Logo
আজঃ বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম
নিলয় কোটা আন্দোলনকারীদের পক্ষ নিয়ে কী বললেন স্থগিত ১৮ জুলাইয়ের এইচএসসি পরীক্ষা দেশের সব স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা তিতাসের অভিযানে নারায়ণগঞ্জের ২ শিল্প কারখানার অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন হিলি দিয়ে কাঁচা মরিচ আমদানি বাড়ায় বন্দরের পাইকারী বাজারে কেজিতে দাম কমেছে ৩০ টাকা জয়পুরহাটে ডাকাতির পর প্রতুল হত্যা মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন রিয়েলমি সার্ভিস ডে: ফোন রিপেয়ারে খরচ বাঁচান ৬০% পর্যন্ত, উপভোগ করুন ফ্রি সার্ভিস সুনামগঞ্জে ইয়াবাসহ ২জন গ্রেফতার: কোটিপতি সোর্স ও গডফাদার অধরা কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে ৩ দিনে ৩ খুন, আইনশৃংখলার অবনতি জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন তানজিন তিশা!

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৬ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৪০৬জন দেখেছেন

Image

বিনোদন ডেস্ক:দেশের জনপ্রিয় অভিনেত্রী তানজিন তিশা আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন। দেশের একটি গণমাধ্যমের দাবি, বুধবার (১৫ নভেম্বর) মধ্যরাতে রাজধানীর রাজারবাগে নিজ বাসায় ঘুমের ওষুধ খেয়ে আত্মঘাতী হওয়ার চেষ্টা করেন তিনি।

জানা গেছে, ফারহানের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে তার। তবে সাম্প্রতিক সময়ে তাদের মধ্যে মনোমালিন্য তৈরি হয়। এর জেরে ফারহানের উত্তরার বাসায় যান তিশা। সেখানে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। তারপর বাসায় ফিরে আত্মহননের চেষ্টা করেন এ অভিনেত্রী।

এরপর তিশাকে ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা (স্টমাক ওয়াশ) শেষে পান্থপথের একটি হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

খবরটি জানতে একাধিকবার তিশার মোবাইল ফোনে কল করা হয়। খুদে বার্তা পাঠানো হয়, কিন্তু তিনি কোনো প্রতিক্রিয়া দেখাননি তিশা।কিছু সময় পর নম্বর বন্ধ পাওয়া যায়।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ সূত্রে খবর প্রতিদিন ২৪ নিশ্চিত হয়েছে, গুরুতর অবস্থায় রাতে তিশাকে সেখানে নেওয়া হয়েছিল। তানজিন তিশা আপাতত বিপদমুক্ত।

অভিনেত্রী হুমায়রা হিমু আত্মহত্যার পর তিশা গণমাধ্যমকে জানিয়েছিলেন, মিডিয়ার মানুষের মধ্যে আত্মহত্যার প্রবণতা বেশি এটা ভাবা ভুল। অথচ এবার তিনিই আত্মহত্যার চেষ্টা করলেন।


আরও খবর



ওবায়দুল কাদের শিক্ষক প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠক শেষে যা বললেন

প্রকাশিত:শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ৬৯জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:সর্জনীন পেনশন স্কিম ‘প্রত্যয়’ নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলনরত শিক্ষকদের একটি প্রতিনিধি দল আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে বৈঠক করেছেন ।

শনিবার (১৩ জুলাই) বেলা ১১টায় ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয় বৈঠক শুরু হয়। দুপুর ১টায় বৈঠকটি শেষ হয়।

বৈঠক শেষে ওবায়দুল কাদের বলেন, কর্মবিরতির বিষয়ে সাংগঠনিকভাবে আলোচনার পর শিক্ষকরা তাদের সিদ্ধান্ত জানাবেন।

সর্বজনীন পেনশনের ‘প্রত্যয়’ স্কিমের কার্যকারিতা ২০২৫ সালের ১ জুলাই থেকে শুরু হবে। এ বিষয়ে ২০২৪ সালে যে তথ্য দেওয়া হয়েছিল তা সঠিক নয়। এটা তাদের পরিষ্কারভাবে বলেছি।

শিক্ষকদের সুপার গ্রেড প্রদানের বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের মর্যাদা ও লিখিত দাবিনামা সরকারের উচ্চ পর্যায়ে প্রধানমন্ত্রীর সমীপে উত্থাপন করবো। পরবর্তী সিদ্ধান্ত আমরা আলাপ করে নেব। আলাপ আলোচনা করে আশা করি সমাধান আসবে।

শিক্ষকদের কর্মবিরতি প্রত্যাহার করার অনুরোধ করেছেন বলেও জানান ওবায়দুল কাদের।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির অপসারণ দাবীতে মানববন্ধন

প্রকাশিত:শনিবার ২৯ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ১১১জন দেখেছেন

Image

এম এম হারুন আল রশীদ হীরা; নওগাঁ:নওগাঁর মহাদেবপুরে মালাহার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে নিয়ম বহির্ভুতভাবে মো. আহসান হাবীবকে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি করে কমিটি গঠন করায় তাকে অপসারণের দাবীতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে বিদ্যালয় সংলগ্ন রাস্তায় ঘন্টাব্যাপী এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন শিক্ষার্থী অভিভাবকসহ এলাকাবাসী।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, প্রক্রিয়াধীন সভাপতি মো. আহসান হাবীব একজন দুশ্চরিত্রবান লোক। তার নিজের স্ত্রী থাকা সত্বেও স্ত্রীর আপন বোনের সাথে পরকীয়ায় লিপ্ত হওয়ার বিষয়টি জানাজানি হলে তাকেও বিয়ে করতে বাধ্য হন। বর্তমানে দুই বোনকে নিয়েই সংসার করছেন তিনি। যার কুনজর থেকে নিজের স্ত্রীর আপন বোন রক্ষা পায়নি তিনি সভাপতি থাকলে এই বিদ্যালয়ের কোমলমতি শিক্ষার্থীরা কতটুকু নিরাপদ থাকবে? বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি গঠন নীতিমালার ১৬ নং ক্রমিকের গ ধারায় স্পষ্ট উল্লেখ আছে “সংশ্লিষ্ট বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের স্বার্থ পরিপন্থী বা উহার সুনাম নষ্ট হয় এইরুপ কোন কর্মকান্ডে অংশগ্রহণ করেন বা কোনভাবে উহাতে সহায়তা করেন” এমন কোন ব্যক্তি সভাপতি হওয়ার বা থাকার ক্ষেত্রে অযোগ্য। 

তারা আরো বলেন, একটি স্বার্থানেষী মহল নিজেদের স্বার্থ উদ্ধারের জন্য বিভিন্ন দপ্তরে ভুল বুঝিয়ে অসত্য তথ্য উপস্থাপন করে একজন চরিত্রহীন ব্যক্তিকে সভাপতি করার পাঁয়তারা চালিয়ে আসছে। তাই এমন অসৎ চরিত্রের মানুষকে সভাপতির পদ থেকে অপসারণ করে সৎ, যোগ্য ও আদর্শবান ব্যক্তিকে সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব দেয়ার জন্য এমপি মহোদয় ও মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ডের বিদ্যালয় পরিদর্শক মহোদয়ের আশু দৃষ্টি কামনা করেছেন অত্র বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও ম্যানেজিং কমিটির সদস্যবৃন্দ।

উক্ত মানববন্ধনে বক্তব্য দেন, সাবেক প্রধান শিক্ষক আলহাজ্ব গিয়াস উদ্দীন, মুক্তিযোদ্ধা লিয়াকত আলী, রনজিৎ মাষ্টার, মো. রুহুল আমিন, বিদ্যালয়ের অভিভাবক, আবদুল হাই,মোকলেছুর রহমান, এরশাদুল ইসলাম, আশরাফুল আলম, আবদুল মালেক, মো. বেলাল হোসেন, রফিকুল ইসলাম, মিনাল, তোতারাম, রঘুনাথ, অতুল, ম্যানেজিং কমিটির সদস্য ইসলাফিল আলম, চঞ্চল প্রমুখ।

এবিষয়ে জানতে চাইলে মো. আহসান হাবীব মোবাইল ফোনে এ ব্যাপারে কথা বলতে রাজী হননি। 

মালাহার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মোছা. শাহিদা খানমের মোবাইলে বার বার কল দিলেও তিনি তা রিসিভ করেননি। তাই তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

আরও খবর



ডোমারে এলাকাবাসী নিজ উদ্যোগে নির্মাণ করছে ছালে-আল জামে মসজিদ

প্রকাশিত:শনিবার ০৬ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ৯৩জন দেখেছেন

Image

আনিছুর রহমান মানিক, ডোমার (নীলফামারী) প্রতিনিধি:নীলফামারীর ডোমারে পূর্ব চিকনমাটি নয়া পল্টনপাড়া ছালে-আল জামে মসজিদের দ্বিতল ভবনের নির্মাণ কাজ শুরু করেছে এলাকাবাসী।

শুক্রবার সকাল থেকে শুরু করে বিকাল পর্যন্ত এলাকার জামাত বাসী নিজ উদ্যোগে স্বেচ্ছাশ্রমে নির্মাণ কাজের সহায়তা করেন।

জানাযায়, ডোমার সদর ইউনিয়নের সোনারায় সড়কে অবস্থিত পূর্ব চিকনমাটি নয়া পল্টনপাড়া ছালে-আল জামে মসজিদটি ২০১২ সালে টিন সেট দিয়ে নির্মাণ করা হয়। সেখানে পৌরসভা, হরিণচড়া এবং সদর ইউনিয়নের মধ্যস্থল হওয়ায় অবহেলিত অবস্থায় পড়ে থাকে। জরার্জিন্ন ওজুখানা এবং টিনদিয়ে ঘেরা মসজিদে মুসুল্লিদের নামাজ আাদায় করতে অনেক কষ্ট করতে হয়। বিশেষ করে শুক্রবার জুম্মার দিনে পর্যপ্ত জায়গা না হওয়ায় গাদগাদি করে বারান্দায় নামাজ আদায় করেন মুসুল্লিরা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যাক্তির সহযোগিতায় পাশের্^ জমি ক্রয় করে মসজিদের নামে ওয়াক্ফ করে দেয়। চলতি বছরে এলাকাবাসী নিজ উদ্যোগে টাকা পয়সা দান করে দ্বিতল ভবনের নির্মাণ কাজ শুরু করে। এর জন্য জামাত বাসী নিজেরাই স্বেচ্ছাশ্রমে সামর্থ্য মতে ধিরে ধিরে কাজ করে যাচ্ছে। উক্ত মসজিদের সভাপতি আবু তালেব জানান, পৌরসভা, হরিণচড়া এবং সদর ইউনিয়নের মধ্যস্থল হওয়ায় সরকারী বে-সরকারী অনুদান থেকে তারা বঞ্চিত। আল্লাহর ঘড় মসজিদটি নির্মাণে দেশে বিদেশের স্ব-হৃদয়বান ও দানবীর ব্যক্তিদের কাছে- ০১৭৬৫-৯০৯-৪৬৩ বিকাশ অথবা নগদ নম্বরে সহযোগিতা বা যোগাযোগের অনুরোধ করেন তিনি।


আরও খবর



দুর্নীতির মিথ্যা মামলা থেকে অব্যাহতি পেলেন তিতাস গ্যাসের সিবিএ নেতা জহিরুল ইসলাম

প্রকাশিত:বুধবার ১০ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ৪৩৪জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ তিনটি মামলায় আনীত অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় সকল জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে ষড়যন্ত্রমূলক দুর্নীতির মিথ্যা মামলা থেকে অব্যাহতি পেয়েছেন তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন এন্ড ডিস্ট্রিবিউশন পিএল সি,র কর্মচারী ইউনিয়ন (সিবিএ) জোবিঅ- সোনারগাঁও আঞ্চলিক অফিসের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম। গত ৭ জুলাই রোববার কুমিল্লার বিশেষ জজ আদালতের বিচারক বেগম শামসুন্নাহার এ রায় দেন। সোমবার দুদক কুমিল্লা সমন্বিত কার্যালয়ের উপপরিচালক ফজলুল হক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।দুদক সূত্রে জানা যায়, অফিস সহায়ক জহিরুল ইসলামের বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে ২০২১ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি দুদক কুমিল্লা কার্যালয় থেকে ৩টি মামলা করা হয়। এসব মামলার কোনোটিতেই তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় অব্যাহতি দেওয়া হয়।ফজলুল হক আরও জানান, মামলাগুলোর দ্বিতীয় আসামি জহিরুল ইসলামকে মামলার দায় থেকে অব্যাহতি দিয়েছেন আদালত।

কুমিল্লা জেলার বুড়িচংয়ের আনন্দপুর গ্রামের আবদুল গফুর সর্দারের ছেলে জহিরুল ইসলাম দীর্ঘ বছর অত্যন্ত সুনামের সাথে তিতাস গ্যাসে চাকরি করে আসছেন। তিতাস গ্যাসের অবৈধ সংযোগের বিরুদ্ধে কর্তৃপক্ষের দেওয়া আদেশ অক্ষরে অক্ষরে পালন করতে গিয়ে তিনি তার কর্মস্থলে এবং অবৈধ গ্রাহকদের বিরাগ ভাজন হন। অভিযানের সময় প্রভাবশালীদের রক্তচক্ষুকে উপেক্ষা করেও বিভিন্ন স্থানে অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করতে সাহসী ভূমিকা রাখেন। তিতাস গ্যাসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) হারুনুর রশিদ মোল্লাহ এবং কর্মচারী ইউনিয়ন সিবিএ সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আয়েজ উদ্দিন আহমেদ কে আদর্শ মনে করেন জহিরুল ইসলাম। অভিযান পরিচালনা করতে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে যেখানেই গিয়েছেন সেখানেই কাজ করেছেন বিদ্যুৎ গতিতে, হাজার হাজার অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে ধ্বংস করেছেন। এজন্য তাকে নানাভাবে নাজেহাল করার চেষ্টা করা হয়। সর্বশেষ নামে বেনামে দুর্নীতি দমন কমিশনে চিঠি চালাচালি করে একটি মহল মিথ্যা তথ্য দিয়ে মামলায় তার নাম জড়িয়ে দেয়। এবং দেশের স্বনামধন্য পত্রিকা গুলোতে তার বিরুদ্ধে মিথ্যা তথ্য দিয়ে সংবাদ পরিবেশন করায়।তার ফলশ্রুতিতেই দুর্নীতি দমন কমিশন জহিরুল ইসলামের বিরুদ্ধে মামলাগুলো রুজ্জু করে।

তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন এন্ড ডিস্ট্রিবিউশন পিএলসি'র জোবিঅ-সোনারগাঁও আঞ্চলিক অফিসের কর্মচারী ইউনিয়ন (সিবিএ) সাধারণ সম্পাদক ডেমরা থানা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক জহিরুল ইসলাম বলেন, আমি কখনো দুর্নীতি করে দশটি টাকা ও রোজগার করিনি, কোনদিন কোম্পানির ক্ষতি করিনি, আমি যেই পদে চাকরি করি সেখান থেকে কোনভাবেই অবৈধ অর্থ উপার্জন করা সম্ভব না। দুর্নীতি দমন কমিশন এই কয়েক বছরে বিভিন্নভাবে তথ্য-উপাত্ত যাচাই-বাছাই করে আমার বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ প্রমাণ করতে পারেনি। আল্লাহর কাছে হাজার শুকরিয়া যে আমি ন্যায় বিচার পেয়েছি। 

সোমবার ৯ জুলাইদেশের সকল জাতীয় পত্রিকাগুলোতে তিতাস গ্যাসের কর্মচারী ইউনিয়নের নেতা জহিরুল ইসলামের দুর্নীতির মামলায় অব্যাহতি পাওয়ার খবরটি প্রকাশিত হয়েছে।

তবে দুর্নীতির মামলায় অব্যাহতি পাওয়ার বিষয়টিকে ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন তিতাস গ্যাসের কর্মচারী ইউনিয়নের নেতাকর্মীরা।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



মাগুরায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের মিলনমেলা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০24 | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ১১৬জন দেখেছেন

Image

স্টাফ রির্পোটার মাগুরা থেকে:মাগুরায় নানা উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়,রাজশাহী মেডিকেল ,রাজশাহী প্রকৌশলী ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের মাগুরাস্থ প্রাত্তন ও বর্তমান শিক্ষার্থীদের অংশ গ্রহনে  বুধবার দিনব্যাপী মিলনমেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় এ্যালামনাই এসোসিয়েশন মাগুরা এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে । সকালে আড্ডা,পতাকা উত্তোলন শেষে বর্ণাঢ্য র‌্যালীতে অংশ নেয় শিক্ষার্থীরা।  

র‌্যালী শেষে স্থানীয় আছাদুজ্জামান মিলনায়তনে অনুষ্ঠানে আয়োজক কমিটির আহবায়ক মোস্তাফিজুর রহমান স্বপনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন সাবেক সংসদ সদস্য এ্যাডভোকেট সাইফুজ্জামান শিখর । অনুষ্ঠানের উদ্বোধক ছিলেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য আনন্দ কুমার সাহা । বিশেষ সম্মানিত অতিথি ছিলেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সাবেক সচিব ও বাংলাদেশ পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকের চেয়ারম্যান আকরাম আল হোসেন,পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের সচিব এনায়েত করিম,সাবেক সিভিল সার্জন ডাক্তার মো: সাদুল্লাহ,কর্ণেল শরীফ উদ্দিন,ইঞ্জিনিয়ার মঞ্জুরুল ইসলাম ও এ্যাডভোকেট আহম্মদ হোসেন । 

দুপুরে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়,রাজশাহী মেডিকেল ,রাজশাহী প্রকৌশলী ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রাত্তন ও বর্তমান শিক্ষার্থীরা  স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠানে অংশ নেয় । দুপুরের খাবার শেষে বিকালে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় । 


আরও খবর