা সম্পর্কের সমস্ত বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়। উভয় পক্ষের প্রতিনিধিরা ইন্দো-প্যাসিফিক আঞ্চলিক সমস্যা, নিরাপত্তা ও মানবাধিকার, সামরিক সহযোগিতা, শান্তিরক্ষা, নিরাপত্তা সহায়তা এবং সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে আলোচনা কর‌বে। এ সংলাপ আমাদের দুই সরকারের মধ্যেকার সর্বাঙ্গীণ নিরাপত্তা সম্পর্কের একটি অংশ।

ঢাকার পক্ষে সংলা‌পে নেতৃত্ব দেওয়ার কথা র‌য়ে‌ছে পররাষ্ট্রস‌চিব মাসুদ বিন মো‌মে‌নের। অন‌্যদি‌কে, ওয়া‌শিয়ট‌নের প্রতিনিধিদলের নেতৃত্বে থাকবেন দেশ‌টির রাজনৈতিক সামরিক বিষয়ক ব্যুরোর ডেপুটি অ্যাসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি মিরা রেজনিক।

মা‌র্কিন দূতাবাস বল‌ছে, যুক্তরাষ্ট্র এবং বাংলাদেশের নিরাপত্তা বিষয়ক অংশীদারিত্ব অত্যন্ত শক্তিশালী এবং ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলে আমাদের দুইটি দেশের স্বার্থ অভিন্ন। ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলকে মুক্ত, অবারিত, শান্তিপূর্ণ এবং সুরক্ষিত রাখার ক্ষেত্রে দেশ দুইটির দৃষ্টিভঙ্গি একই ধরনের। এ পারস্পরিক লক্ষ্যগুলো অর্জনে সারাবছর বিভিন্ন ধরনের সংলাপ আয়োজিত হয়।


আরও খবর

এডিসি হারুন রংপুরে যোগ দিলেন

বৃহস্পতিবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২৩




মধুপুরে জমি সংক্রান্ত জেরে হামলা আহত ৫

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৪ আগস্ট ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | ২১৭জন দেখেছেন

Image

বাবুল রানা বিশেষ প্রতিনিধি মধুপুর টাঙ্গাইল:টাঙ্গাইলের মধুপুরে জমি সংক্রান্ত জেরে প্রতিপক্ষের হামলায় ২ মহিলা সহ ৫জন গুরুতর ভাবে আহত হয়েছে। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে মধুপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক বাবুল হোসেন ও সপ্না বেগমকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। অন্যদেরকে সু চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।বৃহস্প্রতিবার(২৪ আগষ্ট)বেলা ১১টার দিকে মধুপুর উপজেলাধীন কুড়ালিয়া ইউনিয়নের কেওটাই থলঘাট নামক এলাকায় এই লোমহর্ষক ঘটনাটি ঘটে বলে পুলিশ সূত্রে জানা যায়।

বাদী মহির উদ্দিন জানান, বিবাদীদের সাথে দীর্ঘদিন যাবত জমি সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। আমার বাড়ি যাওয়ার রাস্তা ভেঙে পড়ার কারনে আজ কিছু বালি ফেলে রাস্তা মেরামতের কাজ করার সময় পরিকল্পিত ভাবে হত্যার উদ্দেশ্যে ১নং বিবাদী মৃত মফিজ উদ্দিন ছেলে সানোয়ার হোসেন (৫৫) এর নির্দেশে ১৪/১৫ জনের সংঘবদ্ধ সন্ত্রাসী বাহিনী দা, কোদাল, রড সহ দেশীয় অস্ত্র দিয়ে আমাদের পরিবারের ছেলে মেয়ে সহ সবাইকে এলোপাতাড়ি ভাবে পিটিয়ে ও কুপিয়ে মারাত্মক ভাবে আহত করে।

আমাদের বাচাতে বাড়ির মহিলাগন এগিয়ে এলে তাদেরকেও এলোপাতাড়ি ভাবে পিটিয়ে রক্তাক্ত করে এবং পরনের শাড়ি কাপড় ছিড়ে ফেলে।এলাকাবাসী আমাদের উদ্ধার করে মধুপুর হাসপাতালে নিয়ে যায়। এদের মধ্যে দুইজনের অবস্থা আশংকা জনক। তাদের উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে এবং গুরুতর অন্যান্যদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ বিষয়ে মহির উদ্দিন বাদী হয়ে মধুপুর থানায় একটি অভিযোগপত্র দাখিল করেছেন। 

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর

সেই ধর্ষক জনি ঢাকায় গ্রেফতার

বৃহস্পতিবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২৩




আজ রাজধানীর যেসব এলাকায় ৮ ঘণ্টা গ্যাস থাকবে না

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৪ আগস্ট ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | ১৩৫জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:পাইপলাইনের জরুরি প্রতিস্থাপন বা অপসারণ কাজের জন্য আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর বেশ কয়েকটি এলাকায় গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকবে। গতকাল বুধবার এক বিজ্ঞপ্তিতে তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড কোম্পানি এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত মোট ৮ ঘণ্টা গ্যাস বন্ধ থাকবে। রাজধানীর তালতলা, গোড়ান, সিপাহীবাগ, তিলপাপাড়া, শান্তিপুর, দক্ষিণ বনশ্রী, নন্দিপাড়ার উত্তরাংশ এলাকায় সব শ্রেণির গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকবে।

এ ছাড়া ওই সময়ে আশপাশের এলাকায় গ্যাসের স্বল্পচাপ বিরাজ করতে পারে। গ্রাহকদের সাময়িক অসুবিধার জন্য তিতাস কর্তৃপক্ষ আন্তরিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করেছে।

এর আগেরদিন গতকাল বুধবার দুপুর ২টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত বনানী এলাকায় সব শ্রেণির গ্যাস সরবরাহ বন্ধ ছিল।


আরও খবর

এডিসি হারুন রংপুরে যোগ দিলেন

বৃহস্পতিবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২৩




কোটি শিশুর ভবিষ্যৎ অনিশ্চয়তার মুখে: জাতিসংঘ

প্রকাশিত:সোমবার ০৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | ৮৯জন দেখেছেন

Image

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:অনিশ্চয়তার মুখে কোটি কোটি শিশুর ভবিষ্যৎ। বৈশ্বিক অর্থনৈতিক পরিস্থিতিতে অনেক শিশুকে স্কুল ছেড়ে কাজে নামতে হতে পারে বলে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন জাতিসংঘের আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার প্রধান গিলবার্ট হুংবো। তিনি বলেন, বৈশ্বিক অর্থনৈতিক সংকটে পৃথিবীজুড়ে যে আগ্রাসন চলছে তার শিকার হতে পারে শিশুরা।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা যায়। প্রতিবেদনে বলা হয়, বৈশ্বিক অর্থনৈতিক সংকটে অনেক শিশু যৌন নিপীড়নের শিকারও হতে পারে। এই পরিস্থিতি সামলে দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘ। 

গিলবার্ট বলেন, ‘করোনা পরিস্থিতি ও মুদ্রাস্ফীতির কারণে জীবনযাত্রার খরচ এত বেড়ে গেছে যে পরিস্থিতির অবনতি ঘটেছে। আমরা যদি এখনই দ্রুত পদক্ষেপ না নেই, তাহলে এই সমস্যা আরও প্রকট হবে।

২০২০ সালে জাতিসংঘের প্রকাশিত তথ্যে দেখা যায়, বিশ্বজুড়ে শিশুশ্রমের শিকার ১৬ কোটি। হুংবো বলেন, এই সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। আগামী ২০ বছরে এটি আরও বাড়বে।

খাবার ও জ্বালানির দাম বৃদ্ধিতে অন্য খাতে খরচ কমাচ্ছে পরিবার। পরিস্থিতি এমন হয়ে গেছে একবেলার খাবারও কমাতে হচ্ছে কোনো কোনো পরিবারকে। একটা সময় শুরু হচ্ছে শিশুশ্রম। মা-বাবা বাধ্য হয়ে সন্তানকে কাজে পাঠাচ্ছেন।

কেনিয়ার উপকূলীয় শহর মোমবাসার ১৪ বছরের এক মেয়ে শিশু বিবিসিকে জানায়, তার কাজে যাওয়া ছাড়া কোনো উপায় ছিল না। তার মা তিন সন্তানের খাবার ও পড়াশোনার খরচ চালাতে হিমশিম খাচ্ছিলেন।

মেয়েটি জানায়, অর্থ উপার্জনের জন তার কাপড় পরিষ্কার করতে হচ্ছে, চুল কাটতে হচ্ছে। এমনকি যৌনকর্মেও সম্মতি জানাতে হচ্ছে।

এমন অবস্থায় তার স্কুলে যেতেও অনেক কষ্ট হয়। সে জানায়, মাঝে মাঝে তার এত ক্ষুধা লাগে যে খেতেও পারে না।তার মা বলেন, নিজের সন্তানকে এমন কিছু করতে বলা সহজ ছিল না। কিন্তু করোনা মহামারির সময় চাকরি হারানোয় তার কিছু করার ছিল না।

তিনি আরও বলেন, ‘এটি আমার জন্য খুবই কষ্টের। আমি চাই আমার সন্তানরা অন্য বাচ্চাদের মতো স্কুলে যাক, ভালো একটা ভবিষ্যৎ গড়ুক। কিন্তু আমি পারছি না। আমার চাকরি নেই।’


আরও খবর

কানাডার নাগরিকদের ভিসা দেওয়া স্থগিত করলো ভারত

বৃহস্পতিবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২৩

হিজাব না পরলে ইরানে ১০ বছরের জেল

বৃহস্পতিবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২৩