Logo
আজঃ সোমবার ২৪ জুন 20২৪
শিরোনাম

আমরা ক্ষমতায় এলে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না: রুমিন ফারহানা

প্রকাশিত:শনিবার ২৬ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৪৯২জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক; বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ও সংসদ সদস্য রুমিন ফারহানা সরকারের উদ্দেশে বলেছেন, ‘নিজের দেশের মানুষে দিকে বন্দুক তাক করেন তাই না? আমরা ক্ষমতায় এলে সব হিসাব নেব। কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।’ আজ শনিবার দুপুরে কুমিল্লার টাউন হল মাঠে বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশে তিনি এ কথা বলেন।

রুমিন ফারহানা বলেন, ‘২০২৪ সালে নাকি তারা (আওয়ামী লীগ) ইভিএম নাটক দেখাবে। যতই নাটক করেন কাজ হবে না। আমরা নির্দলীয় সরকারের অধীনেই নির্বাচনে যাবো।

তিনি বলেন, ‘তিনি (প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা) দুর্ভিক্ষ নিয়ে মানুষকে ভুল বোঝাচ্ছেন। কী ভাবছেন, দেশের মানুষের চিন্তার ক্ষমতা নেই? এগুলা ভাববেন না। দেশের মানুষ সব বোঝে। মানুষ এখন আর পুলিশের গুলি ভয় পায় না। বাস, ট্রাক, লঞ্চ বন্ধ করে লাভ নেই। মানুষ হেঁটে চলে যাবে। রিকশায় যাবে। দুই কাঁধে ভর দিয়ে যাবে। দেখা হবে পল্টনে।

এদিন বেলা ১১টায় কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে টাউন হল মাঠে এই সমাবেশ শুরু হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে রয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, প্রধান বক্তা বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, বিশেষ অতিথি স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু।

কুমিল্লা মহানগর বিএনপির সদস্যসচিব ইউসুফ মোল্লা টিপু, কুমিল্লা উত্তর বিএনপি সদস্যসচিব এ এফ এম তারেক মুন্সি ও কুমিল্লা দক্ষিণ বিএনপি সদস্যসচিব মো. জসিম উদ্দিনের সঞ্চালনায় এতে সভাপতিত্ব করছেন কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আমিনুর রশিদ ইয়াসিন।

জানা গেছে, নির্ধারিত সময়ের কয়েক ঘণ্টা আগেই টাউন হল মাঠ পরিপূর্ণ হয়ে যায়। সমাবেশকে কেন্দ্র করে কয়েকদিন আগে থেকেই টাউন হল মাঠে আসতে শুরু করেন বিএনপির নেতাকর্মীরা। বাকিরা আজ ভোর থেকেই মিছিল নিয়ে সমাবেশস্থলে আসতে শুরু করেন। মাঠে জায়গা না পেয়ে সড়কেও অবস্থান নিয়েছেন অনেকে।

এ ছাড়া মানুষের সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় নতুন করে কোনো মিছিল টাউন হল মাঠে প্রবেশ করতে পারছে না। উপস্থিত নেতাকর্মীরা কান্দিরপাড় পূবালী চত্বর, লিবার্টি মোড়, রামঘাটলায় অবস্থান নিচ্ছেন।

জ্বালানি তেলসহ নিত্যপণ্যের অস্বাভাবিক দাম বৃদ্ধি, দলের পাঁচ নেতাকে গুলি করে হত্যার প্রতিবাদ, বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি এবং নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দাবিতে বিএনপি বিভাগীয় পর্যায়ে ধারাবাহিকভাবে এ গণসমাবেশ করছে।

এর আগে গত ১২ অক্টোবর চট্টগ্রামে প্রথম গণসমাবেশ হয়। পরে ময়মনসিংহ, খুলনা, রংপুর, বরিশাল, ফরিদপুর ও সিলেটে সমাবেশ হয়। আগামী ৩ ডিসেম্বর রাজশাহী ও ঢাকায় ১০ ডিসেম্বর গণসমাবেশ হবে।


আরও খবর



আছাদুজ্জামান মিয়ার ব্যক্তিগত তথ্য ফাঁস করায় বরখাস্ত গাজীপুরের এডিসি জিসানুল হক

প্রকাশিত:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৩২জন দেখেছেন

Image

নাজমুল হাসানঃ 

ডিএমপির সাবেক পুলিশ কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়ার জাতীয় পরিচয়পত্রসহ স্পর্শকাতর তথ্য সরবরাহের অভিযোগে গাজীপুরের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার জিসানুল হককে চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।সোমবার (২৪ জুন) স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের এক প্রজ্ঞাপনে এই আদেশ জারি করা হয়। এর আগে সাবেক ডিএম‌পির কমিশনার আসাদুজ্জামান মিয়ার ব্যক্তিগত তথ্য অনলাইন ও সাংবাদিকদের কাছে যাওয়া নি‌য়ে তদন্ত শুরু হয়।

এ ঘটনায় ওই অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনারসহ একজন এসআই ও এএসআইসহ তিনজনকে অভিযুক্ত করা হয়। পরে ওই অতিরিক্ত উপকমিশনারকে সাময়িক বরখাস্ত করে রংপুর রেঞ্জে সংযুক্ত করার জন্য পুলিশ সদর দপ্তর থেকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠানো হয়েছে। এ প্রেক্ষিতেই তা‌কে চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হ‌য়ে‌ছে।


প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, জিসানুল হক (বিপি-৮৫১৪১৬৬৩৩১), অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার, সিটিএসবি অ্যান্ড প্রটেকশন বিভাগ, জিএমপি, গাজীপুর-এর বিরুদ্ধে শৃঙ্খলা পরিপন্থি কর্মকাণ্ডে জড়িত হওয়ার অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পাওয়ায় সরকারি চাকরি আইন, ২০১৮ এর ধারা ৩৯(১) এবং সরকারি কর্মচারী (শৃঙ্খলা ও আপিল) বিধিমালা, ২০১৮ এর বিধি ১২(১) অনুযায়ী অভিযুক্তকে সরকারি চাকরি হতে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা সমীচীন মর্মে বিবেচিত হওয়ায় তাকে সরকারি সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হলো।


এতে আরও বলা হয়েছে, তিনি বাংলাদেশ সার্ভিস রুল (বি.এস.আর) পার্ট-১, বিধি-৭১ মোতাবেক খোরপোষ ভাতা প্রাপ্য হবেন; এবং ০৩। জনস্বার্থে জারিকৃত এ আদেশ অবিলম্বে কার্যকর হবে।


এর আগে, ১৯ জুন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগে জিসানুল হককে সাময়িক বরখাস্ত করার সুপারিশ করে একটি চিঠি দেয় পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স। এতে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করা হয়।


আরও খবর



চতুর্থ ধাপে ৩৪.৩৩ শতাংশ ভোট পড়েছে: সিইসি

প্রকাশিত:বুধবার ০৫ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১৫০জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:চতুর্থ ধাপে  ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ৬০ উপজেলায় ৩৪ দশমিক ৩৩ শতাংশ ভোট পড়েছে বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল

বুধবার (৫ জুন) রাজধানীর আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান তিনি।

সিইসি বলেন, ৬০ উপজেলায় ভোট হয়েছে। ভোট শান্তিপূর্ণ হয়েছে। কিছু ইন্সিডেন্ট হয়েছে। এ জন্য ২৮ জনকে গ্রেপ্তার করেছি, ৯ জনকে বিভিন্ন অপরাধে দণ্ড দেওয়া হয়েছে। এছাড়া ব্যালটবাক্স ছিনতাইয়ের ঘটনায় ভৈরব উপজেলায় ভোট স্থগিত করা হয়েছে। বরিশালে সংঘর্ষে ৫ জন আহত হয়েছেন। তবে ইভিএমে ভালো কাজ হয়েছে।

সিইসি বলেন, ভোট নিয়ে কমিশন সন্তুষ্ট। কারণ এবারের উপজেলা নির্বাচন শান্তিপূর্ণ হয়েছে। বড় ধরনের কোনও সহিংসতা নেই।

এর আগে সকাল ৮টা থেকে দেশের ৬০ উপজেলার ৫ হাজার ১৪৪টি ভোটকেন্দ্রে চতুর্থ ধাপের ভোটগ্রহণ শুরু হয়। এর মধ্যে ছয়টিতে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) এবং বাকিগুলোতে ব্যালটে ভোট হয়।


আরও খবর



সিরাজগঞ্জে জাহান আরা উচ্চ বিদ্যালয়ে জিপিএ-৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা প্রদান

প্রকাশিত:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১৫৯জন দেখেছেন

Image
রাকিব সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি:সিরাজগঞ্জ শহরের সুনামখ্যাত ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপীঠ জাহান আরা উচ্চ বিদ্যালয়ে এসএসসি- ২০২৪ খ্রীঃ পরীক্ষায় জিপিএ ৫- প্রাপ্ত মেধাবী ৪৬ জন শিক্ষার্থীদের মাঝে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়  এবং  অভিভাবক সমাবেশ, বার্ষিক পুরস্কার ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান  অনুষ্ঠিত হয়। 

শনিবার (২৫মে) সকালে জাহান আরা উচ্চ বিদ্যালয়ের আয়োজনে, ফজলুল হক রোডস্থ  নর্দান ফ্লাওয়ার মিলস্ লিমিটেড মাঠ প্রাঙ্গনে জাহান আরা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে এই সংবর্ধনা প্রদানকালে ফুলেল শুভেচ্ছা, ক্রেস্ট ও উপহার প্রদান করা হয়। 

জাহান আরা উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি বিশিষ্ট শিল্পপতি মুনির আহমেদ এর সভাপতিত্বে শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, জাহান আরা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সরকার ছানোয়ার হোসেন।অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে জিপিএ- ৫ প্রাপ্ত মেধাবী শিক্ষার্থীদের হাতে ক্রেস্ট ও উপহার তুলে দেন, অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি  সিরাজগঞ্জ-২ (সদর - কামারখন্দ) আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য ড. জান্নাত আরা তালুকদার হেনরী এসময়ে তিনি ছাত্র-ছাত্রীদের উদ্দেশ্য বলেন, দেশরত্ন, বঙ্গবন্ধকন্যা, জননেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে ডিজিটাল বাংলাদেশ থেকে স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে কাজ করছেন। প্রতিটি শিক্ষার্থীর মধ্যে দেশপ্রেম ও সততা থাকতে হবে। সুশিক্ষিত ও দক্ষ হয়ে  আজকের এই শিক্ষার্থীরা আগামী দিনে সুনাগরিক হবে এরাই দেশের নেতৃত্ব দিয়ে স্মার্ট বাংলাদেশ গড়বে দেশ এগিয়ে যাবে। এজন্য নতুন প্রজন্ম বা শিক্ষার্থীদের আরও পড়া লেখায় বেশি মনোযোগী  হয়ে আধুনিক প্রযুক্তি নির্ভরশীল হতে হবে এবং  সাহিত্য- সংস্কৃতির ও ক্রীড়া চর্চায়  বেশি মনোনিবেশ করবে। সৃজনশীল হয়ে প্রকৃতি ও পরিবেশের প্রতি সংবেদনশীল হতে হবে। নিজেকে পরিবর্তনের জন্য নিজের ইচ্ছাশক্তিই যথেষ্ট। ভালো মানুষ হতে হবে। এজন্য মূল্যবোধ ও মানবিকতা থাকতে হবে। থাকতে হবে স্বপ্নজয়ের প্রতিজ্ঞা।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্যে রাখেন, সিরাজগঞ্জ পৌরসভার মেয়র সৈয়দ আব্দুর রউফ মুক্তা, জেলা শিক্ষা অফিসার (অতি: দা:) আফছার আলী, সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার, মোঃ ছাকমান আলী, নর্দান ফ্লাওয়ার মিলস্ লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইকবাল হোসেন, সিরাজগঞ্জ পৌরসভার কাউন্সিলর এবং জাহান আরা উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির অন্যতম সদস্য মোঃ আব্দুল আলীম মন্ডল, মামুনুর রশিদ, জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ। 

এসময় অনুষ্ঠানে অত্র বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক জহুরুল ইসলাম, সহকারী শিক্ষক সঞ্জয় গৌর, টি এম আসলাম উদ্দীন, সিমা রাণী, আফরোজা সুলতানা, শাপলা খাতুন, রাশেদুল ইসলাম ও শিক্ষক কেয়ামত আলী সহ অন্যান্য কর্মকর্তা, কর্মচারী, সকল শিক্ষার্থীরা  অভিভাবকগণ, সুধীজন,গুণীজন এবং সাংবাদিকেরা  উপস্থিত ছিলেন।

আরও খবর



মালবাহী ট্রাক দোকানে ঢুকে পড়ায় প্রাণ গেল দু’জনের

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১১ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১০৪জন দেখেছেন

Image

ইয়ানূর রহমান শার্শা,যশোর প্রতিনিধি:যশোরের মণিরামপুরে মালবাহী ট্রাকের চাপায় দু’জন নিহত হয়েছে। এ দুর্ঘটনায় ট্রাক চালক আহত হয়েছে। সোমবার (১০ জুন) সকালে মণিরামপুর বাধাঘাট এলাকায় এ দুর্ঘটনাটি ঘটে।নিহতরা হল, মণিরামপুুরের বিজয়রামপুর গ্রামের মৃত আনার আলীর ছেলে আব্দুর রহমান (৮৫) ও টাঙ্গাইল জেলার মির্জাপুর উপজেলার দেওভাটা গ্রামের ঝন্টু মিয়া (৪৮)। আহত ট্রাক চালকের নাম নুরুল ইসলাম। তিনি গাজীপুর থানার উত্তর দাড়িয়াপুর গ্রামের মৃত হোসেন আলীর ছেলে।

স্থানীয়রা জানায়, সোমবার রাতে একটি মালবাহী ট্রাক গাজীপুর থেকে শ্যামনগরের উদ্দ্যেশে রওনা হয়। সকালে ট্রাকটি মণিরামপুর বাধাঘাট এলাকায় পৌছালে চলন্ত অবস্থায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে একটি দোকানের ভেতরে ঢুকে পড়ে।এসময় দোকানের সামনে বসে থাকা আব্দুর রহমান ট্রাকে চাপা পড়ে মারা যান। আর গাড়িতে থাকা ট্রাক মালিক ঝান্টু মিয়াও ঘটনাস্থলেই মারা যান। এ সময় ট্রাক চালক নুরুল ইসলাম গুরুত্বর আহত হন। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে হতাহতদের উদ্ধার করে।প্রত্যক্ষদর্শী রফিকুল ইসলাম মোল্লা বলেন, ব্যাপারী অটো রাইস মিলের সামনে দোকানে বসে থাকা আব্দুর রহমানকে চাপা দিয়ে ট্রাকটি দোকানে ঢুকে পড়ে। এসময় ঘটনাস্থলে তিনি মারা যায়। পরে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা এসে ট্রাকের মধ্যে থেকে অপর একজনকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করে।

চালক নুরুল ইসলাম বলেন, গাজীপুর থেকে শ্যামনগরের যাওয়ার পথে নিয়ন্ত্রন হারিয়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত ঝন্টু মিয়া ওই ট্রাকের মালিক।মণিরামপুর ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার সাফায়াত হোসেন বলেন, ট্রাক দুর্ঘটনায় তিন জন হতাহত হয়েছে। এদের মধ্যে ট্রাক চালক নুরুল ইসলামকে উদ্ধার করে মণিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

মণিরামপুুর থানার এসআই লিটন বিশ্বাস বলেন, চালকের ঘুম ভাব থাকার কারণে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে। মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।


আরও খবর



সেতু ভেঙ্গে নয়জন নিহতের ঘটনায় দুইটি তদন্ত কমিটি গঠন, মাইক্রোবাস উদ্ধার

প্রকাশিত:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৩৬জন দেখেছেন

Image

আব্দুল্লাহ আল নোমান,আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি:সেতু ভেঙ্গে নয়জন নিহতের ঘটনায় দুইটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। বরগুনা জেলা প্রশাসক মোহাঃ রফিকুল ইসলাম অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট অনিমেষ বিশ্বাসকে প্রধান করে এ কমিটি গঠন করা হয়। শনিবার রাতে এ তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত কমিটিকে সাত দিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন বরগুনা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে জমা দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়। অপর দিকে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর আরেকটি তিন সদস্য কমিটি গঠন করেছে। পটুয়াখালী তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মহির উদ্দিন শেখকে প্রধান করে এ তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। এদিকে চাওড়া নদীতে তলিয়ে যাওয়া মাইক্রোবাস উদ্ধার করা হয়েছে। শনিবার গভীর রাতে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস কর্তৃপক্ষ চেইন কপ্পা দিয়ে এ মাইক্রোবাসটি উদ্ধার করেছেন। রবিবার তদন্ত কমিটি তদন্ত কাজ শুরু করেছেন।

জানাগেছে, আমতলী উপজেলা কাউনিয়া ই্ব্রাহিম একাডেমি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক দক্ষিণ তক্তাবুনিয়া গ্রামের মাসুম বিল্লাহ মনিরের মেয়ে মরিয়ম বিল্লাহ হুমায়রার সঙ্গে একই বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আমতলী পৌর শহরের খোন্তাকাটা এলাকার বাসিন্দা সেলিম মাহমুদের ছেলে ডাঃ সোহাগের বিয়ে হয়। গত শুক্রবার ওই কনেকে বরের বাড়ী তুলে নেন। শনিবার মেয়ের পক্ষের লোকজন বরের বাড়ীতে মাইক্রোবাস এবং অটো গাড়ীতে যাচ্ছিল। পথিমধ্যে হলদিয়া হাট সেতু পাড় হওয়ার সময় সেতুর মাঝের অংশ ভেঙ্গে মাইক্রোবাস ও অটো গাড়ী নদীতে তলিয়ে যায়। অটোতে থাকা যাত্রীরা সকলে সাতরে কিনারে উঠতে পারলেও মাইক্রোবাসের যাত্রীরা নদীতে তলিয়ে যায়। তাৎক্ষনিক স্থানীয়রা ওই মাইক্রোবাসে থাকা লোকজনকে উদ্ধারের চেষ্টা চালায় বলে জানান প্রত্যক্ষদর্শী নাশির উদ্দিন। ততক্ষণে মাইক্রোবাসে থাকা কনে পক্ষের ৯ যাত্রী নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় বরগুনা জেলা প্রশাসক মোহাঃ রফিকুল ইসলাম ছয় সদস্য তদন্ত কমিটি গঠন করেছেন। অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট অনিমেশ বিশ্বাসকে প্রধান এবং আমতলী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুহাম্মদ আশরাফুল আলমকে সদস্য সচিব করা হয়েছে। কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন সহকারী পুলিশ সুপার আমতলী সার্কেল রুহুল আমিন, এলজিইডির বরগুনার নির্বাহী প্রকৌশলী মেহেদী হাসান খাঁন,  বিআরটিএ সহকারী পরিচালক মাহফুজ আহমেদ, ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্স উপ-সহকারী পরিচালক জাহাঙ্গির আলম। সাত কার্যদিবসের মধ্যে অনুসন্ধানপুর্বক তদন্ত কমিটিকে প্রতিবেদন জমা দিতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। অপর দিকে স্থানীয় সরকার প্রকৌশলী অধিদপ্তর তিন সদস্য তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। পটুয়াখালী তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মহির উদ্দিন শেখকে প্রধান করে এ কমিটি গঠন করা হয়। কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন নির্বাহী প্রকৌশলী এসি অফিস বরিশাল নুরুস সাম ও এলজিইডি বরগুনা সিনিয়র সহকারী প্রকৌশলী মোঃ মনিরুজ্জামান। রবিবার তদন্ত কমিটি তাদের তদন্ত কাজ শুরু করেছেন। এদিকে শনিবার গভীর রাতে আমতলী থানা পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা চেইন কপ্পা দিয়ে নদীতে ডুবে যাওয়া মাইক্রোবাসটি উদ্ধার করেছে। 

আমতলী থানার ওসি কাজী সাখাওয়াত হোসেন তপু বলেন, চেইন কপ্পা দিয়ে মাইক্রোবাসটি উদ্ধার করা হয়েছে। ওই মাইক্রোবাসের মধ্যে আর কোন মরদেহ পাওয়া যায়নি।  

আমতলী উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) তারেক হাসান বলেন, বরগুনা জেলা প্রশাসক ছয় সদস্য তদন্ত কমিটি গঠন করেছেন। 

তদন্ত কমিটির প্রধান বরগুনা অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট অনিমেশ বিশ্বাস বলেন, তদন্ত কাজ শুরু করেছি। আজ (রবিবার) আমতলী উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে সভা শেষে সরেজমিনে ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করা হবে। 

বরগুনা জেলা প্রশাসক মোহাঃ রফিকুল ইসলাম বলেন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে প্রধান করে ছয় সদস্য তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। সাত কার্যদিবসের মধ্যে তাদের অনুসন্ধানপুর্বক প্রতিবেদন জমা দেয়ার নির্দেশ দিয়েছি। প্রতিবেদনের আলোকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।


আরও খবর