Logo
আজঃ Wednesday ০৮ December ২০২১
শিরোনাম
নৌকা পরাজিত স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান হলো তৃতীয় লিঙ্গের ঋতু! তৃতীয় ধাপে ইউনিয়ন নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষ, চলছে গণনা কুমিল্লায় নৌকা পেয়েও সরে দাড়ালেন বাহালুল, প্রাথমিক সদস্য না হয়েও মনোনীত নূরুল! মাতুয়াইলে সড়ক উন্নয়ন কাজের উদ্ধোধন করলেন সংসদ সদস্য কাজী মনু পলো উৎসবে মাছ ধরায় মেতেছে মানুষ, চির চেনা বাংলা গাজীপুরে ৩০ সেকেন্ডেই মা-মেয়ের জীবন শেষ করল দুই খুনি হয়নি হাফ পাসের সিদ্ধান্ত,টাস্কফোর্স গঠনের প্রস্তাব আলেম-ওলামাদের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা-ভক্তি রয়েছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রংপুরের তারাগঞ্জে ট্রাকচাপায় তিন নারী শ্রমিক নিহত কুমিল্লার তিতাস ও মেঘনা উপজেলায় ইউপি নির্বাচনে বিজয়ী যারা !

আজকের ইউপি নির্বাচনে ভোটকেন্দ্রে কেউ মারা যায়নি: ইসি সচিব

প্রকাশিত:Thursday ১১ November ২০২১ | হালনাগাদ:Wednesday ০৮ December ২০২১ | ২১৬জন দেখেছেন
ডেস্ক এডিটর

Image


ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) দ্বিতীয় ধাপের নির্বাচনে সহিংসতায় নিহতদের মধ্যে ভোটকেন্দ্রে কেউ মারা যায়নি বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সচিব মো. হুমায়ুন কবীর খোন্দকার।বৃহস্পতিবার (১১ নভেম্বর) সন্ধ্যায় নির্বাচন ভবনে দ্বিতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন শেষে তিনি সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

 

ইসি সচিব বলেন, আপনারা বলেছেন ছয়জন মারা গেছেন, এটি ঠিক। এটির জন্য কমিশন ব্যথিত। এটি আমরা কখনো চাইবো না রাষ্ট্রের একজন নাগরিকও যেকোনো কারণেই নিহত হোক। আজ যে ছয়জন মারা গেছে তারা কেউ আমাদের ভোটকেন্দ্রে মারা যায়নি। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী যারা তাদের মধ্যেই ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, তাদের মধ্যেই সহিংসতা হয়েছে এবং তারা মারা গেছে।

 

তিনি বলেন, মোট যে ৮৩৪টি ইউনিয়ন পরিষদে ভোট হয়েছে আমরা সব জেলা-উপজেলায় খোঁজ নিয়েছি, প্রার্থীরাও কেউ কেউ আমাদের কাছে অভিমত ব্যক্ত করেছেন, আমরা জানতে পেরেছি ভোটটি খুব সুন্দর হয়েছে, উৎসবমুখর হয়েছে।

 

হুমায়ুন কবীর খোন্দকার বলেন, এই ধাপের ৮৩৪টি ইউপি নির্বাচনে ৮ হাজার ৪০০ ভোটকেন্দ্র। আমরা গণমাধ্যম ও ল’ মনিটরিং সেন্টারের মাধ্যমে রিপোর্ট পেয়েছি ১০টি কেন্দ্রে ব্যালট ছিনতাইয়ের চেষ্টা করেছে। আমাদের প্রিসাইডিং অফিসাররা ওই ১০ কেন্দ্রের ভোট বন্ধ করে দিয়েছেন। এগুলোতে পরে ভোটগ্রহণ করা হবে। অন্য কেন্দ্রগুলোর রেজাল্ট নিয়েও যদি ডিসিশন না হয় তখন পরবর্তীতে ভোট নেওয়া হবে। আমরা মনে করি পুরো দেশে ভালো ভোট হয়েছে।

 

গতকাল চতুর্থ ধাপের ভোটের তফসিল হয়েছে, পরবর্তী ধাপের ভোট নিয়ে আবার কমিশনের বৈঠক হবে বলেও জানান ইসি সচিব।

 

এর আগে আজ দ্বিতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দেশের বিভিন্ন স্থানে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে। নির্বাচনী সহিংসতায় অন্তত ছয়জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন শতাধিক।

 

নিহতদের মধ্যে নরসিংদীতে তিনজন, কক্সবাজারে একজন, চট্টগ্রামে একজন ও কুমিল্লায় একজন রয়েছেন। বৃহস্পতিবার সকাল ৮টায় শুরু হয়ে বিকেল ৪টায় ভোটগ্রহণ শেষ হয়।

 

খবর প্রতিদিন/ সি.বা 

নিউজ ট্যাগ: ইউপি নির্বাচন

আরও খবর



কুমিল্লায় প্রকাশ্যে শিয়াল জবাই করে মাংস বিক্রি

প্রকাশিত:Thursday ১১ November ২০২১ | হালনাগাদ:Wednesday ০৮ December ২০২১ | ৩৯৩জন দেখেছেন
Image


 

কুমিল্লার লাকসামে প্রকাশ্যে শিয়ালের মাংস বিক্রির অভিযোগ উঠেছে। বুধবার (১০ নভেম্বর) বিকেলে শহরের রাজঘাট এলাকায় এমন দৃশ্য দেখা যায়। এরপর থেকে এ সংক্রান্ত একটি ভিডিও ফেসবুকে ঘুরপাক খাচ্ছে।

 

স্থানীয় সূত্রে খবর, বুধবার সকালে লাকসাম রেললাইন এলাকায় একটি শিয়াল বিক্রি করার জন্য চট্টগ্রাম থেকে আসেন দুই যুবক। খবর পেয়ে পৌরশহরের রাজঘাট এলাকার বাসিন্দা সাইফুল, মরণ ও লিটনসহ কয়েক যুবক মিলে তাদের কাছ থেকে দেড় হাজার টাকা দিয়ে শিয়ালটি কিনে নেন। বিকেলে রাজঘাট ব্রিজ সংলগ্ন এলাকায় নিয়ে শিয়ালটি জবাই করা হয়। এজন্য স্থানীয় কসাই জিয়াকে ১৫০ টাকা দেওয়া হয়। শিয়ালটি জবাই করার দৃশ্য কেউ একজন মোবাইলে ভিডিও করে। পরে সেই ভিডিও ভাইরাল হয়।

 

ভিডিওতে দেখা যায়, সাইফুল, মরণ ও লিটনসহ কয়েকজন যুবক শিয়াল জবাই করে মাংস বিক্রির স্থানের বর্ণনা দেন। ক্রেতাদের আকৃষ্ট করতে শিয়ালের মাংসের নানা উপকারিতার কথা উল্লেখ করেন। প্রতি কেজি মাংসের দাম ১০০০ টাকা বলে জানানো হয় ভিডিওতে। খবর পেয়ে কয়েকজন সেই মাংস কিনে নেন। এরপরই শিয়ালের মাংস বিক্রেতারা সটকে পড়েন।

 

লাকসামের ইউএনও এ কে এম সাইফুল আলম বলেন, বন্যপ্রাণী জবাই করে মাংস বিক্রি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ। এ বিষয়ে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

  খবর প্রতিদিন- সি/বা

নিউজ ট্যাগ: শিয়াল জবাই

আরও খবর



গাজীপুরে ৩০ সেকেন্ডেই মা-মেয়ের জীবন শেষ করল দুই খুনি

প্রকাশিত:Saturday ২৭ November ২০২১ | হালনাগাদ:Wednesday ০৮ December ২০২১ | ৩২৫জন দেখেছেন
ডেস্ক এডিটর

Image

 

 

 গাজীপুরে মা-মেয়েকে গলা কেটে হত্যার রহস্য ৩৬ ঘণ্টার মধ্যে উদঘাটন করেছে পুলিশ। একই সঙ্গে দুই খুনিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মাত্র ৩০-৪০ সেকেন্ডেই মা-মেয়েকে হত্যা করা হয় বলে জানিয়েছেন তারা।

 

জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার সালদিয়া গ্রাম থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতাররা হলেন- একই গ্রামের সাত্তার খানের ছেলে জাহিদুল ইসলাম ও মনির হোসেনের ছেলে মহিউদ্দিন ওরফে বাবু।

শনিবার দুপুরে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের সদর দফতরে প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান উপ-পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম) মো. জাকির হাসান।

তিনি জানান, ১২ বছর আগে রাজশাহী জেলার বাসিন্দা জয়নাল আবেদীনের সঙ্গে ফেরদৌসীর বিয়ে হয়। তাদের সংসারে ১১ বছরের মেয়ে হাফসা ও চার বছরের তাসমিয়া রয়েছে। কিন্তু বনিবনা না হওয়ায় স্বামীকে তালাক দিয়ে বাবার বাড়িতে চলে আসেন ফেরদৌসী। এরপর মোবাইল ফোনে পরিচয়ের মাধ্যমে তিন বছর আগে গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার রবিউল ইসলামের সঙ্গে তার বিয়ে হয়। রবিউলেরও আরেক সংসার ছিল। কিন্তু দুই বছর আগে তার সঙ্গেও ফেরদৌসীর ছাড়াছাড়ি হয়ে যায়।

 

এরপর দুই মেয়েকে নিয়ে হাড়িনাল এলাকায় ভাড়া বাসায় থেকে গার্ডিয়ান লাইফ ইনস্যুরেন্স লিমিটেডে চাকরি করেন। এছাড়া তিন মাস আগে স্ত্রীর সঙ্গে ছাড়াছাড়ি হয় বাবুর। পরে ফেরদৌসীর সহায়তায় একই কোম্পানিতে চাকরি নেন বাবু। কিন্তু বিচ্ছেদের ঘটনায় ফেরদৌসীকেই দায়ী মনে করেন তিনি। আর এ প্রতিশোধ নিতেই হত্যার পরিকল্পনা।

 

পরিকল্পনা অনুযায়ী বুধবার সন্ধ্যায় ইনস্যুরেন্সের টাকা দেওয়ার কথা বলে মোবাইল ফোনে ফেরদৌসীকে ডাকেন বাবুর বন্ধু জাহিদুল। ফোন পেয়ে মেয়ে তাসমিয়াকে নিয়ে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের দেশীপাড়া এলাকায় যান ফেরদৌসী। সেখানে যেতেই তাকে ধারালো ছুরি দিয়ে গলা কাটেন জাহিদুল ও বাবু। মাকে রক্তাক্ত দেখে চিৎকার করলে মেয়েকেও গলা কেটে হত্যা করেন তারা। দুটি খুন করতে তারা সময় নেন মাত্র ৩০-৪০ সেকেন্ড। এরপর তারা মোটরসাইকেলে পালিয়ে যান।

বুধবার রাতে দেশীপাড়া এলাকায় সড়কের পাশে মা-মেয়ের লাশ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেন এক কেয়ারটেকার। পরে লাশ দুটি উদ্ধার করে পুলিশ।

 

নিহতরা হলেন- গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার জাঙ্গালীয়া ইউনিয়নের বড়াইয়া গ্রামের বাছির উদ্দিন বছুর মেয়ে ফেরদৌসী আক্তার ও তার চার বছর বয়সী মেয়ে তাসমিয়া আক্তার। ফেরদৌসী স্থানীয় চান্দনা চৌরাস্তার এলাকার গার্ডিয়ান লাইফ ইনস্যুরেন্স লিমিটেডের মাঠকর্মী হিসেবে কাজ করতেন।

-খবর প্রতিদিন/ সি.বা


আরও খবর



তৃতীয় ধাপে ইউনিয়ন নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষ, চলছে গণনা

প্রকাশিত:Sunday ২৮ November ২০২১ | হালনাগাদ:Wednesday ০৮ December ২০২১ | ১৫৬জন দেখেছেন
ডেস্ক এডিটর

Image


 

দেশের ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের তৃতীয় ধাপে এবং ১০ পৌরসভায় ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। এখন চলছে ভোট গণনা।

তৃতীয় ধাপের এ ভোটগ্রহণ রোববার সকাল ৮টায় শুরু হয়ে বিরতিহীনভাবে চলে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। এবার ৩৩টি ইউপিতে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম), বাকিগুলোতে ব্যালট পেপারের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ করা হয়েছে।

সুষ্ঠুভাবে ভোটগ্রহণ উপলক্ষে সতর্ক অবস্থায় ছিল আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। এছাড়া প্রতিটি ইউপিতে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করছেন।

সারাদেশে তৃতীয় ধাপে ইউপি নির্বাচনে ১০১ জন চেয়ারম্যান বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। চেয়ারম্যান ছাড়াও সাধারণ সদস্য পদে ৩৩৭ জন ও সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ১৩২ প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

ইসি সূত্রে জানা যায়, তৃতীয় ধাপের নির্বাচনে মোট ভোটার সংখ্যা ২ কোটি ১ লাখ ৪৯ হাজার ২৭৮ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ কোটি ২ লাখ ১৫ হাজার ৪২৩ জন, মহিলা ভোটার ৯৯ লাখ ৩২ হাজার ৫৩৮ জন এবং হিজড়া ভোটার ১৯ জন। এই ধাপের নির্বাচনে ভোটকেন্দ্রের সংখ্যা ১০ হাজার ১৫৯টি এবং ভোটকক্ষের সংখ্যা ৬১টি হাজার ৮৩০টি।

-খবর প্রতিদিন/ সি.বা 


আরও খবর



নাসিরনগরে খেলনার প্রলোভনে শিশুকে যৌন নির্যাতনের ঘটনায় গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:Friday ০৩ December ২০২১ | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ December ২০২১ | ১০২জন দেখেছেন
Image


মোঃ আব্দুল হান্নান,

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার ভলাকূট ইউনিয়নে ৭ বছরের শিশুর সাথে যৌন নির্যাতনের ঘটনা ঘঠেছে।

ওই ঘটনায় শিশুর  মা সালেহা বেগম বাদী হয়ে নাসিরনগর থানায় একটি এজাহার দায়ের করলে। অভিযুক্ত হাকিম মিয়া (৩০)কে আটক করে পুলিশ। 

এজাহার ও ভুক্তভোগীর পরিবারের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ২৯ নভেম্বর  সাড়ে ৪ ঘটিকার সময় ভলাকূট নদীর তীরে মেলায় ঘুরতে যায় ওই শিশু। এসময় একই গ্রামের হাকিম মিয়া শিশুকে খেলনা কিনে দেয়ার কথা বলে নৌকাতে করে নদীর অপর পাড়ে নিয়ে যায়।

সেখানে নিয়ে ওই শিশুকে যৌন নির্যাতনের পর মেলাতে রেখে পালিয়ে যায় হাকিম। 

পরে শিশুটির কান্নাকাটিতে আশেপাশের লোকজন এসে শিশুটিকে বাড়িতে নিয়ে যায়। তখন ওই শিশুর বায়ু পথে রক্তক্ষরণ হলে চিকিৎসার জন্য প্রথমে নাসিরনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে জেলা সদর হাসপতালে ভর্তি করা হয়।

বর্তমানে ওই শিশু জেলা সদর হাসপতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

মামলার বাদী ও ভিকটিমের মা সালেহা বেগম বলেন,, আমার ভিকটিম  বর্তমানে হাসপতালে ভর্তি আছে।

আমাদেন বিভিন্নভাবে চাপ প্রয়োগ করা হচ্ছে।

আমরা ওই ঘটনার সুষ্ঠ বিচার চাই।

নাসিরনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ  হাবিবুল্লা সরকার বলেন,আমরা  ১ জনকে গ্রেফতার করেছি।

তার বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা হবে বলে ও জানান এ কর্মকর্তা।


-খবর প্রতিদিন/ সি.বা 


আরও খবর



দলীয় মনোনয়ন পেয়েও সরে দাড়ালেন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান বাহালুল

কুমিল্লায় নৌকা পেয়েও সরে দাড়ালেন বাহালুল, প্রাথমিক সদস্য না হয়েও মনোনীত নূরুল!

প্রকাশিত:Sunday ২৮ November ২০২১ | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ December ২০২১ | ১৬৬জন দেখেছেন
Image


মাহফুজ বাবু :

 

কুমিল্লায় চতুর্থ ধাপের ইউপি নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন পেয়েও সরে দাড়ালেন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান বাহালুল, অপর দিকে স্থানীয় আওয়ামী লীগের সাধারণ সদস্য পদ না থাকলেও দলীয় ভাবে মনোনীত হয়েছেন সিআইপি নূরুল ইসলাম।

 

আদর্শ সদর উপজেলার পাঁচথুবি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতিকের প্রার্থী ইকবাল হোসেন বাহালুল নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েন। আসন্ন নির্বাচনে তিনি অংশ নেবেন না বলেও ঘোষণা দিয়েছেন।

 

মনোনীত হওয়ার পর এ নিয়ে চেয়ারম্যান বাহালুল তার ব্যক্তিগত ফেসবুক আইডিতে ২৪ নভেম্বর একটি স্টাটাস দেন এতে তিনি লেখেন আল্লাহ মেহেরবানিতে আমি দলীয় মনোনায়ন পেয়েছি তবে সংগঠন ও এম পি মহোদয় সিদ্ধান্তের বাহিরে কিছু করব না । আমি সবার কাছে ক্ষমা প্রার্থী

পরদিন ২৫ নভেম্বর আরেকটি পোস্ট করেন তার ফেসবুক আইডিতে তাতে লেখা নৌকা পেয়েছি, নৌকা উৎসর্গ করেছি, নেতার জন্য। এইটা তেমন বেশি কি নেতা ডেকে এনে চেযারম্যান করেছিল, না হলে হয়ত হতে পারতাম না।সকলে মেনে নাও নৌকার বিজয় হয়েছে,আমাদের হাতে। জয় বাংলা।

 

গত ২৫ নভেম্বর বৃহস্পতিবার মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ দিন হলেও তিনি তার মনোনয়ন পত্র জমা দেননি। এতে ঐ ইউনিয়নে একক প্রার্থী হিসেবে বিনা ভােটে নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন হাসান রফি রাজু। তিনি পাঁচথুবি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। জানা যায়, সদর উপজেলার ছয়টি ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) দলীয় কাউন্সিলের মাধ্যমে মনােনীত প্রার্থীদের তালিকা কেন্দ্রে পাঠায় উপজেলা আওয়ামী লীগ। কিন্তু সে তালিকায় ছিলেন না বর্তমান চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন বাহালুল। তার বদলে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাসান রফি রাজুর নাম কেন্দ্রে পাঠানো হয়। তবে তাকে মনোনয়ন না দিয়ে ইকবাল হোসেন বাহালুলকে মনোনয়ন দেওয়া হয়।

 

 এ বিষয়ে আওয়ামী লীগের মনােনয়ন পাওয়া ইকবাল হোসেন বাহালুল বলেন, দল আমাকে মনোনয়ন দিয়েছে, আমি নৌকা প্রতীক পেয়েছি। তারপরও নির্বাচন করব না। দলীয় শৃঙ্খলা বজায় রাখা সহ আমার নেতা ও কর্মীরদের স্বার্থে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

 মনোনয়ন পত্র জমা দেওয়া হাসান রফি রাজু বলেন, তৃণমূল আওয়ামী লীগ সম্মেলনের মাধ্যমে আমাকে নির্বাচিত করেছে তৃণমূল আওয়ামী লীগ যেহেতু আমাকে নির্বাচিত করেছে। তাই আমি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করব। শুনেছি, নৌকা প্রতীকের প্রার্থী নির্বাচন করবেন না। তাই আমি ছাড়া এই ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে আর কোনো প্রার্থী নেই।

 

এদিকে উপজেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে কেন্দ্রে পাঠানো ছয়জনের মধ্যে দলের মনােনয়ন পাননি তিন বারের নির্বাচিত ১নং কালিরবাজার ইউপি'র চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সেকান্দর আলী। এখানে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছে নুরুল ইসলাম। স্থানীয় আওয়ামী লীগের সদস্য পদ না থাকলেও গত বছর আওয়ামী লীগে যোগদানকারী প্রবাসী ব্যবসায়ী ও সিআইপি তিনি।

 

এবিষয়ে ১নং কালির বাজার ইউনিয়নের তিন বারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী আলহাজ্ব সেকান্দর আলী বলেন, কিছুদিন আগে ইউনিয়ন কাউন্সিলিংয়ে নেতৃবৃন্দের ভোটে আমি ৭০ভোট পাই, বিপরিতে নূরুল ইসলাম পান ১৬ ভোট। স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ এবং এলাকাবাসীর সেবায় দীর্ঘ ১৫ বছর নিজেকে উৎসর্গ করেছি। উন্নয়ন করেছি প্রতিটি গ্রামে। তবে কি কারনে এমনটা হয়েছে জানা নেই। দলীয় মনোনয়ন না পাওয়ায় নেতাকর্মীরা কিছুটা অবাক হয়েছেন অনেকে। তবে ইউনিয়নবাসী ও স্থানীয় নেতাকর্মীদের অনুরোধ রক্ষায় আমি অবশ্যই নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করবো। এবং আশাকরি সুষ্ঠ ভোটের মাধ্যমে বিশাল ব্যবধানের জয়লাভ করবো।

 

এদিকে দলীয় মনোনয়ন পেলেও এখনো ভোটের মাঠে ততটা সরব দেখা যায়নি আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী নূরুল ইসলামকে। মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করেও পাওয়া যয়নি তাকে। তবে তার নেতাকর্মীদের কয়েকজন জানান কৌশলে আগাচ্ছেন তিনি। নিরবে ভোটারদের মাঝে প্রচারণা চালাচ্ছেন তারা। আগামী ৫তারিখ প্রতিক বরাদ্দের পর আনুষ্ঠানিক ভাবে ভোটের মাঠে নামবেন তারা। 

 

আদর্শ সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী আবুল বাশার এ বিষয়ে বলেন, আমরা দলীয় প্রার্থী নির্বাচনে ছয়টি ইউপিতে সম্মেলন করেছি। সেখান থেকে নির্বাচিত ছয় জনের তালিকা কেন্দ্রে পাঠিয়েছি। তাদের মধ্যে চারজন নৌকা প্রতীক পেয়েছেন। দলীয় শৃঙ্খলা বজায় রাখতে বাকি দুজনের বিষয়ে সমন্বয়ের চেষ্টা করছি।

 

গত ২৬ নভেম্বর বৃহস্পতিবার সদর উপজেলা নির্বাচন কার্যালয়ে মনােনয়নপত্র জমা দিয়েছেন মোট ১৫ জন। জগন্নাথপুর ইউপিতে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী মামুনুর রশিদ, জসিম উদ্দিন তালুকদার, আবু বক্কর সিদ্দিক। দুর্গাপুর উত্তর ইউপিতে আওয়ামী লীগের মনােনীত প্রার্থী আবুল কালাম আজাদ, এয়াকুব আলী, দুর্গাপুর দক্ষিণ ইউপিতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আমিনুল হক, হুমায়ূন কবির, আমড়াতলী ইউপিতে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী কাজী মোজাম্মেল হক, কাজী নজরুল ইসলাম, রুবেল আহমেদ, কালিরবাজার ইউপিতে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী নূরুল ইসলাম ও সেকান্দর আলী, আব্দুল হক, কামাল হোসেনএবং পাঁচথুবি ইউপিতে হাসান রফি রাজু। আগামী ২৬ ডিসেম্বর চতুর্থ ধাপে এসকল ইউপিতে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

-খবর প্রতিদিন/ সি.বা 

নিউজ ট্যাগ: ইউপি নির্বাচন

আরও খবর