Logo
আজঃ বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম
নিলয় কোটা আন্দোলনকারীদের পক্ষ নিয়ে কী বললেন স্থগিত ১৮ জুলাইয়ের এইচএসসি পরীক্ষা দেশের সব স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা তিতাসের অভিযানে নারায়ণগঞ্জের ২ শিল্প কারখানার অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন হিলি দিয়ে কাঁচা মরিচ আমদানি বাড়ায় বন্দরের পাইকারী বাজারে কেজিতে দাম কমেছে ৩০ টাকা জয়পুরহাটে ডাকাতির পর প্রতুল হত্যা মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন রিয়েলমি সার্ভিস ডে: ফোন রিপেয়ারে খরচ বাঁচান ৬০% পর্যন্ত, উপভোগ করুন ফ্রি সার্ভিস সুনামগঞ্জে ইয়াবাসহ ২জন গ্রেফতার: কোটিপতি সোর্স ও গডফাদার অধরা কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে ৩ দিনে ৩ খুন, আইনশৃংখলার অবনতি জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

আওয়ামী লীগ কোনো ভিসা নিষেধাজ্ঞার পরোয়া করে না: ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত:রবিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ২১৭জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:আওয়ামী লীগ কোনো ভিসানীতির প্রয়োগ বা নিষেধাজ্ঞার পরোয়া করে না। আওয়ামী লীগ পরোয়া করে দেশের জনগণকে। কোনো দেশের ভিসানীতি বাংলাদেশের নির্বাচন ও গণতন্ত্রে কোনো প্রভাব রাখতে পারবে না। জনগণের মতামতের ওপর ভিত্তি করেই দেশের গণতন্ত্রের পথরেখা নির্ধারিত হবে।রোববার (২৪ সেপ্টেম্বর) সমসাময়িক রাজনৈতিক বিষয়ে গণমাধ্যমে পাঠানো সংবাদ বিবৃতিতে এসব কথা বলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

আওয়ামী লীগ গণতান্ত্রিক চেতনা ও মূল্যবোধের প্রতি শ্রদ্ধাশীল মন্তব্য করে দলটির সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘আমরা একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের প্রতি দৃঢ়ভাবে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। আওয়ামী লীগ জনগণের ওপর আস্থা রেখেই সরকার পরিচালনা করে আসছে। জনগণই আমাদের একমাত্র শক্তি। দেশি-বিদেশি ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে নির্বাচনকে বাধাগ্রস্ত করার যে কোনো ধরনের অপতৎপরতাকে প্রতিহত করবে দেশের জনগণ।

খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে বিএনপি নেতারা মিথ্যাচারের মাধ্যমে জনগণকে বিভ্রান্তের অপচেষ্টা করছে বলে দাবি করে ওবায়দুল কাদের বলেন, এই বিষয়টি নিয়ে রাজনীতি করতে গিয়ে আইনবিরোধী কথাবার্তা বলছে। গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক সংস্কৃতির প্রতি শ্রদ্ধা না রেখে গায়ের জোরে ফ্যাসিস্ট কায়দায় দাবি আদায়ের জন্য তারা রাষ্ট্রযন্ত্রকে অকার্যকর করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে। 

এদিকে আজ (রোববার) এক সমাবেশে আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠানোর দাবি জানান দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। 

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি নেতাদের মনে রাখা উচিত, তারা কোনো আন্দোলনের মাধ্যমে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে পারে নাই। বরং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদার মানবিকতার কারণে দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি হয়েও নিজ বাসায় বসবাস করছেন এবং নিজের পছন্দমতো হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে পারছেন দলটির নেত্রী। এ কারণে তাদের প্রধানমন্ত্রীর কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করা উচিত।  

বিএনপির প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ষড়যন্ত্রের পথ পরিহার করে নির্বাচনের প্রস্তুতি গ্রহণ করুন এবং রাজনৈতিক সংকট সৃষ্টির পাঁয়তারা থেকে সরে আসুন। জাতিকে বিভক্ত করার দুরভিসন্ধি থেকে বিএনপিকে বেরিয়ে আসতে হবে। তা না হলে এ দেশের জনগণের গণতান্ত্রিক চেতনা ও সংস্কৃতিকে বিনষ্ট করার দায় তাদের নিতে হবে। নির্বাচনের মাধ্যমে জনগণ যাদের ভোট দেবে তারাই রাষ্ট্রক্ষমতায় অধিষ্ঠিত হবে। নির্বাচনকে বাধাগ্রস্ত করার অপচেষ্টা করলে যে কোনো উপায়ে তা প্রতিহত করা হবে।


আরও খবর



পত্নীতলায় সাঁওতাল বিদ্রোহ দিবস পালিত

প্রকাশিত:সোমবার ০১ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১১১জন দেখেছেন

Image
দিলিপ চৌহান, পত্নীতলা (নওগাঁ) প্রতিনিধি:পত্নীতলায় জাতীয় আদিবাসী পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির আয়োজনে সাঁওতাল বিদ্রোহের মহানায়ক সিধু ও কানুর স্মরণে ১৬৯তম ঐতিহাসিক সাঁওতাল বিদ্রোহ দিবস পালন করা হয়েছে। এ উপলক্ষে সোমবার দুপুরে নজিপুর পুরাতন বাজার পত্নীতলা প্রেসক্লাবের অস্থায়ী কার্যালয়ে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

জাতীয় আদিবাসী পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সভানেত্রী বিচিত্রা তির্কীর সভাপতিত্বে ও জাতীয় আদিবাসী পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক নরেন চন্দ্র পাহান এর সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন পত্নীতলা প্রেসক্লাব ও উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি সভাপতি আলহাজ্ব বুলবুল চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক দিলীপ চৌহান, জাতীয় আদিবাসী পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির কোষাধক্ষ্য মার্টিন মুরমু।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন জাতীয় আদিবাসী পরিষদ নওগাঁ সদর উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক নিতাই চন্দ্র পাহান, জাতীয় আদিবাসী পরিষদ পত্নীতলা  উপজেলা শাখা সাধারণ সম্পাদক পরেশ টুডু, মান্দা উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক নিপেন মুন্ডা, মহাদেবপুর উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক চঞ্চল পাহান, জেলা আদিবাসী ছাত্র পরিষদ সভাপতি মিঠুন পাহান, দপ্তর সম্পাদক শাকিল পাহান, জাতীয় আদিবাসী ছাত্র পরিষদ পত্নীতলা উপজেলা শাখা সভাপতি পলাশ পাহান, সাধারণ সম্পাদক জয়ন্ত পাহান,  উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মমতা রানী মহন্ত, দিলীপ কুমার দাস প্রমুখ।

বক্তারা বলেন এ বছর সাঁওতাল বিদ্রোহের ১৬৯ বছর পূর্ণ হচ্ছে। ইংরেজদের বিরুদ্ধে স্বাধিকার ফিরিয়ে আনার সংগ্রামের নাম সাঁওতাল বিদ্রোহ। এ বিদ্রোহই ছিল ইংরেজদের দেশ থেকে বহিষ্কার করার প্রথম আন্দোলন। আজ থেকে ১৬৯ বছর আগে ১৮৫৫ সালের এই সাঁওতাল সম্প্রদায়ের চার ভাই সিদু-কানহু-চানদ ও ভাইরোর নেতৃত্বে সাঁওতালরা ব্রিটিশদের বিরুদ্ধে সর্বাত্মক যুদ্ধ ঘোষণা করেছিল। এ যুদ্ধের উদ্দেশ্য ছিল ব্রিটিশ সৈন্য ও তাদের দোসর অসৎ ব্যবসায়ী, মুনাফাখোর ও মহাজনদের অত্যাচার, নিপীড়ন ও নির্যাতনের হাত থেকে নিজেদের রক্ষা করা। কিন্তু বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫০ বছর পরেও সাঁওতালরা অধিকার থেকে বঞ্চিত।

আরও খবর



আছাদুজ্জামান মিয়ার ব্যক্তিগত তথ্য ফাঁস করায় বরখাস্ত গাজীপুরের এডিসি জিসানুল হক

প্রকাশিত:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১৪৪জন দেখেছেন

Image

নাজমুল হাসানঃ 

ডিএমপির সাবেক পুলিশ কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়ার জাতীয় পরিচয়পত্রসহ স্পর্শকাতর তথ্য সরবরাহের অভিযোগে গাজীপুরের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার জিসানুল হককে চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।সোমবার (২৪ জুন) স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের এক প্রজ্ঞাপনে এই আদেশ জারি করা হয়। এর আগে সাবেক ডিএম‌পির কমিশনার আসাদুজ্জামান মিয়ার ব্যক্তিগত তথ্য অনলাইন ও সাংবাদিকদের কাছে যাওয়া নি‌য়ে তদন্ত শুরু হয়।

এ ঘটনায় ওই অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনারসহ একজন এসআই ও এএসআইসহ তিনজনকে অভিযুক্ত করা হয়। পরে ওই অতিরিক্ত উপকমিশনারকে সাময়িক বরখাস্ত করে রংপুর রেঞ্জে সংযুক্ত করার জন্য পুলিশ সদর দপ্তর থেকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠানো হয়েছে। এ প্রেক্ষিতেই তা‌কে চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হ‌য়ে‌ছে।


প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, জিসানুল হক (বিপি-৮৫১৪১৬৬৩৩১), অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার, সিটিএসবি অ্যান্ড প্রটেকশন বিভাগ, জিএমপি, গাজীপুর-এর বিরুদ্ধে শৃঙ্খলা পরিপন্থি কর্মকাণ্ডে জড়িত হওয়ার অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পাওয়ায় সরকারি চাকরি আইন, ২০১৮ এর ধারা ৩৯(১) এবং সরকারি কর্মচারী (শৃঙ্খলা ও আপিল) বিধিমালা, ২০১৮ এর বিধি ১২(১) অনুযায়ী অভিযুক্তকে সরকারি চাকরি হতে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা সমীচীন মর্মে বিবেচিত হওয়ায় তাকে সরকারি সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হলো।


এতে আরও বলা হয়েছে, তিনি বাংলাদেশ সার্ভিস রুল (বি.এস.আর) পার্ট-১, বিধি-৭১ মোতাবেক খোরপোষ ভাতা প্রাপ্য হবেন; এবং ০৩। জনস্বার্থে জারিকৃত এ আদেশ অবিলম্বে কার্যকর হবে।


এর আগে, ১৯ জুন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগে জিসানুল হককে সাময়িক বরখাস্ত করার সুপারিশ করে একটি চিঠি দেয় পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স। এতে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করা হয়।


আরও খবর



মাটিরাঙ্গায় ৮০ জন নারী প্রশিক্ষণার্থীদের মাঝে ল্যাপটপ বিতরণ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৪৯জন দেখেছেন

Image

জসীম উদ্দিন জয়নাল,পার্বত্যাঞ্চল প্রতিনিধি:তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তর এর হার পাওয়ার প্রকল্পের খাগড়াছড়ি জেলার মাটিরাঙ্গায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষথেকে  ৮০ জন প্রশিক্ষণার্থী নারী কে বিনামূল্যে একটি করে  ল্যাপটপ প্রদান করা হয়েছে।

সোমবার (১৫ জুলাই) সকালের দিকে মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদের অডিটোরিয়ামে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তর এর হার পাওয়ার প্রকল্পের বাস্তবায়নে   উপজেলা প্রশাসনের সার্বিক সহযোগিতায় ৮০ জন নারী প্রশিক্ষণার্থীদের মাঝে ৫মাস ব্যাপি প্রশিক্ষণ শেষে  ল্যাপটপ বিতরণ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার ডেজী চত্রুবর্তী। 

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো.আবুল কাশেম ভূইঁয়া।

এসময় মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদের ভাইস-চেয়ারম্যান মো.আলী হোসেন, মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান আমেনা বেগম, মাটিরাঙ্গা উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মো. ওবায়দুল হক,মাটিরাঙ্গা উপজেলা আ,লীগের সাধারন সম্পাদক সুবাস চাকমা, মাটিরাঙ্গা উপজেলা তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তর এর সহকারী প্রোগ্রামার রাজীব রায় চৌধুরী  উপস্থিত ছিলেন।

সভাপতি,র বক্তব্যে মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার ডেজী চত্রুবর্তী বলেন, প্রযুক্তির সহায়তা নারীর ক্ষমতায়ন নিশ্চিত করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষথেকে  ৮০ জন প্রশিক্ষর্ণার্থী নারীর মাঝে একটি করে  ল্যাপটপ বিতরণ করা হয়েছে জানিয়ে তিনি আরো বলেন, বর্তমান সরকারের ভিশন ২০৪১ এবং স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয় নিয়ে প্রযুক্তির সহায়তায় নারীর ক্ষমতায়ন কার্যক্রমের অংশ হিসেবে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তর দেশব্যাপী নারীদেরকে তথ্য প্রযুক্তি ও ফ্রিল্যান্সিংসহ উদ্ভাবনীমূলক কর্মক্ষেত্রের ব্যাপ্তি ঘটাতে প্রশিক্ষণ ও ল্যাপটপ বিতরণ করছে।

আলোচনা সভা শেষে প্রধান অতিথি মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো.আবুল কাশেম ভূইঁয়া ও অনুষ্ঠানের সভাপতি মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার ডেজী চত্রুবর্তী ৮০জন নারী প্রশিক্ষণার্থীর মাঝে একটি করে ল্যাফটপ তুলেদেন।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



দুর্নীতির বিরুদ্ধে অবস্থানের কারণেই আমাকে হত্যার পরিকল্পনা: ব্যারিস্টার সুমন

প্রকাশিত:রবিবার ৩০ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ১৩৭জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়ার কারণেই আমাকে হত্যার পরিকল্পনা করা হয়েছে, বলেছেন হবিগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার সায়েদুল হক সুমন। ‘অজ্ঞাতনামা একটি শক্তিশালী মহল’ আমাকে হত্যার জন্য মাঠে নেমেছে এমন তথ্য পাওয়ার পর থানায় জিডি করেছি।

শনিবার (২৯ জুন) দিবাগত রাত ১২টার দিকে সংবাদমাধ্যমকে দেয়া সাক্ষাৎকারে এসব কথা বলেন ব্যারিস্টার সুমন।এর আগে, শনিবার রাতে রাজধানীর শেরেবাংলা নগর থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন ব্যারিস্টার সুমন।

জিডিতে তিনি উল্লেখ করেন, বৃহস্পতিবার (২৮ জুন) দিবাগত রাত ২টার দিকে চুনারুঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তাকে সরকারি মোবাইল থেকে হোয়াটসঅ্যাপে ফোন করেন। ফোনে ওসি জানান, তাকে হত্যা করতে অজ্ঞাতনামা একটি শক্তিশালী মহল তিনদিন আগে একটি টিম নিয়ে মাঠে নেমেছে। এ সময় পুলিশের ওই কর্মকর্তা সুমনকে সাবধানে চলাচল ও রাতে বের না হওয়ার অনুরোধ করেন। জিডিতে এ নিয়ে মারাত্মক নিরাপত্তাহীনতায় থাকার কথাও উল্লেখ করেছেন সুমন।

পরে ব্যারিস্টার সুমন জানান, একজন অজ্ঞাতনামা ব্যক্তি চুনারুঘাট থানার ওসিকে ফোন দিয়ে তাকে হত্যার পরিকল্পনা করা হয়েছে বলে জানায়। পরে ওই অজ্ঞাতনামা ব্যক্তির সঙ্গে কথাও বলেন তিনি। অজ্ঞাতনাম ব্যক্তি সুমনকে জানান, তাকে হত্যায় একটি গ্রুপকে কন্ট্রাক্ট কিলিংয়ের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে এবং সেই গ্রুপটি সক্রিয়ভাবে কাজ করছে।

সুমন আরও জানান, এর আগেও তিনি অনেকবার হুমকির শিকার হয়েছেন। তবে, এবার থানার ওসির মাধ্যমে বিষয়টি জানতে পারায় তিনি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন।

সম্প্রতি দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে কড়া অবস্থান এবং সংসদে এ নিয়ে বক্তব্য রাখায় প্রভাবশালীদের কেউ তাকে হত্যা করতে চাইতে পারে বলেও জানান তিনি।


আরও খবর



হাকিমপুরী জর্দার মালিক কাউছ মিয়া মারা গেছেন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১২৮জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:সোমবার (২৪ জুন) দিবাগত রাত ১২টা ৪০ মিনিটের দিকে হাকিমপুরী জর্দার মালিক মো. কাউছ মিয়া (৯৪) আর নেই (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।রাজধানীর আজগর আলী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন।

মঙ্গলবার সকালে তার মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করেছেন চাঁদপুর সদর উপজেলা রাজরাজেশ্বর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হযরত আলী বেপারী। মৃত্যুকালে স্ত্রী, ৮ ছেলে ও ৮ মেয়ে রেখে গেছেন কাউছ মিয়া।

নিহতের ছেলে জাহাঙ্গীর মিয়া বলেন, আব্বা বার্ধক্যের কারণে অসুস্থ হয়ে পড়েন। সম্প্রতি সিঙ্গাপুর মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে চিকিৎসার পর দেশে আনা হয়। পুরান ঢাকার বাসভবনে শয্যাশায়ী ছিলেন। শনিবার বিকেলে আব্বার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে আজগর আলী হাসপাতালে নেওয়া হয়। দুদিন চিকিৎসাধীন থাকার পর আল্লাহর ডাকে সাড়া দিয়ে দুনিয়া থেকে চির বিদায় নেন।

মঙ্গলবার বাদ যোহর আরমানী টোলা মাঠে মরহুমের নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। পরে তাকে আজিমপুর কবরস্থানে দাফন করা হবে।

উল্লেখ্য, ২০২০-২০২১ অর্থবছরের বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তিতে মুজিববর্ষে জাতীয় পর্যায়ে সেরা করদাতাকে সম্মাননা প্রদান কার্যক্রমটি অন্তর্ভুক্ত করা হয়। হাজি মো. কাউছ মিয়া ১৯৩১ সালের ২৬ আগস্ট চাঁদপুর সদর উপজেলার রাজরাজেশ্বর ইউনিয়নের জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা আব্বাস আলী মিয়া ও মা ফাতেমা খাতুন।

কিশোর বয়সেই তিনি চাঁদপুর শহরের ব্যবসায়ী হিসেবে পেশাগত জীবন শুরু করেন। এ সময় তিনি ১৮টি ব্র্যান্ডের বিস্কুট, সাবান ও সিগারেটের এজেন্ট হন। ২০ বছর চাঁদপুরে ব্যবসা করার পর তিনি ১৯৭০ সালে নারায়ণগঞ্জে ব্যবসা শুরু করেন। তিনি ৪০টির বেশি ব্যবসার সঙ্গে জড়িত।


আরও খবর