Logo
আজঃ Wednesday ০৮ December ২০২১
শিরোনাম
নৌকা পরাজিত স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান হলো তৃতীয় লিঙ্গের ঋতু! তৃতীয় ধাপে ইউনিয়ন নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষ, চলছে গণনা কুমিল্লায় নৌকা পেয়েও সরে দাড়ালেন বাহালুল, প্রাথমিক সদস্য না হয়েও মনোনীত নূরুল! মাতুয়াইলে সড়ক উন্নয়ন কাজের উদ্ধোধন করলেন সংসদ সদস্য কাজী মনু পলো উৎসবে মাছ ধরায় মেতেছে মানুষ, চির চেনা বাংলা গাজীপুরে ৩০ সেকেন্ডেই মা-মেয়ের জীবন শেষ করল দুই খুনি হয়নি হাফ পাসের সিদ্ধান্ত,টাস্কফোর্স গঠনের প্রস্তাব আলেম-ওলামাদের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা-ভক্তি রয়েছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রংপুরের তারাগঞ্জে ট্রাকচাপায় তিন নারী শ্রমিক নিহত কুমিল্লার তিতাস ও মেঘনা উপজেলায় ইউপি নির্বাচনে বিজয়ী যারা !
দুর্গাপূজা কেন্দ্র করে জঙ্গিরা অনলাইনে সক্রিয়

আসছে দুর্গাপূজা কেন্দ্র করে জঙ্গিরা অনলাইনে সক্রিয়: ডিএমপি কমিশনার

প্রকাশিত:Sunday ১০ October ২০২১ | হালনাগাদ:Wednesday ০৮ December ২০২১ | ১০৯জন দেখেছেন
ডেস্ক এডিটর

Image


 

ডেস্ক এডিটর :

আসছে দুর্গাপূজা উৎসব কেন্দ্র করে জঙ্গিরা অনলাইনে সক্রিয়। তারা রাতে মণ্ডপে হামলা করার পরিকল্পনার প্রচারণা চালাচ্ছে। যখন পুলিশ ও লোকজন কম থাকে, তখনই তারা হামলার পরিকল্পনা করছে। তবে কেউ তাদের পোস্ট দেখে উদ্বুদ্ধ হয়েছে, এমন কাউকে পাওয়া যায়নি। আমরা অ্যালার্ট আছি।

 

রোববার (১০ অক্টোবর) রাজধানীর ঢাকেশ্বরী মন্দিরে কেন্দ্রীয় পূজামণ্ডপের নিরাপত্তা ব্যবস্থা পরিদর্শন শেষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম এক প্রশ্নের জবাবে একথা বলেন।

 

ডিএমপি কমিশনার বলেন, শারদীয় দুর্গাপূজা কেন্দ্র করে তেমন ঝুঁকি দেখছি না। তবে আশংকার কথাও উড়িয়ে দিচ্ছি না। জঙ্গিরা এখন অনলাইনে সক্রিয়। তারা নানা ধরনের পোস্ট দিচ্ছে। তারা সেলফ রেডিকালাইজড হয়ে (লোন উলফ) হামলায় উদ্বুদ্ধ হয়েছে, অন্যকে উদ্বুদ্ধ করছে।

 

শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা মন্দিরগুলোকে সিসিটিভি ক্যামেরার আওতায় এনেছি। এছাড়াও ঢাকা শহরের বড় মন্দিরগুলোতে অতিরিক্ত সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হবে। সিসিটিভি কন্ট্রোল রুম করা হবে। ছোট মন্দিরগুলোতে পুলিশের মোবাইল টিম কাজ করবে।

এর আগে সকালে ডিএমপির বিভিন্ন ইউনিট প্রধানদের নিয়ে কমিশনার মণ্ডপে আসেন ও মণ্ডপের নিরাপত্তা ব্যবস্থা পরিদর্শন করেন। পূজা উদযাপন কমিটির লোকজনের সঙ্গে কথা বলেন।

খবর প্রতিদিন / সি.বা 


আরও খবর



কুমিল্লার তিতাস ও মেঘনা উপজেলায় ইউপি নির্বাচনে বিজয়ী যারা !

প্রকাশিত:Thursday ১১ November ২০২১ | হালনাগাদ:Wednesday ০৮ December ২০২১ | ৩১১জন দেখেছেন
ডেস্ক এডিটর

Image



বৃহস্পতিবার রাতে বেসরকারিভাবে প্রাপ্ত ফলাফল অনুযায়ী দুই উপজেলার ১২ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে জয়ি হয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থীরা।দ্বিতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে কুমিল্লার মেঘনার আটটি এবং তিতাসের নয়টি ইউনিয়নে হয়েছে ভোটগ্রহণ।

 

বৃহস্পতিবার রাতে বেসরকারিভাবে প্রাপ্ত ফলাফল অনুযায়ী দুই উপজেলার ১২ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে জয়ি হয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থীরা।অন্য ছয়টি ইউনিয়নে নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী হিসেবে নির্বাচন করা স্বতন্ত্র প্রার্থীরা।এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন কুমিল্লা জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. দুলাল তালুকদার।

 

মেঘনা উপজেলার রাধানগর ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী মজিবুর রহমান, মানিকারচরে আওয়ামী লীগের জাকির হোসেন, চালিয়াভাঙ্গায় স্বতন্ত্র প্রার্থী হুমায়ুন কবির, ভাওরখোলায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী ও স্বতন্ত্র প্রার্থী সিরাজুল ইসলাম, লুটেরচরে নৌকা প্রতীকের সানাউল্লাহ সিকদার, গোবিন্দপুরে আওয়ামী লীগের মাইনুদ্দিন মুন্সি তপন ও বড়কান্দায় স্বতন্ত্র প্রার্থী ফারুক হোসেন রিপন জয়ী হয়েছেন।

 

এ উপজেলায় বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিজয়ী হয়েছেন চন্দনপুর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ প্রার্থী আহসান উল্লা।এদিকে তিতাসের সাতানী ইউনিয়নে নৌকার প্রার্থী সামছুল হক, জগৎপুরে নৌকার প্রার্থী মজিবুর রহমান, বলরামপুরে আওয়ামী লীগের প্রার্থী নুরুন্নবী, কলাকান্দিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী ইব্রাহিম সরকার, ভিটিকান্দিতে আওয়ামী লীগ প্রার্থী বাবুল আহমেদ, নারানদিয়ায় আওয়ামী লীগ প্রার্থী আরিফুজ্জামান ভুইয়া খোকা, জিয়ারকান্দিতে আওয়ামী লীগ প্রার্থী আলী আশরাফ ও মজিদপুরে আওয়ামী লীগ প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম সরকার জয়ী হয়েছেন।এ উপজেলায় বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিজয়ী হয়েছেন সদর কড়িকান্দি ইউনিয়নের নৌকার প্রার্থী সাইফুল আলম মুরাদ।

 

-খবর প্রতিদিন/ সি.বা

নিউজ ট্যাগ: ইউপি নির্বাচন

আরও খবর



কুমিল্লায় প্রকাশ্যে শিয়াল জবাই করে মাংস বিক্রি

প্রকাশিত:Thursday ১১ November ২০২১ | হালনাগাদ:Wednesday ০৮ December ২০২১ | ৩৯৩জন দেখেছেন
Image


 

কুমিল্লার লাকসামে প্রকাশ্যে শিয়ালের মাংস বিক্রির অভিযোগ উঠেছে। বুধবার (১০ নভেম্বর) বিকেলে শহরের রাজঘাট এলাকায় এমন দৃশ্য দেখা যায়। এরপর থেকে এ সংক্রান্ত একটি ভিডিও ফেসবুকে ঘুরপাক খাচ্ছে।

 

স্থানীয় সূত্রে খবর, বুধবার সকালে লাকসাম রেললাইন এলাকায় একটি শিয়াল বিক্রি করার জন্য চট্টগ্রাম থেকে আসেন দুই যুবক। খবর পেয়ে পৌরশহরের রাজঘাট এলাকার বাসিন্দা সাইফুল, মরণ ও লিটনসহ কয়েক যুবক মিলে তাদের কাছ থেকে দেড় হাজার টাকা দিয়ে শিয়ালটি কিনে নেন। বিকেলে রাজঘাট ব্রিজ সংলগ্ন এলাকায় নিয়ে শিয়ালটি জবাই করা হয়। এজন্য স্থানীয় কসাই জিয়াকে ১৫০ টাকা দেওয়া হয়। শিয়ালটি জবাই করার দৃশ্য কেউ একজন মোবাইলে ভিডিও করে। পরে সেই ভিডিও ভাইরাল হয়।

 

ভিডিওতে দেখা যায়, সাইফুল, মরণ ও লিটনসহ কয়েকজন যুবক শিয়াল জবাই করে মাংস বিক্রির স্থানের বর্ণনা দেন। ক্রেতাদের আকৃষ্ট করতে শিয়ালের মাংসের নানা উপকারিতার কথা উল্লেখ করেন। প্রতি কেজি মাংসের দাম ১০০০ টাকা বলে জানানো হয় ভিডিওতে। খবর পেয়ে কয়েকজন সেই মাংস কিনে নেন। এরপরই শিয়ালের মাংস বিক্রেতারা সটকে পড়েন।

 

লাকসামের ইউএনও এ কে এম সাইফুল আলম বলেন, বন্যপ্রাণী জবাই করে মাংস বিক্রি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ। এ বিষয়ে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

  খবর প্রতিদিন- সি/বা

নিউজ ট্যাগ: শিয়াল জবাই

আরও খবর



বাদী হলেন আসামী জালিয়াতি মামলায় যাত্রাবাড়ীর রিপন কারাগারে

প্রকাশিত:Tuesday ০৭ December ২০২১ | হালনাগাদ:Wednesday ০৮ December ২০২১ | ৩৭জন দেখেছেন
Image


নিজস্ব প্রতিবেদক

জাল কাগজপত্র দিয়ে দোকানের মালিকানা দাবি করে ফেঁসে গেলেন বাদী নিজেই। আদালত স্বাক্ষর জাল করার অভিযোগে বাদী সেরা উদ্দিন রিপনকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। গতকাল মঙ্গলবার ঢাকার সিএমএম আদালতে এ ঘটনা ঘটে।


মামলা সূত্রে জানা যায়, রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর দনিয়া এলাকায় শরীফ টাওয়ারের একটি দোকানের মালিকানা দাবি করে ওই টাওয়ারের মালিক এম এ আজীম শরীফের বিরুদ্ধে মামলা করেন দনিয়া এলাকার সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ ও দখলদার সেরা উদ্দিন রিপন। মামলার আরজিতে তিনি শরীফ টাওয়ারের দোকানের মালিকানা দাবি করে তিণশ’ টাকার স্ট্যাম্পে লিখিত একটি চুক্তিপত্র আদালতে দাখিল করেন। আদালত মালিকের স্বাক্ষর পরীক্ষার জন্য সিআইডির কাছে পাঠায়।


ল্যাবে সেই স্বাক্ষর জাল বলে প্রমানিত হয়। গতকাল সেই প্রতিবেদন আদালতে উত্থাপিত হলে আদালত বাদী সেরা উদ্দিন রিপনকে জেল হাজতে পাঠানোর আদেশ দেন। সিআইডির প্রতিবেদনে বলা হয়, চুক্তিপত্রে শরীফ টাওয়ারের মালিক এম এ আজীম শরীফের স্বাক্ষরটি ‘স্ক্যানকৃত জাল’।আদালত সূত্রে

জানা যায়, দনিয়া এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী সেরা উদ্দিন রিপনের বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি জাল জালিয়াতির মামলা রয়েছে। এর মধ্যে চেক ডিজঅনার মামলা নং ১৪০০০/২০১৮ইং এবং জাল জালিয়াতির মামলা নং ১৬৪/২০১৯ইং উল্লেখযোগ্য।


স্থানীয় সূত্র জানায়, এক সময়ের শিবিরের ক্যাডার সেরা উদ্দিন রিপনের বিরুদ্ধে কদমতলী ও যাত্রাবাড়ী থানায় চাঁদাবাজি, দখল ও হুমকী প্রদান ও ব্ল্যাক মেইলের অভিযোগে বহু মামলা ও জিডি রয়েছে। এর মধ্যে রয়েছেÑকদমতলী থানায় জিডি নং ২৪০, তাং ০৪/০৭/ ১৭, জিডি নং ১৮৫২, তাং ২৯/১২/১৬, জিডি নং ১২৭৬, তাং ২২/০৭/১৬, জিডি নং ১৩৮৭, তাং ২৪/০৭/ ১৭, ডিসি ওয়ারী বরাবর আবেদন স্মারক নং ২৩০৫/ডিসিওয়ারী, তাং ১৮/০৬/১৭, যাত্রাবাড়ী থানায় জিডি নং ১০০৬, তাং ১৩/৩/১৮, যাত্রাবাড়ী থানার প্রসিকিউশন স্মারক নং ১৯০৬, তাং ০৩/০৪/১৮।উল্লেখযোগ্য মামলা নং ৭৫, তাং ২৮/০৫/১৭ ধারা ৩৮৫, সিআর মামলানং ৮৬, তাং ২৮/০৫/১৭, ২০ লাখ টাকার চেক ডিজঅনারের মামলা, সিএম মামলা নং ২৫/ সিআর মো: নং ৭০/২০১৮, তাং ১৪/০১/১৮।


পুলিশ প্রশাসনকে ম্যানেজ করতে সিদ্ধহস্ত রিপন শিবির থেকে এখন যুবলীগের নেতা। তার অত্যাচারে এলাকার বহু মানুষ অতিষ্ঠ। জাল কাগজপত্র তৈরী করে রিপন সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে দিনে দুপুরে সে মানুষের ফ্ল্যাট, বাড়ি, দোকান দখল করে আসছিল। তার অপকর্মে কেউ বাধা দিলে সে থানা পুলিশকে ব্যবহার করে মিথ্যা মামলা ও জিডি করে মানুষকে হয়রানি করতো।


গত ৭ অক্টোবর সে কদমতলী থানার এসআই কাছেদকে ম্যানেজ করে মিথ্যা অভিযোগে একজন সিনিয়র ক্রাইম রিপোর্টারের বিরুদ্ধে জিডি করে (নং ৪৫০)। এসআই কাছেদ কোন যাচাই ছাড়াই সেই জিডিটি আদালতে পাঠায়। 

এ নিয়ে ক্রাইম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশনের নেতারা ক্ষোভ প্রকাশ করেন। উল্লেখ্য, এর আগেও চাঁদাবাজি মামলায় রিপন বেশ কয়েকদিন জেল হাজতে ছিল।

-খবর প্রতিদিন/ সি.বা 


আরও খবর



নাসিরনগরে খেলনার প্রলোভনে শিশুকে যৌন নির্যাতনের ঘটনায় গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:Friday ০৩ December ২০২১ | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ December ২০২১ | ১০২জন দেখেছেন
Image


মোঃ আব্দুল হান্নান,

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার ভলাকূট ইউনিয়নে ৭ বছরের শিশুর সাথে যৌন নির্যাতনের ঘটনা ঘঠেছে।

ওই ঘটনায় শিশুর  মা সালেহা বেগম বাদী হয়ে নাসিরনগর থানায় একটি এজাহার দায়ের করলে। অভিযুক্ত হাকিম মিয়া (৩০)কে আটক করে পুলিশ। 

এজাহার ও ভুক্তভোগীর পরিবারের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ২৯ নভেম্বর  সাড়ে ৪ ঘটিকার সময় ভলাকূট নদীর তীরে মেলায় ঘুরতে যায় ওই শিশু। এসময় একই গ্রামের হাকিম মিয়া শিশুকে খেলনা কিনে দেয়ার কথা বলে নৌকাতে করে নদীর অপর পাড়ে নিয়ে যায়।

সেখানে নিয়ে ওই শিশুকে যৌন নির্যাতনের পর মেলাতে রেখে পালিয়ে যায় হাকিম। 

পরে শিশুটির কান্নাকাটিতে আশেপাশের লোকজন এসে শিশুটিকে বাড়িতে নিয়ে যায়। তখন ওই শিশুর বায়ু পথে রক্তক্ষরণ হলে চিকিৎসার জন্য প্রথমে নাসিরনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে জেলা সদর হাসপতালে ভর্তি করা হয়।

বর্তমানে ওই শিশু জেলা সদর হাসপতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

মামলার বাদী ও ভিকটিমের মা সালেহা বেগম বলেন,, আমার ভিকটিম  বর্তমানে হাসপতালে ভর্তি আছে।

আমাদেন বিভিন্নভাবে চাপ প্রয়োগ করা হচ্ছে।

আমরা ওই ঘটনার সুষ্ঠ বিচার চাই।

নাসিরনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ  হাবিবুল্লা সরকার বলেন,আমরা  ১ জনকে গ্রেফতার করেছি।

তার বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা হবে বলে ও জানান এ কর্মকর্তা।


-খবর প্রতিদিন/ সি.বা 


আরও খবর



মুরাদ পদত্যাগপত্রে যা লিখেছেন

প্রকাশিত:Tuesday ০৭ December ২০২১ | হালনাগাদ:Wednesday ০৮ December ২০২১ | ২৬জন দেখেছেন
Image

অশ্লীল ফোনালাপ ফাঁসের পর দেশজুড়ে সমালোচনার মুখে পড়া তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. মুরাদ হাসান পদত্যাগ করেছেন। আজ মঙ্গলবার দুপুর ১২টার পর ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে পদত্যাগপত্র পাঠিয়েছেন তিনি। বর্তমানে পদত্যাগপত্রটি মন্ত্রণালয়ের সচিবের দপ্তরে রয়েছে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা।

পদত্যাগপত্রে ডা. মো. মুরাদ হাসান কী লিখেছেন তা দৈনিক আমাদের সময়ের পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো-

প্রধানমন্ত্রীকে সালাম জানিয়ে ডা. মুরাদ হাসান পদত্যাগপত্রে লিখেছেন, ‘মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের গত ১৯ মে ২০২১ তারিখে আমাকে বাংলাদেশ সরকারের তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব প্রদান করা হয়। আমি ৭ ডিসেম্বর ২০২১ তারিখ হতে প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব হতে ব্যক্তিগত কারণে স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করতে ইচ্ছুক।

এমতাবস্থায়, আপনার নিকট বিনীত নিবেদন এই যে, আমাকে ৭ ডিসেম্বর ২০২১ তারিখ থেকে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব হতে অব্যাহতি প্রদানের লক্ষ্যে পদত্যাগপত্রটি গ্রহণে আপনার একান্ত মর্জি কামনা করছি। '

এদিকে, আজ দুপুর ১টার দিকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে এক স্ট্যাটাসে ক্ষমাও প্রার্থনা করেছেন ডা. মুরাদ হাসান। একই সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যেকোনো সিদ্ধান্ত আজীবন মেনে নেওয়ার সিদ্ধান্তের কথাও জানান তিনি। 

সম্প্রতি একটি ভার্চুয়াল টকশোতে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের মেয়ে জাইমা রহমানকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেন ডা. মুরাদ। এরপর তার সমালোচনা করেন অনেকে। শুধু তাই নয়, তার পদত্যাগেরও দাবি ওঠে।

এ ছাড়া ডা. মুরাদ হাসান ও ঢালিউডের এক চিত্রনায়িকার মধ্যকার কথোপকথনের কল রেকর্ড ফাঁস হয়। যা ইতোমধ্যে টক অব দ্য কান্ট্রিতে পরিণত হয়েছে। অডিও ক্লিপটিতে শোনা যায়, ওই নায়িকাকে তাৎক্ষণিক তার কাছে যেতে বলছেন মুরাদ। নায়িকা এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে তাকে অকথ্য ভাষায় গালাগাল ও হুমকি দেন প্রতিমন্ত্রী। এর পরই সরকারের উচ্চপর্যায়ে মুরাদ হাসানের পদত্যাগের বিষয়ে আলোচনা শুরু হয়।

-খবর প্রতিদিন/ সি.বা 


আরও খবর