Logo
আজঃ Friday ১৯ August ২০২২
শিরোনাম
রূপগঞ্জে আবাসিকের অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন ডেমরায় প্যাকেজিং কারখানায় ভয়বহ অগ্নিকান্ড রূপগঞ্জে পুলিশের ভুয়া সাব-ইন্সপেক্টর গ্রেফতার রূপগঞ্জে সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ ॥ সভা সরাইলে সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ৭৭তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠিত। নারায়ণগঞ্জে পারিবারিক কলহে স্ত্রীকে পুতা দিয়ে আঘাত করে হত্যা,,স্বামী গ্রেপ্তার রূপগঞ্জ ইউএনও’র বিদায় সংবর্ধনা নাসিরনগরে স্বামীর পরকিয়ার,বলি ননদ ভাবীর বুলেটপানে আত্মহত্যা নাসিরনগরে জাতীয় শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭ তম শাহাদত বার্ষিকী পালিত ডেমরায় জাতীয় শোক দিবসের কর্মসুচি পালিত

আইভীর জন্য মাঠে আ.লীগ ‘ভিন্ন কৌশলে’ তৈমূর

প্রকাশিত:Friday ০৭ January ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ১৯ August ২০২২ | ৪০৭জন দেখেছেন
Image

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) নির্বাচনে মেয়র পদে লড়ছেন সাতজন। তাদের মধ্যে আওয়ামী লীগের ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী এবং স্বতন্ত্র তৈমূর আলম খন্দকারের মধ্যেই মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে- বলছেন স্থানীয়রা। মাঠেও এ দুই প্রার্থীকে সমানতালে প্রচারে দেখা যাচ্ছে। এ দুই হেভিওয়েট প্রার্থীকে নিয়ে সিটিতে চলছে এখন আলাপ-আলোচনা। আগামীতে কে হচ্ছেন এই সিটির মেয়র, তারই অপেক্ষায় রয়েছেন নারায়ণগঞ্জের প্রায় সোয়া পাঁচ লাখ ভোটার।

নৌকার প্রার্থী ডা. আইভীকে জেতাতে মাঠে নেমেছেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির নেতারা। তারা বিভিন্ন সময় নারায়ণগঞ্জে এসে সভাসমাবেশও করছেন। তাদের নির্দেশনায় নারায়ণগঞ্জ আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ কাজ করছেন। অন্যদিকে স্বতন্ত্র মেয়র পদপ্রার্থী তৈমূর আলমের প্রচার চলছে ভিন্ন কৌশলে। তার পাশে নেই বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ। উপরন্তু একের পর এক দলীয় পদবি থেকে অব্যাহতি দেওয়া হচ্ছে তাকে। নির্বাচনী প্রচারে দেখা যাচ্ছে না নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির শীর্ষ কোনো নেতাকেও। রাজনীতি পর্যবেক্ষকরা বলছেন, যেহেতু বিএনপি বলছে- এই সরকার ও নির্বাচন কমিশনের অধীনে তারা কোনো নির্বাচনে অংশ নেবে না। তাই ভিন্ন কৌশল অবলম্বন করে তৈমূর আলমকে সুযোগ করে দিয়েছেন তারা।

ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর পক্ষে সবচেয়ে বড় সমাবেশটি হয়েছিল ২৪ ডিসেম্বর নারায়ণগঞ্জের শেখ রাসেল পার্কে। বিজয় সমাবেশের ব্যানারে ওই সমাবেশটি হলেও অনেকেই বলছেন- এটি আইভীর নির্বাচনী সমাবেশ। বিশাল ওই জনসমাবেশে ছিলেন কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ এবং নারায়ণগঞ্জের আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতারা। তবে ছিলেন না নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ শামীম ওসমান। এর পর নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে বেশ কয়েকটি সভা করেছেন কেন্দ্রীয় নেতারা। এ ছাড়া যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃবৃন্দও নারায়ণগঞ্জে বিভিন্ন সময় আইভীর নির্বাচন ঘিরে সমাবেশ করেছে। সর্বশেষ কর্মী-সমাবেশ হয়েছে সিদ্ধিরগঞ্জে গত বুধবার।

এদিকে তৈমূরকে একের পর এক দলীয় পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। গত ২৬ ডিসেম্বর নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক ও ৩ জানুয়ারি বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পদ থেকে তাকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। সবশেষ গত বুধবার জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্যপদ থেকেও তাকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। ফোরামের দপ্তরের দায়িত্বে থাকা সদস্য আব্দুল্লাহ আল মাহবুব স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। কেন একের পর এক পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হচ্ছে, তা জানতে গতকাল তৈমূর আলমকে ফোন করা হলে তিনি রিসিভ করেননি।

গতকাল সিদ্ধিরগঞ্জ এবং বন্দরে প্রচার চালান আইভী ও তৈমূর। আইভী প্রচার চালান সিদ্ধিরগঞ্জের ১০নং ওয়ার্ডে এবং বন্দরের ২৫নং ওয়ার্ডে। অন্য তৈমূর সিদ্ধিরগঞ্জের ৭ ও ৮নং ওয়ার্ডে প্রচার চালান। ডা. আইভী তার অসমাপ্ত কাজগুলো সমাপ্ত করার জন্য সুযোগ চান। পক্ষান্তরে তৈমূর আলম বিভিন্ন পরিকল্পনার কথা জানান।


আরও খবর



কালো শাড়িতে দ্যুতি ছড়ালেন শ্রাবন্তী

প্রকাশিত:Tuesday ০৯ August ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ১৯ August ২০২২ | ৭৩জন দেখেছেন
Image

টলিউড অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায় রিলের বাইরে রিয়েল লাইফেও বেশ চর্চিত। শোবিজ অঙ্গনে সবসময় নিজেকে আলোচনায় তো রাখেনই, খবরের শিরোনামও হন হরহামেশা। এবার কালো শাড়িতে সৌন্দর্যের দ্যুতি আর শরীরী আবেদন ছড়িয়েছেন লাস্যময়ী এ অভিনেত্রী।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নতুন কয়েকটি ছবি পোস্ট করেছেন শ্রাবন্তী। যেখানে তাকে স্লিভলেস ব্লাউজ, কালো শাড়িতে রূপালি পাথরের কাজ আর গলায় বড় নেকলেস পরা অবস্থায় দেখা গেছে। 

নায়িকার এ পোস্টের নিচে এরইমধ্যে রিঅ্যাকশন আর মন্তব্যের ঝড় উঠেছে। ভক্তদের অনেকে তাকে সৌন্দর্যের প্রতিমূর্তি রূপে বর্ণনা করছেন। অনেকে নিজেদের মতো করে কমেন্ট বক্সে নায়িকার উদ্দেশে মুগ্ধতা ছড়াচ্ছেন।

ব্যক্তিগত জীবনের একের পর এক বিয়ে আর ডিভোর্সই যেন শ্রাবন্তীকে শোবিজপাড়ায় আলোচনার কেন্দ্রে রেখেছে। গত ফেব্রুয়ারিতে নতুন প্রেমিক অভিরূপ নাগচৌধুরীর হাত ধরে দুবাইতে তার প্রমোদ ভ্রমণের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলোর খবর, গত বছর মার্চ মাস থেকে শ্রাবন্তী ও অভিরূপ ডেট করছেন।

২০০৩ সালে নির্মাতা রাজীব বিশ্বাসকে বিয়ে করেন শ্রাবন্তী। তাদের একমাত্র সন্তান অভিমূন্যও এরইমধ্যে পছন্দের সঙ্গিনী খুঁজে নিয়েছেন বলে জানা যায়। ২০১৬ সালে প্রথম ঘর ভাঙার পর ওই বছরই মডেল কৃষাণ ব্রজের সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধেন অভিনেত্রী। বছর না পেরুতেই ভাঙে নায়িকার দ্বিতীয় সংসার। এরপর ২০১৯ সালে এয়ারলাইন্সের কেবিন ক্রু সুপারভাইজার রোশান সিংকে বিয়ে করেন শ্রাবন্তী। তার সে ঘরেও এরইমধ্যে ফাটল ধরেছে।

তবে অভিরূপের সঙ্গে নয়া সম্পর্ককে স্রেফ বন্ধুত্ব বলে সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে দাবি বলেন শ্রাবন্তী।


আরও খবর



দাবি না মানলে মঙ্গলবার ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক অবরোধ

প্রকাশিত:Saturday ১৩ August ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ১৯ August ২০২২ | ২৫জন দেখেছেন
Image

দৈনিক মজুরি বৃদ্ধির দাবি ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে না মানলে ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক অবরোধের ঘোষণা দিয়েছে হবিগঞ্জের চা শ্রমিক ইউনিয়ন।

শনিবার (১৩ আগস্ট) বিকেলে বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক নৃপেন পাল।

তিনি বলেন, ‘ধর্মঘট ও সমাবেশের পর বিকেলে শ্রমিকরা ফির গেছে। আমাদের আন্দোলন চলতে থাকবে। রোববার ও সোমবার ছুটির দিন হওয়ায় শ্রমিকরা যার যার মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করবে। তবে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে যদি দাবি মানা না হয় তবে মঙ্গলবার আমরা ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক অবরোধ করবো।’

বালিশিরী ভ্যালির চা শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি সুভাষ দাশ বলেন, ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে আমাদের দাবি মানতে হবে। অন্যথায় আমরা মঙ্গলবার থেকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক অবরোধ করবো। সে পর্যন্ত আমাদের কাজ বন্ধ থাকবে। কোনো শ্রমিক কাজে যোগ দেবে না। বিক্ষোভ, সমাবেশ ও মানববন্ধন চলবে।’

দীর্ঘদিন ধরে দৈনিক ১২০ টাকা মজুরিতে কাজ করছেন জেলার ২৪টি চা বাগানের শ্রমিকরা। বর্তমান দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির বাজারে এ টাকা অত্যন্ত অপ্রতুল। তাই মজুরি ৩০০ টাকা করার দাবিতে ৯ আগস্ট থেকে ১১ আগস্ট পর্যন্ত তারা দৈনিক দুই ঘণ্টা করে কর্মবিরতি পালন করেন। কিন্তু এতে কোনো সমাধান না হওয়ায় শনিবার থেকে টানা ধর্মঘটের ডাক দেন তারা। বেলা ১১টা থেকে তারা আন্দোলনে নামেন।

বাহুবল উপজেলার কামাইছড়া চা বাগানে জড়ো হতে থাকেন বিভিন্ন বাগানের শ্রমিকরা। এ সময় তারা বিক্ষোভ মিছিল করেন। এক পর্যায়ে শ্রমিকরা ঢাকা-মৌলভীবাজার মহাসড়ক অবরোধ করেন। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত শ্রমিকরা আন্দোলন থেকে সরে আসবেন না বলে জানান।

অপরদিকে বাহুবল উপজেলা সদরে আরও কয়েকটি বাগানের শ্রমিকরা উপজেলা পরিষদের সামনে রাস্তা অবরোধ করে সমাবেশ করেন। এতে একাত্মতা প্রকাশ করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই, সাবেক সভাপতি আব্দুল কাদির চৌধুরী, উপজেলা চেয়ারম্যান সৈয়দ খলিলুর রহমান প্রমুখ।


আরও খবর



প্রতিষ্ঠানের কর্মক্ষমতা বাড়াতে এইচআর সফটওয়্যার

প্রকাশিত:Tuesday ০২ August 2০২2 | হালনাগাদ:Friday ১৯ August ২০২২ | ২৯জন দেখেছেন
Image

কর্মক্ষেত্রে কর্মচারীদের নিয়ন্ত্রণ, কাজের ধরন এবং উপস্থিতি দেখভালসহ মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনার কাজগুলো এখন টেকনোলজির মাধ্যমে খুব সহজে চলে এসেছে মুঠোফোনের ভেতরেই। এইচআরএম সফটওয়্যার নিয়ে সফলভাবে কাজ করছে দেশের অনেক প্রতিষ্ঠান। এতে খরচ কমছে প্রতিষ্ঠানগুলোর। সহজ হচ্ছে মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনা। বাড়ছে প্রতিষ্ঠানের কর্মকক্ষমতাও।

দেশে হিউম্যান রিসোর্স ম্যানেজমেন্টের একটি প্রতিষ্ঠান পাই এইচআর। আধুনিক সব সুবিধা সম্বলিত এ সফটওয়্যারের মাধ্যমে কোনো অফিসের এইচআর ম্যানেজার খুব সহজেই তার কর্মীদের উপস্থিতি, বেতন-বোনাস, ট্যাক্সের হিসাব, ট্র্যাকিংসহ সব কিছু করতে পারবেন।

পাই এইচআরের হেড অব বিজনেস দিবাকর সাহা দীপ বলেন, ‘বর্তমানে সব এইচআর এবং অ্যাডমিন ম্যানেজারই স্মার্ট। তারা চান কম সময়ে যেন কর্মীদের থেকে বেস্ট আউটপুট বের করে আনা যায়। তা করতে এইচআরএম সফটওয়্যারের কোনো বিকল্প নেই। এ অ্যাপ ব্যবহারে একটি কোম্পানির কর্মক্ষমতা অনেকাংশে বেড়ে যায়।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের এ সিস্টেম বেশ স্মার্ট। কোনো একজন কর্মী অফিসে ঢুকলেই স্বয়ংক্রিয়ভাবে তার অ্যাটেনডেন্স নেওয়া হয়। তাই সারাদেশে যাদের মাল্টিপল ব্র্যাঞ্চ বা আউটলেট আছে, তারা এ সিস্টেম নিতে বেশি আগ্রহ দেখাচ্ছেন। কম্পিউটারে লগইন করে সারাদেশের সব ডাটা এক সেকেন্ডেই দেখা যায়।’

দিবাকর বলেন, ‘বর্তমানে স্টার্ট আপ, ক্ষুদ্র এবং মাঝারি উদ্যোক্তা, কর্পোরেট অফিস, মাল্টিন্যাশনাল কোম্পানি, ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি, মাল্টি চেইন আউটলেট এবং রেস্টুরেন্ট এ সিস্টেম ব্যবহার করছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘৪৫টিরও বেশি রিপোর্ট দেখা যায় এ সফটওয়্যার ব্যবহার করে। মাত্র ২ হাজার টাকা থেকে শুরু করে অনেকগুলো প্যাকেজ আছে। বড়-ছোট সব ধরনের কোম্পানির সুবিধার জন্য আছে ভিন্ন ভিন্ন প্যাকেজ। দেশের বাইরেও সাপোর্ট দিচ্ছে পাই এইচআর। এরই মধ্যেই আড়াই শতাধিক কোম্পানিতে এ সফটওয়্যার ব্যবহার করা হচ্ছে।’


আরও খবর



মৎস্য ঘেরে মিললো স্কুলছাত্রীর মরদেহ

প্রকাশিত:Monday ০৮ August ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ১৬ August ২০২২ | ৩০জন দেখেছেন
Image

যশোরের অভয়নগরে মৎস্য ঘের থেকে নাইমা (৮) নামের এক শিশুর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রোববার (৭ আগস্ট) গভীর রাতে উপজেলার বালিয়াডাঙ্গা গ্রামের কামালের মৎস্য ঘের থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

নাইমা উপজেলার বালিয়াডাঙ্গা গ্রামের মনিরুল ইসলামের মেয়ে। সে বালিয়াডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২য় শ্রেণির ছাত্রী।

অভয়নগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একেএম শামিম হাসান জানান, বিকেলে বাড়ি থেকে বের হয় নাইমা। এরপর থেকে সে নিখোঁজ। রাতে ১১টার দিকে এলাকাবাসী জনৈক শফি কামালের মৎস্য ঘেরে কচুরিপানা দিয়ে ঢাকা নাইমার মরদেহ দেখতে পান। পরে খবর দিলে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে।

তিনি বলেন, ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ যশোর জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন।


আরও খবর



সাভারে একদিকে উচ্ছেদ, অন্যদিকে চলছে গ্যাস সংযোগ

প্রকাশিত:Friday ০৫ August ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১৭ August ২০২২ | ৪৭জন দেখেছেন
Image

সপ্তাহে দুই থেকে তিন দিন তিতাসের অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হলেও স্থায়ী সমাধান মিলছে না। একদিকে উচ্ছেদ করলেও অন্য দিকে আবারও অবৈধ সংযোগ দিচ্ছে অসাধু ঠিকাদাররা। নিয়মিত তদারকি, মামলা আর জরিমানায়ও ঠেকানো যাচ্ছে না তাদের। যদিও তিতাস বলছেন আরও কঠোর হচ্ছেন তারা।

সরেজমিনে জানা যায়, কয়েকদিন আগে আশুলিয়ার কাঠগড়া এলাকায় অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে তিতাস। সে সময় পাঁচশ আবাসিক সংযোগ ও দুই কিলোমিটার সংযোগ কেটে দেওয়া হয়। এ অভিযানে ২-১ জনকে জরিমানা করলেও অধিকাংশ অবৈধ গ্রাহকদের বিরুদ্ধে নেওয়া হয়নি কোন পদক্ষেপ।

অবৈধ সংযোগকারী আমজাদ হোসেন বলেন, গ্যাস না থাকলে কলোনিগুলোতে শ্রমিকরা থাকতে চান না। তাই বাধ্য হয়েই অবৈধ সংযোগ নিতে হচ্ছে। একবার সংযোগ দিলে ৬-৭ মাস নিশ্চিতে কাটানো যায়।

তিনি বলেন, জরিমানা ২০ হাজার টাকা দিয়েছি একবার। পরে আর জরিমানা হয়নি। অনেকের নামে মামলাও হয়েছে তারা জামিন নিয়ে আসেন। তেমন ঝামেলা নেই। তবে গ্যাস না থাকলে শ্রমিক কলোনিগুলোর রুম ফাঁকা থাকে। তাই ঝামেলা সহ্য করেই অবৈধ সংযোগ নিচ্ছি।

jagonews24

শুধু আশুলিয়া কাঠগড়ার এ এলাকায় নয়, পুকুর পাড়, শ্রীপুর, জামগড়া, নরসিংহপুর, নিশ্চিতপুর, জিরাবো এলাকায় একই অবস্থা। দিনের আলোয় তিতাস অবৈধ বিচ্ছিন্ন করলেও রাতের আধারে অসাধু ঠিকাদাররা পুনরায় সংযোগ স্থাপন করে দেন। বিনিময়ে হাতিয়ে নেন মোটা অঙ্কের অর্থ।

তিতাস গ্যাস অ্যান্ড ট্রান্সমিশন ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানির ম্যানেজার আবু সাদাৎ মোহাম্মদ সায়েম মোল্লার বলেন, প্রতিটি সপ্তাহে অভিযান চালানো হচ্ছে। কোথাও স্থায়ী সমাধান পেলেও অনেক জায়গায় উল্টো। সচেতনতা ছাড়া এ সংকট সমাধান সম্ভব নয়। অবৈধ সংযোগ নেওয়া গ্রাহকদের বিরুদ্ধে জরিমানা করছি। মামলা দিচ্ছি তবুও সফলতা আসছে না।

তিনি আরও বলেন, জরিমানার পরও থামানো যাচ্ছে না সংযোগ। তাই আরও কঠোর হবেন তিতাস গ্যাস অ্যান্ড ট্রান্সমিশন ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি। যা নিয়ে এরমধ্যে আলোচনা চলছে।


আরও খবর