Logo
আজঃ সোমবার ২৪ জুন 20২৪
শিরোনাম
মতিউর ও তার স্ত্রী-সন্তানদের বিদেশ যেতে নিষেধাজ্ঞা তরুণরাই বদলে যাওয়া বাংলাদেশকে এগিয়ে নেবে: প্রধানমন্ত্রী নতুন সেনাপ্রধানের বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন ভূয়া সৈনিক পরিচয়ে বিয়ে করে শশুড় বাড়ী শিকলবন্দী জামাই! খাগড়াছড়িতে পুনাক কমপ্লেক্স এর উদ্বোধন করলেন: পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল এিপুরা হিজবুল্লাহর সঙ্গে যুদ্ধ বাধলে ইসরায়েলকে সমর্থন দেবে যুক্তরাষ্ট্র হজ চলাকালীন ১৩০১ জন হজযাত্রীর মৃত্যু: সৌদি আরব সেতু ভেঙ্গে নয়জন নিহতের ঘটনায় দুইটি তদন্ত কমিটি গঠন, মাইক্রোবাস উদ্ধার বর ও কনের বাড়ীতে শোকের মাতম রাশিয়ায় বন্দুকধারীদের ভয়াবহ হামলায় ১৫ পুলিশ সদস্য নিহত

৬ দফার নিষিদ্ধকারীরা ১৫ই আগস্টের খুনের সঙ্গে জড়িত: ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৭ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১৪৮জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের দাবি করেছেন,৭৫-এর পর যারা ছয় দফাকে নিষিদ্ধ করেছিল তারা ১৫ই আগস্টের সঙ্গে জড়িত বলে।

ঐতিহাসিক ছয় দফা দিবস উপলক্ষ্যে শুক্রবার (৭ জুন) সকালে ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে তিনি এ কথা বলেন।

সেতুমন্ত্রী বলেন, ছয় দফা না হলে ৬৯-এর গণঅভ্যুত্থান হতো কি না সেটিই হলো বড় কথা। এই ছয় দফা আমাদের ইতিহাসের বাক পরিবর্তন করেছে। ৭৫-এর পর ৭ জুন ও ৭ মার্চ এসব দিবসকে নিষিদ্ধ করে দেওয়া হয়। যারা নিষিদ্ধ করে দেয়, তারা ৭৫-এর খুনের সঙ্গে জড়িত। তারা শুধু বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেনি, তারা হত্যা করতে চেয়েছিল আমাদের মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে, আমাদের স্বাধীনতার আদর্শকে। সেই জন্য বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে জয় বাংলা, ৭ মার্চ এবং ৭ জুন নির্বাসিত হয়ে যায়।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ছয় দফা বাস্তবায়নে বঙ্গবন্ধুর যে আহ্বান, তারই সাথে ৭ জুনের হরতালে বেশ কয়েকজন শ্রমিক নেতা নিহত হন। ছয় দফা হচ্ছে স্বাধীনতা আন্দোলনের মাইলফলক। ছয় দফার ভিত্তিতে ১১ দফা আন্দোলন শুরু করে ছাত্রসমাজ। ৬৫’তে পাক-ভারত যুদ্ধে পূর্ব বাংলার কোনো নিরাপত্তা ছিল না। পূর্ব বাংলাকে রক্ষা করার কোনো ব্যবস্থা ছিল না। সেই কারণে ছয় দফার প্রয়োজন বেশি ছিল।


আরও খবর



সারাদেশে মে মাসে ধর্ষণের শিকার ৬২ জন

প্রকাশিত:সোমবার ০৩ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১১৩জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:মে মাসে সারাদেশে ২৪৩ জন নারী ও কন্যাশিশু নির্যাতনের শিকার হয়েছে। এর মধ্যে ধর্ষণের শিকার হয়েছে ৬২ জন। এমন তথ্য জানিয়েছে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ।

রোববার (২ জুন) সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মালেকা বানু স্বাক্ষরিত এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

দেশের বহুল প্রচারিত ১৩টি জাতীয় দৈনিক পত্রিকা বিশ্লেষণের মাধ্যমে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের লিগ্যাল এইড উপ-পরিষদ প্রতি মাসে এই প্রতিবেদন প্রকাশ করে থাকে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চলতি বছরের মে মাসে নারী ও কন্যাশিশুসহ মোট ২৪৩ জন নির্যাতনের শিকার হয়েছে। এর মধ্যে ধর্ষণের শিকার হয়েছে ৪০ কন্যাসহ ৬২ জন। তার মধ্যে ১২ কন্যাসহ ২০ জন হয়েছে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার। ২ কন্যাকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে। ১ জন ধর্ষণের কারণে আত্মহত্যা করেছে এবং ৩ কন্যাসহ ৭ জনকে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছে। যৌন নিপীড়নের শিকার হয়েছে ২২ কন্যাসহ ২৩ জন। উত্ত্যক্তকরণের শিকার হয়েছে ৬ কন্যাসহ ৭ জন। এর মধ্যে ১ কন্যা উত্ত্যক্তকরণের কারণে আত্মহত্যাও করেছে।

প্রতিবেদনের তথ্য বলছে, এই সময়ে নারী ও কন্যা পাচারের ঘটনা ঘটেছে ২টি। অগ্নিদগ্ধের শিকার হয়েছে ২ জন, এর মধ্যে ১ জনের অগ্নিদগ্ধের কারণে মৃত্যু হয়েছে। যৌতুকের কারণে নির্যাতনের শিকার হয়েছে ৫ জন, এর মধ্যে ২ জনকে যৌতুকের কারণে হত্যা করা হয়েছে। শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়েছে ১১ জন, এরমধ্যে ২ জন কন্যা। পারিবারিক সহিংতায় শারীরিক নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে ৩টি। ১ কন্যা গৃহকর্মী নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, বিভিন্ন কারণে ৭ কন্যাসহ ৪৬ জনকে হত্যা করা হয়েছে। এছাড়াও ৪ জনকে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। ৩ কন্যাসহ ২২ জনের রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। ৫ কন্যাসহ ২০ জনের আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে। এরমধ্যে ১ কন্যা আত্মহত্যার প্ররোচনার শিকার হয়েছে। ৩ কন্যাসহ ৪ জন অপহরণের শিকার এবং ১ কন্যাকে অপহরণের চেষ্টার ঘটনা ঘটেছে। ৩ কন্যাসহ ৪ জন সাইবার ক্রাইমের শিকার হয়েছে। বাল্যবিবাহের ঘটনা ঘটেছে ২টি। বাল্যবিবাহের ঘটনা প্রতিরোধ করা হয়েছে ৫টি।

এ ছাড়া ৫ কন্যাসহ ১২ জন নারী বিভিন্নভাবে নির্যাতনের শিকার হয়েছে বলেও উল্লেখ করা হয়।


আরও খবর



মোদির শপথ : শুক্রবার নয়, শনিবার দিল্লি যাচ্ছেন শেখ হাসিনা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২২ জুন ২০২৪ | ১০৮জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:নরেন্দ্র মোদীর টানা তৃতীয়বারের মতো ভারতের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান হওয়ার কথা ছিল শনিবার। এ উপলক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শুক্রবার ভারত যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু শপথ অনুষ্ঠান শনিবার নয় রোববার হবে। এজন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শুক্রবার নয় শনিবার দিল্লি যাচ্ছেন বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

বৃহস্পতিবার (৬ জুন) সংসদে ২০২৪-২৫ অর্থবছরের বাজেট পেশ অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ তথ্য জানান।

এর আগে সকালে প্রধানমন্ত্রী প্রেস উইং থেকে জানানো হয়, নরেন্দ্র মোদির আমন্ত্রণে তার মন্ত্রী পরিষদের শপথ অনুষ্ঠানে যোগ দিতে শুক্রবার (৭ জুন) ভারতে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তবে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি বৃহস্পতিবার এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, শনিবারের বদলে পরদিন রোববার (৯ জুন) সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেবেন মোদি।


আরও খবর



মাগুরা জেলা আইন শৃংখলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:রবিবার ০৯ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৮৩জন দেখেছেন

Image

স্টাফ রিপোর্টার মাগুরা থেকে:মাগুরা জেলা আইন শৃংখলা কমিটির সভা রবিবার সকালে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আবু নাসের বেগ সভায় সভাপতিত্ব করেন। সভায় জেলার সার্বিক আইন শৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করেন পুলিশ সুপার মোঃ মশিউদৌলা রেজা, মাগুরা সদর উপজেলা পরিষদের  নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান রানা আমীর ওসমান,  মাগুরা মম

সসরকারি মহিলা কলেজের সহযোগী অধ্যাপক কাজী কল্লোল,অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সার্বিক প্রশান্ত কুমার বিশ্বাস, কমান্ডেন্ট আনসার ভিডিপি চন্দন দেবনাথ, বিভিন্ন রাজনৈতিক সামাজিক নেতৃবৃন্দ। বক্তরা জেলার আইন শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার ব্যাপারে সংশ্লিষ্ঠ কতৃপক্ষের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের প্রতি গুরুত্ব আরোপ করা হয়। সভায় জেলার আইন শৃংখলা পরিস্থিতি যে কোনমূল্যে স্বাভাবিক রাখার দৃড় প্রত্যয় ব্যক্ত করা হয়।

আরও খবর



দেশজুড়ে এনার্জিপ্যাকের জ্যাক সার্ভিস ক্যাম্পেইন চালু

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৮ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২২ জুন ২০২৪ | ১০৬জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:আজ (২৮ মে) থেকে দেশজুড়ে মাসব্যাপী জ্যাক সার্ভিস ক্যাম্পেইন চালু করলো এনার্জিপ্যাক পাওয়ার জেনারেশন পিএলসি (ইপিজিপিএলসি)। ঢাকার মিরপুরে জ্যাক সার্ভিস সেন্টারে প্রতিষ্ঠানটির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে এক উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ক্যাম্পেইনটি চালু করা হয়।

জ্যাক সার্ভিস ক্যাম্পেইনে গ্রাহকরা পুরো গাড়ি ফ্রি চেকআপ করানোর সুযোগ পাবেন। একইসাথে, খুচরা যন্ত্রাংশে ও স্পেয়ার পার্টসে বিশেষ ছাড় উপভোগ করতে পারবেন। পাশাপাশি, ক্যাম্পেইন চলাকালে আগামী ৩০ দিনের জন্য সার্ভিস বুকিং কুপন পাওয়া যাবে, যেখানে থাকছে স্পেয়ার পার্টস ও সার্ভিস চার্জের ক্ষেত্রে বিশেষ ছাড় পাওয়ার সুবর্ণ সুযোগ। এছাড়া, ক্যাম্পেইন থেকে যেকোনো সেবা নেয়া গ্রাহকের জন্য থাকছে বিশেষ পুরস্কার ও অন্যান্য আকর্ষণীয় অফার।

আকর্ষণীয় এই ক্যাম্পেইনটির উন্মোচন করেন এনার্জিপ্যাক পাওয়ার জেনারেশন পিএলসি’র ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। উন্মোচন অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথিদের পাশাপাশি, এনার্জিপ্যাকের পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন মোটর ভেহিকেল ডিভিশন এর চিফ বিজনেস অফিসার এস এম জসীম উদ্দিন।

এ বিষয়ে এস এম জসীম উদ্দিন বলেন, “গ্রাহকদের জন্য সর্বোচ্চ সহযোগিতা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে দেশব্যাপী জ্যাক সার্ভিস ক্যাম্পেইন নিয়ে আসতে পেরে এনার্জিপ্যাক অত্যন্ত উচ্ছ্বসিত। জ্যাক মোটরস এর সাথে আমাদের অংশীদারিত্ব এবং বিশ্বমানের পণ্য ও সেবা নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে আমাদের ধারাবাহিক প্রচেষ্টা দেশের পরিবহণ খাতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে।

আগামীতেও এ ধরনের ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে গ্রাহকদের অভিজ্ঞতা আরও উন্নত করার চেষ্টা অব্যাহত থাকবে।”


আরও খবর



ধানের রাজ্য আত্রাইয়ে গাছে গাছে শোভা পাচ্ছে কাঁঠাল

প্রকাশিত:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১২৯জন দেখেছেন

Image

নাজমুল হক নাহিদ, আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি:উত্তর জনপদের ধানের রাজ্য হিসেবে খ্যাত নওগাঁর আত্রাইয়ে গাছে গাছে শোভা পাচ্ছে মধু মাস জ্যৈষ্ঠের বেশ জনপ্রিয় পুষ্টিগুণ সম্পন্ন রসালো ফল কাঁঠাল। যদিও কাঁঠাল পাকতে সময় বাকি রয়েছে আরও প্রায় মাস।

প্রবাদ আছে ‘গাছে কাঁঠাল গোঁফে তেল’- জ্যৈষ্ঠ মাসে এ কথাটি আর কথার কথা থাকে না। গাছে কাঁঠাল দেখলে এ কথা সবাই বলতেই পারে। বর্তমানে উপজেলার প্রতিটি এলাকার গাছে গাছে শোভা পাচ্ছে রসালো ফল কাঁঠাল। উপজেলার বিভিন্ন এলাকার বাড়ির পাশে, রাস্তার ধারে, জঙ্গলের ভেতরে থাকা গাছে ধরেছে প্রচুর পরিমাণে কাঁঠাল। গাছের গোঁড়া থেকে আগা পর্যন্ত শোভা পাচ্ছে সর্বোচ্চ পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ এই ফল।

খাদ্য শষ্য ভান্ডার হিসেবে নওগাঁ জেলা বিখ্যাত হলেও এখানকার মানুষের অতি প্রিয় ফল ও তরকারি হিসেবে কাঁঠাল যুগ যুগ ধরে কদর পেয়ে আসছে। কাঁঠালের বিচি উপজেলার মানুষের একটি ঐতিহ্যপূর্ণ তরকারি। বিশেষ করে কাঠালের বিচি দিয়ে শুটকি ভর্তা অত্যন্ত প্রিয় সকলের। বিভিন্ন ধরনের শাক ও কাঁঠালের বিচির সমন্বয়ে রান্না করা তরকারি এখানকার মানুষ তৃপ্তির সঙ্গে ভাত খেতে পারেন। তাছাড়া গবাদিপশুর জন্যও কাঁঠালের ছাল উন্নতমানের গো-খাদ্য হিসেবে ব্যবহৃত হয়। এক প্রকারের সবুজ রঙের সুমিষ্ট গ্রীষ্মকালীন ফল।

এটি বাংলাদেশের জাতীয় ফল হিসেবে সরকারিভাবে নির্ধারিত। বাংলাদেশের সর্বত্র কাঁঠাল গাছ পরিদৃষ্ট হয়। কাঁঠাল গাছের কাঠ আসবাবপত্র তৈরির জন্য সমাদৃত। কাঁঠাল পাতা বিভিন্ন প্রাণির পছন্দের খাদ্য। তুলনামূলকভাবে বিশালাকার এই ফলের বহির্ভাগ পুরু এবং কান্টকাকীর্ণ, অন্যদিকে অন্তরভাগে একটি কান্ড ঘিরে থাকে অসংখ্য রসালো কোয়া। কাঁঠালের বৃহদাকার বীজ কোয়ার অভ্যন্তরভাগে অবস্থিত।

উপজেলার ভবানীপুর গ্রামের ব্যবসায়ী খন্দকার রফিকুল ইসলাম বলেন, তার ২০টি কাঁঠাল গাছে সমানতালে কাঁঠাল ধরেছে। তিনি এবার ৫০ হাজার টাকার কাঁঠাল বিক্রি করবেন বলে আশা করছেন। এ বছর প্রাকৃতিক দুর্যোগের কবলে না পড়ায় কাঁঠালের ভালো ফলন হয়েছে।

 উপজেলার দিঘা গ্রামের কামরুল জানান, আমার নিজের ১০টি কাঁঠাল গাছ আছে। তার গাছে প্রচুর কাঁঠাল ধরেছে। এ বছর তার কাঁঠাল বিক্রির আশা ৩০ হাজার টাকা।

এ বিষয়ে উপজেলার বজ্রপুর গ্রামের মজিদ মন্ডল বলেন, কাঁঠাল আমার একটি প্রিয় ফল। এটি অত্যধিক পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ ফল। কাঁঠালের কোনো অংশই পরিত্যক্ত থাকে না। কাঁঠাল যেমন জনপ্রিয়, কাঁঠালের বিচি ও খুব জনপ্রিয় খাবার। বিভিন্ন সবজির সাথে কাঁঠালের বিচি মিশিয়ে ছোট মাছ দিয়ে রান্না করা তরকারি, শুটকি মাছের সাথে কাঁঠালের বিচি আর ডাঁটার তরকারি, কাঁঠালের বিচি ভর্তা এ রকম অসাধারণ সব স্বাদের খাবার তৈরিতে কাঁঠাল বিচি আলুর বিকল্প হিসেবে ব্যবহার করা হয়। কাঁঠালের কদরও বহুগুণের এমন কথা জানালেন কাঁঠালপ্রেমি প্রবীণ ব্যক্তিরাও। বহুগুণ সমৃদ্ধ এ কাঁঠাল এখানকার হাট-বাজারে এখনও উঠতে শুরু করেনি। তবে জ্যৈষ্ঠের শেষ ও আষাঢ় মাসের শুরু থেকে এখানকার হাট-বাজারে কাঁঠাল কেনাবেচা শুরু হবে এমনটি কাঁঠাল ব্যবসায়ীদের ধারণা।

এ ব্যাপারে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ প্রসেনজিৎ তালুকদার বলেন, এ উপজেলায় তেমন একটা কাঁঠালের বাগান নেই তবে দিন দিন বাড়ছে।

তিনি আরও বলেন, গত বছরের তুলনায় এ বছর উপজেলায় কাঁঠাল ভালো হয়েছে। দিন দিন উপজেলার মানুষের মাঝে কাঁঠালের চারা রোপনের আগ্রহ বাড়ছে। 

তবে এ উপজেলায় কাঁঠাল প্রক্রিয়াজাত করার কোনো ব্যবস্থা না থাকায় কৃষকরা তাদের ন্যায্য দাম থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। অবিলম্বে অত্র এলাকায় একটি কাঁঠাল প্রক্রিয়াজাত ব্যবস্থা গড়ে তুললে এ উপজেলার মানুষ অর্থনৈতিকভাবে উপকৃত হবে বলে মনে করছেন এলাকার সচেতন মহল।


আরও খবর