Logo
আজঃ শনিবার ২৫ মে ২০২৪
শিরোনাম

আইপিএল ফাইনাল দেখতে ভারত যাচ্ছেন পাপন

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৫ মে ২০২৩ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | ২৫৪জন দেখেছেন

Image

স্পোর্টস ডেস্ক:এবারের আইপিএলে ডাক পেয়েছিলেন তিন বাংলাদেশি ক্রিকেটার। তার মধ্যে মোস্তাফিজুর রহমান ও লিটন দাস খেললেও কোনো ম্যাচ না খেলে যৌথ সম্মতিতে নাম প্রত্যাহার করে নেন সাকিব আল হাসান। যদিও পারফরম্যান্সে হতাশ করেছেন এই দুই তারকা।

দিল্লি ক্যাপিটালসের হয়ে মাত্র ২ ম্যাচ খেলেছেন মোস্তাফিজ, উইকেট নিয়েছেন একটি। আর কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে মাত্র ১ ম্যাচে সুযোগ পেয়েছেন লিটন। ৪ রানেই শেষ হয় উইকেটকিপার এই ব্যাটসম্যানের যাত্রা।

আগামী ২৮ মে আহমেদাবাদের নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়ামে হতে যাচ্ছে আইপিএলের চলতি আসরের ফাইনাল। সেই ম্যাচে কোনো বাংলাদেশি ক্রিকেটার না থাকলেও যাচ্ছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। ভারতীয় ক্রিকেট সংস্থা (বিসিসিআই) ও এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল (এসিসি) সভাপতি জয় শাহর আমন্ত্রণেই ভারত যাচ্ছেন পাপন।

মূলত, পাপন যাচ্ছেন আসন্ন এশিয়া কাপে ভেন্যু নির্ধারণ সংক্রান্ত আলোচনায়। জয় শাহ সেই বৈঠকে আরও আমন্ত্রণ জানিয়েছেন, শ্রীলংকা এবং আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতিকেও।

পিটিআইকে জয় শাহ বলেছেন, ‘এশিয়া কাপ আয়োজনের বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত এখনো হয়নি। আমরা আইপিএল নিয়ে ব্যস্ত। আইপিএলের ফাইনাল দেখতে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট (এসএলসি), বাংলাদেশ (বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন) ও আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতিরা আসছেন। সেখানে আমরা একটি আলোচনা করব এবং যথাসময়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেব।


আরও খবর



হাতে লেখা বিশ্বের সর্ববৃহৎ আল-কুরআনের মোড়ক উন্মোচন করেন ধর্মমন্ত্রী

প্রকাশিত:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | ৩৬জন দেখেছেন

Image
লিয়াকত হোসাইন লায়ন,জামালপুর থেকে:হাতে লেখা বিশ্বের সর্ববৃহৎ পবিত্র আল-কুরআনের মোড়ক উন্মোচন করা হয়েছে। ২৩মে বৃহস্পতিবার বিকেলে ঢাকায় জাতীয় প্রেসক্লাবে আব্দুস সালাম হলে মোড়ক উন্মোচন করেন ধর্মমন্ত্রী মোঃ ফরিদুল হক খান ।

ধর্মমন্ত্রী বলেন, বিশ্বে আমাদের ব্যতিক্রমী বেশকিছু পরিচয় রয়েছে। সারাবিশ্বে আমরাই একমাত্র জাতি যারা মায়ের ভাষার জন্য প্রাণ উৎসর্গ করেছি। আমরা দেশ মাতৃকার মুক্তির জন্য ৩০ লাখ প্রাণ বিসর্জন দিয়েছি। স্বাধীনতার ৫৩ বছরে উন্নয়ন ও উৎপাদনের বিভিন্ন সূচকে বিশ্বের ১০টি দেশের মধ্যে স্থান করে নিয়েছি। হাতে লেখা পৃথিবীর সর্ববৃহৎ পবিত্র কুরআন শরীফ নিঃসন্দেহে একটি ব্যতিক্রমী উদ্যোগ। প্রতিটি ইতিবাচক ও ব্যতিক্রমী উদ্যোগই দেশ-জাতির জন্য সম্মান বয়ে আনে। আজকের এই মহতী কাজটিও দেশের জন্য সম্মান বয়ে আনবে। 

ধর্মমন্ত্রী আরো বলেন, বর্তমান সরকার ইসলাম ও মুসলমানদের খেদমতে নিবেদিত হয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। সর্বকালের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ইসলামিক ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে এদেশে ইসলাম প্রচার ও প্রসারের দ্বার উন্মোচন করে গেছেন। তাঁর সেই পথ অনুসরণ করেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইসলামের খেদমত করে যাচ্ছেন। সম্পূর্ন সরকারি অর্থায়নে ৯ হাজার ৪৩৫ কোটি টাকা ব্যয়ে ৫৬৪টি মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র স্থাপন করা হচ্ছে। ইতোমধ্যে ৩০০ টির নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেগুলোর উদ্বোধন করেছেন। এটিও মুসলিম বিশ্বে একটি ব্যতিক্রমী ও অনন্য নজির। তিনি আয়োজক সংস্থার দাবী যাচাই-বাছাই করে তাদের কাজে যথাযথ মূল্যায়ন ও স্বীকৃতি দেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট সংস্থাকে অনুরোধ জানান।

হাফেজ আবদুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে জাতীয় হৃদরোগ ইনষ্টিটিউট ও হাসপাতাল জামে মসজিদের ইমাম ও খতিব মাওলানা মোহাম্মদ কামাল হোসেন, ক্বারী শায়েখ আহমদ বিন ইউসুফ আল আজহারী, হাতে লেখা পৃথিবীর সর্ববৃহৎ পবিত্র আল-কুরআন প্রদর্শন আয়োজক কমিটির সভাপতি স. ম. ইফতেখার মাহমুদ বক্তব্য প্রদান করেন। 

উল্লেখ্য, হাতে লেখা পৃথিবীর সর্ববৃহৎ পবিত্র আল-কুরআন প্রদর্শন আয়োজক কমিটি রচিত এই আল-কুরআনের দৈর্ঘ্য ও প্রস্থ যথাক্রমে ১৪ ফুট ও ১২ ফুট। এতে মোট ২০০টি পৃষ্ঠা রয়েছে। এর ওজন প্রায় ৮০০ কেজি। হাতে তৈরি বাঁশের কলম ও দোয়াত কালি দিয়ে এটি লেখা হয়েছে।

আরও খবর



ডেমরায় মহান মে দিবস উপলক্ষে ইমারত নির্মাণ শ্রমিক ইউনিয়ন বাংলাদেশ এর শোভাযাত্রা

প্রকাশিত:বুধবার ০১ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৩ মে ২০২৪ | ১৩৯জন দেখেছেন

Image

মুশফিকুর রহমানঃ

মহান মে দিবস উপলক্ষে রাজধানীর ডেমরায় ইমারত নির্মাণ শ্রমিক ইউনিয়ন বাংলাদেশ (ইনসাব) এর উদ্যোগে কর্মসূচি পালিত হয়েছে। বুধবার ১লা মে সকালে ডেমরা থানার কোনাপাড়া ফার্মের মোড় এলাকা থেকে দিবসটি পালন উপলক্ষে সংগঠনের পক্ষ থেকে শ্রমিকদের নিয়ে শোভাযাত্রা আয়োজন করা হয়। শোভাযাত্রায় অংশগ্রহণ করেন ইমারত নির্মান শ্রমিক ইউনিয়ন বাংলাদেশ (ইনসাব) ডেমরা থানা কমিটির কার্য্যকরি সভাপতি মোহাম্মদ শরীফ হোসেন। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডেমরা থানা জাতীয় শ্রমিক লীগের সভাপতি মোঃ কামাল হোসেন তারেক।এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ইমারত নির্মাণ শ্রমিক ইউনিয়ন (ইনসাব) এর ৬৪নং ওয়ার্ড কমিটির সভাপতি রাসেল,নবী হোসেন স্বপন সহ ডেমরা থানার অন্তর্ভুক্ত বিভিন্ন ওয়ার্ড ও ইউনিট কমিটির নেতৃবৃন্দ। মহান মে দিবসের এই শোভাযাত্রা ও মিছিলটি   ফার্মের মোড় থেকে কোনাপাড়া প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। এরপর কোনাপাড়া বাস স্ট্যান্ডে এক সংক্ষিপ্ত শ্রমিক সমাবেশে মহান মে দিবস উপলক্ষে শ্রমিকদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন নেতৃবৃন্দ। 


এদিকে মহান মে দিবস উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী দিয়েছেন। বাণীতে বাংলাদেশসহ বিশ্বের সব শ্রমজীবী মানুষকে শুভেচ্ছা জানিয়ে মো. সাহাবুদ্দিন বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আজীবন মেহনতি মানুষের অধিকার আদায়ের জন্য সংগ্রাম করেছেন।তিনি ছিলেন শ্রমজীবী মানুষের অকৃত্রিম বন্ধু। স্বাধীনতার পর মে দিবস রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি পায় এবং জাতির পিতা মে দিবসে সরকারি ছুটি ঘোষণা করেন। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু শ্রমিকদের ন্যায্য অধিকার নিশ্চিত করতে মজুরি কমিশন গঠন করেন এবং তিনি শ্রমিকদের জন্যও নতুন বেতন কাঠামো ঘোষণা করেন।


তীব্র দাবদাহ উপেক্ষা করেও ইমারত নির্মাণ শ্রমিক ইউনিয়নের (ইনসাব)এর কর্মসূচিতে বিভিন্ন ওয়ার্ড থেকে শ্রমিকদের  অংশগ্রহণ করায় কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করা হয়। 



আরও খবর



মাগুরায় হত্যা মামলার প্রতিবাদে ডাক্তারদের প্রতিবাদ সমাবেশ ও স্মারকলিপি পেশ!

প্রকাশিত:বুধবার ০১ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৪ মে 20২৪ | ৯১জন দেখেছেন

Image
স্টাফ রিপোর্টার মাগুরা থেকে:মাগুরায় ৪ ডাক্তারের  বিরুদ্ধে মিথ্যা হত্যা মামলা ও হয়রানির প্রতিবাদে, প্রতিবাদ সমাবেশ ও স্মারকলিপি পেশ কর্মসূচি পালন করেছেন মাগুরা জেলায় কর্মরত ডাক্তার সমাজ।মঙ্গলবার ৩০ এপ্রিল বেলা ১১.৩০ টার সময়ে মাগুরা জেলা পুলিশ সুপার ও দুপুর ২.৩০ টার সময়ে  জেলা প্রশাসক বরাবরে বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশন (বিএমএ) এর আয়োজনে প্রতিবাদ সমাবেশ ও স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। 

স্মারকলিপিতে  মাগুরা জেলার নিম্নস্বাক্ষরিত সর্বস্তরের চিকিৎসকবৃন্দ, সিজারিয়ান অপারেশনের পরে একজন প্রসূতি মায়ের মৃত্যু সংক্রান্ত ঘটনায় আমাদের কয়েকজন চিকিৎসকের বিরুদ্ধে দায়ের করা সাম্প্রতিক মামলা (ধারা: 304 (Part-2)/34, The Penal Code, 1860;] সম্পর্কে  গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে জানান হয়

গত ৪ এপ্রিল ২০২৪ ইং প্রসূতি শায়লা রহমান সেতুকে পরিবারের লোকজন মাগুরা শহরের লাইফ কেয়ার ক্লিনিকে গাইনি বিশেষজ্ঞ ডা. জাফরিন আক্তারের নিকট আনেন এবং জরুরি সিজার অপারেশনের জন্য অনুরোধ করেন এবং অপারেশনের সম্ভাব্য জটিলতা সম্পর্কে পূর্ণ অবহিত হয়ে লিখিতভাবে সম্মতি দেন। সেই মোতাবেক এনেস্থেটিস্ট ডা. অরুণ কান্তি ঘোষ-এর সহায়তায় ডা. জাফরিন আক্তার যথাযথভাবে অপারেশন সম্পন্ন করেন। পরদিন ভোর অনুমান ৬টায় রোগির জটিলতা (PPH) দেখা দিলে রোগীকে মাগুরা ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয় এবং সেখানে সার্জারি বিশেষজ্ঞ ডা. শফিউর রহমানের তত্ত্বাবধানে হাসপাতালের চিকিৎসকদল পুনরায় অপারেশন করেন। মাগুরা ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে আইসিইউ না থাকায় অপারেশনের পর আইসিইউ-এর প্রয়োজনে রোগিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়। কিন্তু রোগির স্বজনরা তাকে ঢাকার বেসরকারি পপুলার হাসপাতালে ভর্তি করান, যেখানে ৫ এপ্রিল রাত ১০-৩৬ মিনিটে বিভিন্ন জটিলতায় রোগি মৃত্যুবরণ করেন (ডেথ সার্টিফিকেট সংযুক্ত)। 

সমাজের দায়িত্বশীল প্রতিনিধি হিসাবে এই অনাকাঙ্খিত মৃত্যুর ঘটনায় আমরা রোগীর পরিবারের শোক অনুধাবন করি। কিন্তু আমরা বিশ্বাস কবি যে, এই মামলায় ডাক্তারদের বিরুদ্ধে নর হত্যার অভিযোগ কেবল উদ্দেশ্য প্রণোদিতই নয় বরং ভয়ঙ্কর বানোয়াট এবং সত্যের ভুল উপস্থাপনা।

আরও খবর



পার্বত্য চট্টগ্রামের বন ঝুঁকিপূর্ণ সংরক্ষণের জন্য এর জরিপ করা প্রয়োজন: পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩০ এপ্রিল ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৩ মে ২০২৪ | ১১১জন দেখেছেন

Image
জসীম উদ্দিন জয়নাল,পার্বত্যাঞ্চল প্রতিনিধি:পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি বলেছেন, পার্বত্য চট্টগ্রামের বন ঝুঁকিপূর্ণ! বর্তমানে পার্বত্য অঞ্চলের বন সংরক্ষণের জন্য জরিপ করা প্রয়োজন। বৃক্ষ নিধন রোধ ও এর সংরক্ষণ করা না হলে পার্বত্য অঞ্চলের অপার সৌন্দর্য্য একদিন রূপকথায় পরিণত হবে।  

গতকাল খাগড়াছড়ি জেলা সদরের পর্যটন মোটেল অডিটোরিয়ামে দ্বিতীয় জাতীয় বৃক্ষ ও বন জরিপ-২০২৪ অবহিতকরণ সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি এ কথা বলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি আরও বলেন, পার্বত্য অঞ্চলে পানির প্রবাহ ও লেয়ার যেভাবে কমে যাচ্ছে তাতে করে এমন এক সময় আসবে যেদিন পার্বত্য অঞ্চলে পানির ভীষণ ঘাটতি দেখা দিবে। তিনি বলেন, চেঙ্গী নদী, মাতামুহুরী ও মনু নদী একসময় পানির প্রচুর প্রবাহ ছিল। কিন্তু এখন পানির শূন্যতা দেখা দিয়েছে। নদীর নাব্যতা ও গভীরতা নেই বললেই চলে। নাগরিক হিসেবে আমাদের দায়িত্ব বেড়েছে। নির্বিচারে গাছ কাটা বন্ধ করতে হবে। নব উদ্ভাবিত প্রযুক্তি নতুন প্রজন্মের কাছে ছড়িয়ে দিতে হবে। প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি বলেন, সরকারের বিশেষ উদ্যোগ ও দৃষ্টিভঙ্গি জনস্বার্থে চলমান থাকবেই। নাগরিক হিসেবে পরিবেশের সৌন্দর্য্য রক্ষায় সরকারের পাশাপাশি আমাদেরও অনেক দায়িত্ব রয়েছে। আমাদের দায়িত্ববোধের অবহেলা যাতে না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। বিশেষ করে ডোবা-নালা ভরাট করে যাতে বাড়ি ঘর বা ফসলী জমি না গড়া হয় সেদিকে বিশেষ নজর রাখতে হবে। প্রতিমন্ত্রী বলেন, ভবিষ্যত প্রজন্মকে রক্ষা করতে আমাদের এখনই সচেতন হতে হবে। আগামির প্রজন্মের জন্য একটি সুন্দর পরিবেশ গড়ে তুলতে হবে।

  পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি বলেন, বন সংরক্ষণের জন্য তৈরি করা জোনগুলোর ব্যবহার যাতে সঠিক ও অক্ষুন্ন থাকে সেদিকে সকলের সতর্ক দৃষ্টি থাকতে হবে। বনাঞ্চলের বৃক্ষ, বন ও বনজ সম্পদের পরিমাণ নির্ধারণ করা এবং বনাঞ্চলে কি কি প্রাণি রয়েছে তা নির্ণয় ও সংরক্ষণের প্রয়োজনে বন জরিপের প্রয়োজনীয়তা অনেক বেশি। একটি দেশের জন্য ২৫ ভাগ বন থাকা প্রয়োজন। সে জায়গায় আমরা পৌঁছাতে পারলাম কি না তা জানার জন্যও বন জরিপের গুরুত্ব অপরিসীম বলে জানান পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি।

অবহিতকরণ সভায় রাঙ্গামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের জাতীয় পরামর্শক ও ফরেস্ট্রি এন্ড এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স বিভাগের বিভাগীয় চেয়ারম্যান ড. নিখিল চাকমা প্রজেক্টরের সাহায্যে বাংলাদেশসহ পার্বত্য অঞ্চলে জোনিং পদ্ধতিতে বৃক্ষ ও বন সংরক্ষণের চিত্র তুলে ধরেন। 

খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য নিলোৎপল খীসা-এর সভাপতিত্বে  খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসক মো. সহিদুজ্জামান, খাগড়াছড়ি পুলিশ সুপার মুক্তা ধর, পিপিএম(বার)  খাগড়াছড়ি পৌর মেয়র নির্মলেন্দু চৌধুরী, খাগড়াছড়ি বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মো. ফরিদ মিঞা, বন সংরক্ষণ কর্মকর্তা সাহেদুজ্জামান উপস্থিত ছিলেন।

আরও খবর



গলাচিপায় বকনা বাছুর বিতরণ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৬ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | ১১৫জন দেখেছেন

Image

রিয়াদ হোসাইন গলাচিপা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি:‘নিরাপদ মাছে ভরবো দেশ, গড়বো স্মার্ট বাংলাদেশ’ প্রতিপাদ্যের আলোকে পটুয়াখালীর গলাচিপায় ২০২৩-২০২৪ অর্থ বছরে ‘ইলিশ সম্পদ উন্নয়ন ও ব্যবস্থাপনা প্রকল্প’ (প্রথম সংশোধিত) এর আওতায় বিকল্প কর্মসংস্থানের উপকরণ হিসাবে নিবন্ধিত সুফলভোগী জেলেদের মাঝে ৩২টি বকনা বাছুর বিতরণ করা হয়েছে। এই অর্থ বছরে উপজেলায় পর্যায়ক্রমে ১০৬টি বকনা বাছুর সুফলভোগী জেলেদের মাঝে বিতরণ করা হবে।

উপজেলা মৎস্য অধিদপ্তরের আয়োজনে বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় উপজেলা সিনিয়র মৎস্য অফিসারের কার্যালয়ের হল রুমে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে জেলেদের মাঝে এসব বকনা বাছুর বিতরণ করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মহিউদ্দিন আল হেলাল। বিশেষ অতিথি ছিলেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. নাসিম রেজা।  

উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মো. জহিরুন্নবীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আরজু আক্তার, উপজেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা ডা. সজল দাস, গলাচিপা থানার ওসি তদন্ত মোকাম্মেল হক, উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা মো. অলিউল ইসলাম প্রমুখ। এ ছাড়া সরকারী কর্মকর্তা, সাংবাদিক ও সুফলভোগী জেলেরা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর