Logo
আজঃ সোমবার ২৪ জুন 20২৪
শিরোনাম

আত্রাইয়ে নির্বাচনী সহিংসতায় আহত-৪ আটক-৮

প্রকাশিত:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১৩২জন দেখেছেন

Image

নাজমুল হক নাহিদ, আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি: ৩য় ধাপে আগামী ২৯মে অনুষ্ঠিত হবে নওগাঁর আত্রাই উপজেলা পরিষদ নির্বাচন। ইতিমধ্যেই জমে উঠেছে প্রার্থীদের নির্বাচনী কার্যক্রম। এমন জমজমাট নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণার মধ্যেই আত্রাইয়ে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে কৈ মাছ ও কাপ পিরিচ প্রতীকের কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে নির্বাচনী সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয় পক্ষের ৪জন আহত হয়েছে। এঘটনায় মামলা রজু করে আত্রাই থানা পুলিশ ৮জনকে আটক করে নওগাঁ জেল হাজতে পাঠিয়েছে। 

আহতরা হলো উপজেলার দীঘা গ্রামের শহিদুল ইসলাম (৬২), মনিরুজ্জামান রনি (৩৮), জগদিসপুর গ্রামের জিহাদ (২২) এবং সাহেবগঞ্জ গ্রামের কামনা আক্তার (২৮)। পরে উন্নত চিকিসার জন্য শহীদুল ইসলাম শহীদ ও মুনিরুজ্জামান রনিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। এমন নেক্কার জনক ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত করে জড়িতদের বিচারের দাবি জানান। আটককৃত রাব্বি হোসেন, শহীদ হোসেন, আশিক হোসেন, আশরাফুল ইসলাম, রফিক হোসেন, মোজাফ্ফর হোসেন, হাফিজ ও শহীদকে ২৫মে শনিবার নওগাঁ জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে শনিবার দুপুরে উপজেলার নিজ কার্যালয়ে চেয়ারম্যান প্রার্থী এবাদুর রহমান সংবাদ সম্মেলনে করেছেন। সংবাদ সম্মেলনে এবাদুর রহমানের মুখপাত্র বলেন শুক্রবার রাত ৮টার দিকে উপজেলার জয়সারা আব্বাসের মোড়ে তার ভাই ও কর্মী সমর্থকরা নির্বাচনের প্রচারণা চালাচ্ছিলেন। এসময় প্রতিদ্বন্দ্বী কাপ পিরিচের প্রার্থী মমতাজ বেগমের ছেলের নেতৃত্বে ১০থেকে ১৫জন সন্ত্রাসীর একটি দল দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়। এসময় প্রার্থীর ভাই শহীদুল ইসলাম শহীদ ও মুনিরুজ্জামান রনি ৪জনকে হত্যার উদ্দেশ্যে মারপিট করলে তারা গুরুত্বর আহত হয়।

মামলা ও প্রত্যক্ষদশী সূত্রে জানা যায়, গত শুক্রবার (২৪মে) দিবাগত রাতে উপজেলার জয়সাড়া গ্রামে কৈ মাছ ও কাপ পিরিচ প্রতীকের কর্মী-সমর্থকের মধ্যে বাক বিতন্ডার এক পর্যায়ে ধাক্কাধাক্কি শুরু হয়। এতে কৈ মাছ প্রতীকের ছোট ভাই শহিদুল ইসলাম ও ভাতিজা মনিরুজ্জামান রনি এবং সমর্থক জিহাদ আহত হন। একই ঘটনায় কাপ পিরিচ প্রতীকের বৌমা কামনা আক্তারও আহত হন। আহতরা আত্রাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা নেন। 

আত্রাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত ডাক্তার লুৎফা খাতুন জানান, শুক্রবার দিবাগত রাত ১টায় ৪জন সামান্য জখম হয়ে হাসপাতালে আসলে তাদের চিকিৎসা প্রদান করা হয়। এদিকে দিঘা গ্রামের সাজেদুর রহমান বাদী হয়ে রাত সাড়ে ১২টায় থানায় মামলা দায়ের করেন। এদিকে রাত ১১টার সময় ঘটনার স্থানে কৈ মাছ প্রতীকের প্রার্থীর ভাই ও ভাকিজা উপস্থিত থাকায় নির্বাচনী আইন লঙ্ঘন করেছেন মর্মে সচেতন ভোটারেরা অভিযোগ করেন।

কাপ পিরিচ প্রতীকের প্রার্থী মমতাজ বেগম জানান, কৈ মাছ প্রতীকের প্রার্থীর ভাই ও ভাতিজা আমার ভোটারকে টাকা দিয়ে কেনার চেষ্টা করছে এমন খবর পেয়ে আমরা সেখানে গেলে তারা আমাদের উপর চড়াও হয়।

আত্রাই থানার তদন্ত ওসি লুৎফর রহমান বলেন, সাদা রংয়ের কার গাড়ীতে করে মানুষ অপহরণ করে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে থানার সামনে চেকপোষ্ট বসিয়ে কার গাড়ীসহ ৮ জনকে থানায় নিয়ে আসা হয়। তবে গাড়ীতে কোন অপহরণকারী পাওয়া যায়নি। পরে সাজেদুর রহমান বাদি হয়ে নির্বাচনী কাজে বাধা ও মারধরের অভিযোগ করলে তাদের আটক দেখানো হয়।


আরও খবর



রৌমারীতে স্মার্ট ভুমিসেবা সপ্তাহ উদ্বোধন

প্রকাশিত:রবিবার ০৯ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৭৫জন দেখেছেন

Image

মাজহারুল ইসলাম,রৌমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি:স্মার্ট ভুমিসেবা, স্মাট নাগরিক প্রতিপাদ্যের উপর রৌমারীতে ভুমিসেবা সপ্তাহের শুভউদ্বোধন করা হয়েছে। ৮ জুন শনিবার সকাল ১১ টায় ফিতা কেটে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করা হয়। 

রৌমারী উপজেলা ভুমি অফিস আয়োজিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, রৌমারী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম শালু। উপজেলা ভুমি অফিস কার্যালয়ের সামনে, উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাহিদ হাসান খানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

উপজেলা একাডেমিক সুপারভাইজার মুক্তার হোসেনের সঞ্চলানায় সভায় উপজেলা কমিশনার ভুমি আশিফ উদ্দিন মিয়ার শুভেচ্ছা বক্তব্যের পর অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, অফিসার ইনচার্জ তদন্ত মোশাহেদ হোসেন, শৌলমারী ইউনিয়ন ভুমি কর্মকর্তা রুহুল্্যাহ, কৃষক মজনু মিয়া, প্রভাষক মোশারফ হোসেন, নির্বাচন অফিসার এমদাদুল হক, সাংবাদিক শওকত আলী মন্ডল, সাংবাদিক এসএম মমিন, উপজেলা ভাইচ চেয়ারম্যান সামসুল দোহা, মহিলা ভাইচ চেয়ারম্যান মাহমুদা আক্তার স্মৃতি। এ সময় স্কুলের শিক্ষার্থী, গণমাধ্যমকর্মী, ইউনিয়ন ভুমি কর্মকর্তা ও গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ। 

তবে স্মার্ট ভুমিসেবা উপজেলার কৃষকদের নিয়ে আলোচনা সভা করার কথা থাকলেও সভায় কৃষকদেরকে ডাকা হয়নি। কিভাবে স্মার্ট ভুমিসেবা ভুমি মালিকগণ পাবে এবং সমস্যা হবে না, সে জন্য ভুমি মালিকদের আলোচনার মাধ্যমে জানিয়ে দেয়ার প্রয়োজন বলে বক্তব্যের মাধ্যমে উঠে আসে।

উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বলেন, আমাদের অঞ্চল দরিদ্র অঞ্চল। চরাঞ্চল ও নদী ভাঙ্গন এলাকা। এখানকার মানুষ খুব অসহায়। জানা গেছে, ভুমিসেবা পেতে হয়রানি হতে হয়। আমি ইউনিয়ন ভুমি কর্মকর্তাদেরকে অনুরোধ করে বলতে চাই। ভুমি মালিকরা যেন সেবা নিতে এসে হয়রানির শিকার না হয়। ভুমি মালিকরা যাতে হয়রানির শিকার না হয় সে সরকার বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা করে দিয়েছেন। আপনারা শুধু তাদেরকে সুন্দর ভাবে বুঝিয়ে দিয়ে কাজ করে দিবেন।



আরও খবর



কৃষ্ণচূড়ার আগুনে,লাগে রঙ ফাগুনে

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ৩০ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১৪১জন দেখেছেন

Image

বিনোদন ডেস্ক:ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা পরীমণি।কাজের ফাঁকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও তার আনাগোনা রয়েছে বেশ। ছেলেকে নিয়ে কিংবা প্রকৃতির মাঝে হারিয়ে যেতে দেখা যায় পরীমণিকে। এবার কৃষ্ণচূড়ার মাঝে তাকে দেখা গেছে।

মঙ্গলবার (২৮ মে) নিজের ফেসবুকে বেশ কিছু ছবি পোস্ট করেছেন পরীমণি। আর ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘কৃষ্ণচূড়ার আগুনে, লাগে রঙ ফাগুনে এই মনে, এই বনে।

ছবিতে দেখা যায়, খোঁপায় কাঠগোলাপ, কানে কৃষ্ণচূড়া; নীল শাড়িতে পাহাড়ি নারীদের সাজে পরীমণি। চোখ বন্ধ করে নাক গুঁজে রেখেছেন কৃষ্ণচূড়ায়। দৃশ্যত লাল কৃষ্ণচূড়ার স্পর্শে রীতিমতো আগুনে জ্বলে উঠেছেন এই নায়িকা; ছড়িয়ে দিয়েছেন সৌন্দর্যের মুগ্ধতা।

ছবিটি সামাজিকমাধ্যমে শেয়ার করার পর ভক্তরা সেখানে তার রূপের প্রশংসা করতে শুরু করেন। কেউ কেউ লিখেছেন, ‘এত্ত মানিয়েছে, প্রকৃতির মাঝে মিশে গেছেন।’ কেউ লিখেছেন, ‘ফুলের মতোই সুন্দর তুমি। কারো মতে, পরীমণির ছোঁয়ায় কৃষ্ণচূড়াগুলো ধন্য

উল্লেখ্য, বর্তমানে পরীমণি ব্যস্ত রয়েছেন ওয়েব সিরিজ ‘রঙিলা কিতাব’-এর শুটিংয়ে। সিরিজটি নির্মাণ করছেন ‘দেবী’খ্যাত নির্মাতা অনম বিশ্বাস, যেখানে পরীমণিকে দেখা যাবে সুপ্তি নামের একটি চরিত্রে।


আরও খবর



কুয়েতে ভবনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, নিহত ৩৫

প্রকাশিত:বুধবার ১২ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৯৯জন দেখেছেন

Image

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:কুয়েতের দক্ষিণাঞ্চলে একটি ভবনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে কমপক্ষে ৩৫ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও অনেক মানুষ।

বুধবার (১২ জুন) দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় মানগাফ শহরে এই অগ্নিকাণ্ড ও হতাহতের ঘটনা ঘটে। দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাতে এ খবর জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

প্রতিবেদনে বলা হয়, আহতদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা গুরুতর। তাদের নিকটবর্তী বিভিন্ন হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

কুয়েতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ভবনে অগ্নিকাণ্ডে আহতদের যথাযথ চিকিৎসা সেবা দেওয়ার জন্য মেডিকেল দলগুলো তাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা করছে।

এছাড়া অগ্নিকাণ্ডে আহতদের যথাযথ চিকিৎসা সেবা দেওয়ার জন্য মেডিকেল দলগুলো তাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা চালাচ্ছে বলেও মন্ত্রণালয় আশ্বস্ত করেছে।


আরও খবর



আমরা কখনোই বলিনি এমপি আনার চোরাচালানের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১১ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৭১জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনার চোরাচালানের সঙ্গে যুক্ত ছিল তা আমরা কখনোই বলিনি,বলেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।মঙ্গলবার (১১ জুন) দুপুরে রাজারবাগ পুলিশ লাইন্সে হাইওয়ে পুলিশের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

এমপি আনারের হত্যাকাণ্ডের পর বিভিন্ন সময় বলা হয়েছিল তিনি চোরাচালানের সঙ্গে যুক্ত। এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, চোরাচালানের সঙ্গে যুক্ত ছিল এমপি আনার, তা আমরা কখনোই বলিনি। আমরা সব সময় বলে আসছি এমপির ওই এলাকা সন্ত্রাসপূর্ণ একটি এলাকা। ওখানে সত্যিকারে কী হয়েছে সেটা আমাদের জানতে হবে। আমরা তদন্ত করছি, তদন্তের পরে আপনাদের সব কিছু জানাব।

সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনারের মেয়ে ডরিন সন্দেহভাজনদের নাম বলেছে। কাদের নাম বলেছেন তিনি? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, যখন তদন্ত চলে তখন আমাদের মন্ত্রী, আইজিপি কিংবা তদন্তকারী কর্মকর্তার পক্ষ থেকে তদন্ত না করে কোনো কিছু বলা সম্ভব না। আমরা মনে করি তদন্ত শেষ হলে এগুলো নিয়ে কথা বলব।

পুলিশের গুলিতে পুলিশ সদস্য নিহতের ঘটনায় পুলিশ সদস্যদের কাউন্সেলিংয়ের বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, পুলিশের ট্রেনিংয়ের সময় মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে বিস্তারিতভাবে কয়েকদিন ট্রেনিং দেওয়া হয়। যাতে মেন্টাল স্ট্রেসটা তাদের কম থাকে। গুলিতে পুলিশ সদস্য নিহতের ঘটনার কারণ ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা কী হবে, সেটি নিয়ে আইজিপি রিসার্চ করছেন।


আরও খবর



আক্কেলপুরে মুক্তিযোদ্ধা গেজেট বাতিল চেয়ে সংবাদ সম্মেলন ও প্রতিবাদ সমাবেশ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১১ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৬৫জন দেখেছেন

Image

নিশাত আনজুমান, আক্কেলপুর(জয়পুরহাট) প্রতিনিধি:জয়পুরহাটের আক্কেলপুরে রায়কালী ইউনিয়নের আমির উদ্দীনকে অ-মুক্তিযোদ্ধা দাবী করে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল কর্তৃক তাকে মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে গেজেট প্রদানের প্রতিবাদে ও গেজেট বাতিল চেয়ে সংবাদ সম্মেলন ও প্রতিবাদ সমাবেশ হয়েছে। সোমবার বেলা ১১ টায় রায়কালী ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা সংসদের  আয়োজনে এই সংবাদ সম্মেলন হয়েছে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন জয়পুরহাট জেলা ইউনিট কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা আমজাদ হোসেন, উপজেলা বর্তমান দায়িত্বপ্রাপ্ত কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা নবীবুর রহমান, রেলওয়ে মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ইউনিট কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা আব্দুল বারি, রায়কালী ইউনিয়ন কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা শামছুল আজম, যুদ্ধকালীন কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা আজাদ আশাদুজ্জামান সহ আরো অনেক বীরমুক্তিযোদ্ধা ও তাদের পরিবারের সদস্যরা। এসময় লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন রায়কালী ইউনিয়ন কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা শামছুল আজম।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, আমির উদ্দীনের বিরুদ্ধে ২০১৭ সালে উপজেলা যাচাই-বাছাই কমিটির নিকট আমরা একটি অভিযোগ করি, সেই কমিটিতে আমির উদ্দীন কোন স্বাক্ষী ও কাগজপত্র দেখাতে পারেনি। সেই সময় তাকে বাতিল বলে গণ্য করা হয়। পরবর্তীতে সে যোগসাযোজ করে জা,মু,কা (জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল) থেকে গেজেট পাশ করে নিয়ে আসে। তার গেজেট বাতিলের জন্য আমরা জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের মহাপরিচালক বরাবর ও আক্কেলপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর লিখিতও দিয়েছিলাম। আসলে সে কোন প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা নয়, তিনি বাংলাদেশের অভ্যন্তরে বা ভারতে কোন ক্যাম্পেই ভর্তি হননি। আমরা রায়কালী ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সকলেই চাই অবিলম্বে তার এই গেজেটটি বাতিল করা হোক।  

সংবাদ সম্মেলন শেষে বীর মুক্তিযোদ্ধারা রায়কালী ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা সংসদের  সামনে আমির উদ্দীনের গেজেট বাতিলের জন্য স্লোগান দিয়ে মানববন্ধন ও র‌্যালি করেছেন।
উপজেলার বর্তমান দায়িত্বপ্রাপ্ত কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা নবীবুর রহমান বলেন, তিনি কোন যুদ্ধেই অংশগ্রহণ করেননি। তিনি অপচেষ্টার মাধ্যমে গেজেটে নাম ঢুকিয়েছেন। আমারা তার গেজেট বাতিল চাই। 

অভিযুক্ত অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক আমির উদ্দীন উপজেলার রায়কালী ইউনিয়নের চিয়ারিগ্রামের বাসিন্দা এবং ওই ইউনিয়নের ইউপি সদস্য।অভিযুক্ত আমির উদ্দীন বলেন, ১৯৭১ সালে ১৫ সেপ্টেম্বর ভারতের ত্রিমুনী ক্যাম্পে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণের জন্য ভর্তি হই এবং আমার রেজি নং: ৪১৬। সেখোন থেকে এসে আমি চিয়ারিগ্রাম, গুডুম্বা, ঢেকুঞ্চা মাঠে হানাদার বাহিনীর সাথে মুখোমুখী যুদ্ধ করি। সেই যুদ্ধ দুপচাঁচিয়া গিয়ে শেষ হয়। আমার বিরুদ্ধে করা অভিযোগ সত্য নয়। আমার কাছে এক মুক্তিযোদ্ধা ৫ লক্ষ টাকা দাবী করেছিল, সেই টাকা না দেওয়ায় তারা একত্রিত হয়ে আমার বিরুদ্ধে আভিযোগ করছে।

আরও খবর