Logo
আজঃ Friday ১৯ August ২০২২
শিরোনাম
রূপগঞ্জে আবাসিকের অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন ডেমরায় প্যাকেজিং কারখানায় ভয়বহ অগ্নিকান্ড রূপগঞ্জে পুলিশের ভুয়া সাব-ইন্সপেক্টর গ্রেফতার রূপগঞ্জে সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ ॥ সভা সরাইলে সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ৭৭তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠিত। নারায়ণগঞ্জে পারিবারিক কলহে স্ত্রীকে পুতা দিয়ে আঘাত করে হত্যা,,স্বামী গ্রেপ্তার রূপগঞ্জ ইউএনও’র বিদায় সংবর্ধনা নাসিরনগরে স্বামীর পরকিয়ার,বলি ননদ ভাবীর বুলেটপানে আত্মহত্যা নাসিরনগরে জাতীয় শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭ তম শাহাদত বার্ষিকী পালিত ডেমরায় জাতীয় শোক দিবসের কর্মসুচি পালিত

আড়াইহাজার-মিরসরাই অর্থনৈতিক অঞ্চলের ভূমি অধিগ্রহণের সময় বাড়ছে

প্রকাশিত:Friday ০৩ June ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ১৯ August ২০২২ | ৬৬জন দেখেছেন
Image

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার ও চট্টগ্রামের মিরসরাই অর্থনৈতিক অঞ্চলের জন্য ভূমি অধিগ্রহণ প্রকল্পের সময় ফের বাড়ছে। প্রকল্পটি জানুয়ারি ২০১৭ থেকে ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ মেয়াদে বাস্তবায়নের কথা ছিল। এরপর দফায় দফায় সময় বাড়িয়েও বাস্তবায়ন হয়নি প্রকল্পটি। এবার প্রকল্প বাস্তবায়নে পরিকল্পনা কমিশনে ৩০ জুন ২০২৩ নাগাদ সময় বাড়ানোর প্রস্তাব করেছে বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেজা)। মূলত ব্যয় সমন্বয়সহ আনুষঙ্গিক কিছু কাজ সম্পন্ন করতেই অতিরিক্ত আরও ছয় মাস সময় বাড়ানোর এ আবেদন।

প্রকল্প সংশোধনের কারণ
প্রকল্পটি মোট ৩ হাজার ১৯৫ কোটি ৮১ লাখ টাকা ব্যয়ে জানুয়ারি ২০১৭ থেকে ডিসেম্বর ২০২২ মেয়াদে বাস্তবায়নের জন্য সংশোধিত ডিপিপি (উন্নয়ন প্রকল্প প্রস্তাব) অনুমোদন হয়। দ্বিতীয় সংশোধনী প্রস্তাবে প্রকল্প ব্যয় অপরিবর্তিত রেখে আন্তঃখাত সমন্বয় ও প্রস্তাবিত নতুন অঙ্গ সংযোজনের প্রস্তাব আসে। এর মধ্যে রয়েছে পরামর্শক ব্যয়, মুদ্রণ ও বাঁধাই, যাতায়াত ব্যয়, খাল খনন, সীমানা পিলার ও অফিস সরঞ্জামাদি অন্তর্ভুক্তিসহ বাস্তবায়ন মেয়াদকাল জুন ২০২৩ পর্যন্ত অর্থাৎ আরও ছয় মাস বাড়ানোর প্রস্তাব।

jagonews24

মেয়াদ ছয় মাস বাড়ায় প্রকল্পটির কয়েকটি রাজস্ব অঙ্গের ব্যয় যেমন পরামর্শক ব্যয় খাতে ৬ কোটি, জরিপ খাতে ১ কোটি ২৩ লাখ, মুদ্রণ ও বাঁধাই খাতে ২ লাখ, সম্মানী খাতে এক লাখ, যাতায়াত ব্যয় ৫০ হাজার, আপ্যায়ন ব্যয় এক লাখ, কম্পিউটার ও আনুষঙ্গিক ব্যয় ৫০ হাজার মিলিয়ে মোট ৭ কোটি ২৮ লাখ টাকা ব্যয় বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে। অন্যদিকে যানবাহন ভাড়া বাবদ ৪ লাখ, তেল ও লুব্রিকেন্ট বাবদ এক লাখ, ফুয়েল/গ্যাস বাবদ ২ লাখ, স্ট্যাম্প ও সিল বাবদ ৫০ হাজার মিলিয়ে মোট ৭ লাখ ৫০ হাজার টাকা ব্যয় কমবে। এসব বিষয় সমন্বয় করতেই আরও ছয় মাস সময় লাগবে।

এরই মধ্যে পরিকল্পনা কমিশনের শিল্প ও শক্তি বিভাগে প্রকল্পের প্রস্তাবনা পাঠিয়েছে বেজা। বেজার প্রস্তাবনায় প্রকল্প মূল্যায়ন কমিটির সভাও অনুষ্ঠিত হয়। প্রকল্পের বর্তমান অগ্রগতি ৭২ শতাংশ। শতভাগ বাস্তবায়নের জন্য তৃতীয় দফায় আরও ছয় মাস সময় আবেদন করা হয়েছে। এ সময়ে মূলত জমির মূল্য পরিশোধ ও আনুষঙ্গিক ব্যয় সমন্বয় করা হবে।

প্রকল্প পরিচালক (যুগ্ম-সচিব) সালেহ আহমেদ জাগো নিউজকে বলেন, বর্তমানে প্রকল্পের অগ্রগতি ৭২ শতাংশ। আমরা সময়মতো ফান্ড পাইনি। সরকারি ফান্ড পেতে দেরি হওয়ায় প্রকল্প বাস্তবায়নে বাড়তি সময় লাগছে। এজন্য আরও ছয় মাস সময় চেয়েছি। ভূমি অধিগ্রহণের সীমানা পিলার ও বৃক্ষরোপণ করতে হবে। এছাড়া অধিগ্রহণ করা জমির কিছু খাল ভরাট হয়েছে, এগুলো ঠিক করতে হবে। এজন্য একটা পিক টাইম দরকার। কিছু ব্যয় সমন্বয় করতেও আমাদের বাড়তি সময় লাগবে।

jagonews24

প্রকল্পের মূল অংশের খাল খনন খাতে আট কোটি, সীমানা পিলারে পাঁচ কোটি, অফিস সরঞ্জামাদির জন্য চার লাখ, ভূমি অধিগ্রহণ/ক্রয় খাতে ২২৫ কোটি ৯ লাখ ৩১ হাজার মিলিয়ে মোট ২৩৮ কোটি ১৩ লাখ ৩১ হাজার টাকা ব্যয় বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে।

অন্যদিকে, ল্যান্ড স্ক্যাপিং খাতে আট কোটি ৬৪ লাখ ৬১ হাজার এবং প্রাইস কন্টিনজেন্সি খাতে ২৩৬ কোটি ৬৯ লাখ ২০ হাজার মিলিয়ে মোট ২৪৫ কোটি ৩৩ লাখ ৮১ হাজার টাকা ব্যয় হ্রাসের প্রস্তাব করা হয়েছে। প্রস্তাবিত আন্তঃখাত সমন্বয় ও নতুন অঙ্গ অন্তর্ভুক্তিসহ বাস্তবায়ন মেয়াদকাল ২০২৩ সালের জুন পর্যন্ত (আরও ৬ মাস) বাড়ানোয় প্রথম সংশোধিত মোট প্রাক্কলিত ব্যয় ৩ হাজার ১৯৫ কোটি ৮১ লাখ টাকা (জিওবি) অপরিবর্তিত রয়েছে।

সুনির্দিষ্ট উদ্দেশ্য
জিটুজি (সরকার থেকে সরকার) ভিত্তিতে জাপানিজ অর্থনৈতিক অঞ্চল স্থাপনের জন্য আড়াইহাজার অর্থনৈতিক অঞ্চল এবং মিরসরাই অর্থনৈতিক অঞ্চলের জন্য ভূমি অধিগ্রহণ, টেকসই অর্থনৈতিক উন্নয়নের লক্ষ্যে বিভিন্ন পণ্য উৎপাদনের জন্য ভিন্ন ভিন্ন প্রকৃতির শিল্প স্থাপনের সুবিধা সম্প্রসারণ করা, জাপানিজ বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগ আকর্ষণের অনুকূল পরিবেশ তৈরি, কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টির মাধ্যমে দারিদ্র্য বিমোচন, দেশের সুষম অর্থনৈতিক উন্নয়ন এবং জীবনযাত্রার মানোন্নয়ন নিশ্চিত করা।

jagonews24

প্রকল্পের মূল কার্যক্রম
আড়াইহাজারে এক হাজার এক দশমিক ৮১ একর এবং মিরসরাইয়ে ৫০৫ একর ভূমি অধিগ্রহণ ও কেনা হবে। মিরসরাই এলাকায় ৪৩৫ একর ভূমি উন্নয়ন, ল্যাপটপ ও অফিস সরঞ্জামাদি কেনা, সীমানাপ্রাচীর নির্মাণ (ওয়াচ টাওয়ারসহ) ও পানি সংরক্ষণাগার নির্মাণ করা হবে।


আরও খবর



পাচার করা টাকা ফিরিয়ে আনতে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশনা

প্রকাশিত:Monday ০৮ August ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ১৯ August ২০২২ | ১৯জন দেখেছেন
Image

দেশ থেকে পাচার হওয়া টাকা দেশে ফিরিয়ে আনার সুযোগ দিয়েছে সরকার। এখন থেকে মাত্র ৭ শতাংশ কর দিয়ে দেশের বাইরে থেকে সেই টাকা নিয়ে আসা যাবে। অর্থাৎ ১০০ টাকা নগদ আনলে ৭ টাকা কর দিতে হবে সরকারকে। তখন এ টাকা নিয়ে কেউ আর প্রশ্ন তুলতে পারবে না। সোমবার (৮ আগস্ট) এ সংক্রান্ত একটি নির্দেশনা দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রা নীতি বিভাগ থেকে জারি করা নির্দেশনায় বলা হয়েছে, বাংলাদেশের বাইরে গচ্ছিত অপ্রদর্শিত অর্থ চলতি বছরের ১ জুলাই হতে ব্যাংকিং চ্যানেলের মাধ্যমে বৈধভাবে দেশে এনে আয়কর রিটার্নে প্রদর্শন করা যাবে। আগামী বছরের (২০২৩ সালের) ৩০ জুন পর্যন্ত এ নিয়ম বলবৎ থাকবে। অর্থ আইন ২০২২ এর মাধ্যমে আয়কর অধ্যাদেশ ১৯৮৪ এর ধারা-১৯এফ অনুসারে এ অর্থ বৈধভাবে দেশে আনা যাবে।

চলতি ২০২২-২০২৩ অর্থবছরের বাজেটে প্রথমবারের মতো দেশ থেকে পাচার হওয়া টাকা বৈধ করার সুযোগ দেওয়া হয়েছে। তবে এ টাকা দেশে ফেরত আনা হবে কীভাবে, সেটি এতদিন অনেকের কাছে স্পষ্ট ছিল না। তাই বিভ্রান্তি দূর করতে বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে এ নির্দেশনা দেওয়া হলো।

তবে পাচার হওয়া টাকা ফিরিয়ে আনতে সরকারের উদ্যোগ নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা হয় বাজেটের পর পরই। কিন্তু এনবিআর কর্মকর্তারা বলছেন, এ সুযোগের ফলে কমপক্ষে ১০০ কোটি (১ বিলিয়ন) ডলার দেশে আসবে। এই বিপুল টাকা অর্থনীতির মূল ধারায় যোগ হলে চাঙা হবে দেশের অভ্যন্তরীণ অর্থনীতি।

এনবিআরের মতে, যে প্রক্রিয়ায় দেশে রেমিট্যান্স পাঠানো হয়, একইভাবে পাচার করা টাকাও দেশে আনতে পারবেন। এজন্য তাকে প্রথমে টাকার অঙ্ক বৈধ করার ঘোষণা দিতে হবে। ঘোষিত অর্থ বৈধ উপায় বা ব্যাংকিং চ্যানেলের মাধ্যমে দেশে আনতে হবে। ওই টাকা দেশে আসার পর নিজ হিসাবে (অ্যাকাউন্ট) জমা করতে হবে।


আরও খবর



মুদ্রার বিনিময় হার: ২৪ জুলাই ২০২২

প্রকাশিত:Sunday ২৪ July ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ১৫ August ২০২২ | ২৩জন দেখেছেন
Image

বাংলাদেশের এক কোটিরও বেশি মানুষ পাড়ি জমিয়েছেন বিশ্বের বিভিন্ন দেশে। প্রবাসীদের পাঠানো কষ্টার্জিত অর্থে সচল রয়েছে দেশের অর্থনীতির চাকা। প্রবাসীদের লেনদেনের সুবিধার্থে ২৪ জুলাই ২০২২ মুদ্রার বিনিময় হার তুলে ধরা হলো।

মুদ্রা

ক্রয় (টাকা)

বিক্রয় (টাকা)

ইউএস ডলার

৯৩.৫০

৯৪.৫০

পাউন্ড

১১৫.৫৩

১২২.৯৮

ইউরো

৯৭.১৫

১০৪.৬৫

জাপানি ইয়েন

০.৬৯

০.৭৫

অস্ট্রেলিয়ান ডলার

৬৪.৭৫

৬৬.৪৬

হংকং ডলার

১১.৯১

১২.০৪

সিঙ্গাপুর ডলার

৬৭.৭২

৭৩.৮৫

কানাডিয়ান ডলার

৭২.৪০

৭৩.১৫

ইন্ডিয়ান রুপি

১.১৪

১.১৮

সৌদি রিয়েল

২৪.৮৪

২৫.১৬

মালয়েশিয়ান রিঙ্গিত

২০.৯৬

২১.২৪


আরও খবর



টেকসই নগর গড়তে সমন্বিত-কার্যকর পরিকল্পনা করা হচ্ছে: তাপস

প্রকাশিত:Sunday ৩১ July ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ১৫ August ২০২২ | ৫৯জন দেখেছেন
Image

ঢাকাকে একটি উন্নত ও টেকসই মহানগরী হিসেবে গড়ে তুলতে সমন্বিত ও কার্যকর পরিকল্পনা প্রণয়ন করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস।

রোববার (৩১ জুলাই) সিঙ্গাপুরে অনুষ্ঠিত ওয়ার্ল্ড সিটিজ সামিট-২০২২ মেয়রস ফোরামে অংশ নিয়ে মেয়র শেখ তাপস এই তথ্য জানান।

শেখ তাপস বলেন, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন ঢাকা মহানগরীর জন্য দীর্ঘমেয়াদি সমন্বিত পরিকল্পনা প্রণয়ন করছে। ঢাকা শহরকে অধিকতর বাসযোগ্য করতে টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট-২০৩০ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত রূপকল্প-২০৪১-এর সঙ্গে সমন্বয় করে মহাপরিকল্পনার আওতায় আমরা পরিবহন ব্যবস্থাপনা, সামাজিক সুবিধা, কঠিন বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, পরিবেশ উন্নয়ন, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিষয়ের সন্নিবেশ করছি। এর মাধ্যমে আমরা একটি উন্নত নগরী গড়ে তোলার পাশাপাশি টেকসই উন্নয়নও নিশ্চিত করতে কাজ করে চলেছি।

মেয়র তাপস বলেন, বায়ুমণ্ডলে মাত্র দশমিক ৫০ শতাংশ কার্বন নিঃসরণ করলেও জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতিকর প্রভাবে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোর অন্যতম বাংলাদেশ। ফলে বিগত কয়েক দশকে ঢাকা শহরের তাপমাত্রা যেমন বেড়েছে তেমনি ঋতু পরিবর্তনজনিত প্রভাবে স্বাভাবিক নাগরিক জীবন বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। এতে করে নগর ব্যবস্থাপনার চ্যালেঞ্জও বেড়েই চলেছে। সে চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকার যথাযথ ও কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করে চলেছে। এছাড়া গণপরিবহনে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে আমরা গত বছরের শেষভাগে বাস রুট রেশনালাইজেশনের আওতায় ঢাকা নগর পরিবহন নামে শৃঙ্খলিত বাস সেবা চালু করেছি। ধীরে ধীরে এই সেবা পুরো শহরে চালু করা হবে। এর মাধ্যমে জনগণ গণপরিবহনে চলাচলে স্বস্তি খুঁজে পাবেন।

চার দিনব্যাপী ওয়ার্ল্ড সিটিজ সামিট-২০২২ সিঙ্গাপুরের মেরিনা স্যান্ডস্ বে হোটেলে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সিঙ্গাপুরের জাতীয় উন্নয়ন মন্ত্রী ও সামাজিক সেবা সমন্বয়করণ মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত মন্ত্রী ডেসমণ্ড লি সকালে সামিটের উদ্বোধন করেন। সামিটে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাষ্ট্র্য, অস্ট্রেলিয়া, জাপান, দক্ষিণ আফ্রিকাসহ ৬০ দেশের মেয়ররা অংশ নিচ্ছেন। আগামী ৩ জুলাই সামিটের পর্দা নামবে।

মেয়রের সঙ্গে করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ফরিদ আহাম্মদ ও মেয়রের একান্ত সচিব মোহাম্মদ মারুফুর রশিদ খান সামিটে অংশ নিচ্ছেন।


আরও খবর



৩৮ হাজার টাকা বেতনে চাকরি দিচ্ছে রেড ক্রিসেন্ট

প্রকাশিত:Saturday ৩০ July ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ১৬ August ২০২২ | ২৪জন দেখেছেন
Image

বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটিতে ‘অ্যাসিস্ট্যান্ট ফাইন্যান্স’ পদে জনবল নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আগামী ১০ আগস্ট পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন।

প্রতিষ্ঠানের নাম: বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি
বিভাগের নাম: অ্যাডমিন অ্যান্ড লজিস্টিকস অফিসার (এএফএ অ্যান্ড এলও)

পদের নাম: অ্যাসিস্ট্যান্ট ফাইন্যান্স
পদসংখ্যা: নির্ধারিত নয়
শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতক (বাণিজ্য শাখা)
অভিজ্ঞতা: ০৩ বছর
বেতন: ৩৮,০০০ টাকা

চাকরির ধরন: চুক্তিভিত্তিক
প্রার্থীর ধরন: নারী-পুরুষ
বয়স: নির্ধারিত নয়
কর্মস্থল: জামালপুর, কুড়িগ্রাম

আবেদনের নিয়ম: আগ্রহীরা www.jobs.bdjobs.com এর মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন।

আবেদনের শেষ সময়: ১০ আগস্ট ২০২২

সূত্র: বিডিজবস ডটকম


আরও খবর



‘বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে কাজ করে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী’

প্রকাশিত:Monday ১৫ August ২০২২ | হালনাগাদ:Thursday ১৮ August ২০২২ | ১৫জন দেখেছেন
Image

আমাদের এই দেশ নিয়ে জাতির পিতার অনেক স্বপ্ন ছিল। তিনি সেই স্বপ্ন নিয়ে দেশকে স্বাধীন করেছেন। কিন্তু স্বাধীন সুফল তিনি খুব বেশিদিন ভোগ করতে পারেননি। তাকে আজকের দিনে হত্যা করা হয়েছে। কিন্তু তার কন্যা আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দমে যাননি। তিনি সে স্বপ্ন বাস্তবায়নে কাজ করে যাচ্ছেন।

সোমবার (১৫ আগস্ট) জাতীয় প্রেস ক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী হলে জাতীয় শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধুর ৪৭তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে বাংলাদেশ বিড়ি শ্রমিক ফেডারেশন। এসময় বক্তারা এসব কথা বলেন।

এসময় ফেডারেশনের সভাপতি শ্রমিক নেতা এম কে বাঙালি বলেন, জাতীর পিতা ছিলেন শ্রমিকদের পক্ষে। তিনি শ্রমিকদের অধিকার প্রতিষ্ঠা করেছেন। শ্রমিকদের অধিকার দিয়েছেন। আমরা শ্রমিক হিসেবে সেই জায়গা থেকে গর্ববোধ করি।

‘আজকে মালিকদের কাছে শ্রমিকরা কোনঠাসা। কিন্তু বঙ্গবন্ধু যদি আর কয়েকটা বছর বেঁচে থাকতেন, তবে হয়তো শ্রমিকদের জন্য আরও কিছু কাজ করে যেতেন, আরও কিছু আইন করে যেতেন, যাতে শ্রমিকদের অধিকার ক্ষুণ্ণ না হয়।’

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ বিড়ি শ্রমিক ফেডারেশনের সহ-সভাপতি নাজিম উদ্দিন, লোকমান হাকিম, সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান, যুগ্ম-সম্পাদক হারিক হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল গফুর প্রমুখ।


আরও খবর