Logo
আজঃ শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪
শিরোনাম

১৩ দিন মাঠে থাকবে সেনাবাহিনী

প্রকাশিত:সোমবার ১১ ডিসেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ১৭৪জন দেখেছেন

Image

মারুফ সরকার,স্টাফ রির্পোটার:আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন খুব সন্নিকতে । আর এই নির্বাচন উপলক্ষে সারা দেশের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে আগামী ২৯ ডিসেম্বর থেকে ১০ জানুয়ারি, এই ১৩ দিন মাঠে থাকবে সেনাবাহিনী।

সোমবার (১১ ডিসেম্বর) সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়েছেন সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার লেফটেন্যান্ট জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামান।

এদিন সন্ধ্যা ৭টায় আগারগাঁও নির্বাচন ভবনের সভাকক্ষে নির্বাচনে সেনা মোতায়েন সংক্রান্ত বিষয়ে সেনাবাহিনীর প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসারের সঙ্গে বৈঠকে বসে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। বৈঠকে অংশ নেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আওয়াল। এ বৈঠকের পরই নির্বাচনে সেনা মোতায়েনের ঘোষণা এলো।


আরও খবর



রাজধানীতে এলডিপির কালো পতাকা মিছিল

প্রকাশিত:শনিবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১৫৪জন দেখেছেন

Image
মারুফ সরকার, স্টাফ রিপোর্টার : দ্রব্যমূল্যের সীমাহীন উর্ধ্বগতি, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াসহ সকল রাজবন্দীদের মুক্তি, সকল মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও অবৈধ সংসদ বাতিলসহ ১ দফা দাবী আদায়ে রাজধানীতে কালো পতাকা মিছিল করেছে লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিপি)।
 
শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে রাজধানীর পল্টন মোড় থেকে মিছিলটি শুরু হয়। নাইটিঙ্গেল, বিজয়নগর, পল্টন হয়ে প্রেস ক্লাবের সামনে এসে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়।

এলডিপির প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. নেয়ামুল বশিরের নেতৃত্বে মিছিলে উপস্থিত ছিলেন উপদেষ্টা অধ্যক্ষ মাহবুবুর রহমান, যুগ্ম মহাসচিব বিল্লাল হোসেন মিয়াজি, আইন সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবুল হাশেম, প্রচার সম্পাদক অ্যাডভোকেট নিলু, প্রকাশনা সম্পাদক মেহেদী হাসান মাহবুব, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আলী আজগর বাবু, সহদপ্তর ওমর ফারুক সুমন, ঢাকা মহানগর উত্তর এলডিপির সাধারণ সম্পাদক অবাক হোসেন রনি, মহানগর পূর্বের সভাপতি সোলায়মান, দক্ষিণের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, গণতান্ত্রিক যুবদলের সভাপতি আমান সোবহান, গণতান্ত্রিক আইনজীবী ফোরামের সভাপতি অ্যাডভোকেট নূরে আলম, গণতান্ত্রিক শ্রমিক দলের সভাপতি এফএমএ আল মামুন, গণতান্ত্রিক স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি খালিদ বিন জসিম, গণতান্ত্রিক ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক কাজী কামরুল হাসান।

সংক্ষিপ্ত সমাবেশে এলডিপির প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. নেয়ামুল বশির বলেন, এ সরকার ডামি সরকার। এরা জনবিচ্ছিন্ন। জনগণ এ সরকারের ওপর অনাস্থা দিয়েছে। এ সরকার অবৈধ সরকার। জনগণের ভোট ছাড়া কেউ বৈধ হতে পারে না। যারা জনগণের ভোটে নির্বাচিত নয় তারা কি করে সংসদে বসে? এই ডামি নির্বাচন কারও কাছে গ্রহণযোগ্য হয়নি। তাই অতি দ্রুত আলোচনার মাধ্যমে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিন।

আরও খবর

আজ রংপুরের স্থপতি আফিফার সাথে ফারাজের বিয়ে

শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




মিরসরাইয়ে ঝর্না থেকে পড়ে মেডিকেল ছাত্র নিহত

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৬৩জন দেখেছেন

Image

এম আনোয়ার হোসেন, মিরসরাই (চট্টগ্রাম)প্রতিনিধি:মিরসরাইয়ে ঝর্না থেকে পড়ে আল শাহরিয়ার আনাস (২২) নামে মেডিকেল কলেজের এক ছাত্র নিহত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে উপজেলার খৈয়াছড়া ঝর্না থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। আনাস শহীদ এম মনসুর আলী মেডিকেল কলেজের ১ম বর্ষের ছাত্র। তিনি চুয়াডাঙ্গা জেলার আলমডাঙ্গা পৌরসভার বাবুপাড়া খন্দকার আব্দুল্লাহ আল মামুনের ছেলে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার সকালে ঢাকা থেকে শাহরিয়ারসহ তার ৭ বন্ধু খৈইয়াছড়া ঝর্নায় যায়। ঝর্নার ওপর থেকে নামার সময় পা পিছলে নিচে পড়ে যান শাহরিয়ার। পরবর্তীতে খবর পেয়ে তাকে উদ্ধারের জন্য মিরসরাই ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের অভিযান শুরু করে। বিকেলে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

শাহরিয়ারের বন্ধু অভিজিৎ জানান, ‘আমরা ৭ বন্ধু বৃহস্পতিবার সকালে খৈয়াছড়া ঝর্না দেখতে যাই। ঝর্না দেখা শেষে আসার পথে দ্বিতীয় ঝর্নার কূপে আমরা গোসল করতে নামি। কিন্তু শাহরিয়ার নামবে না বলে আগে চলে আসে। পরে আমরা প্রথম ঝর্নায় এসে তাকে দেখতে না পেয়ে খোঁজ করতে থাকি। মোবাইলে কল দিলেও সংযোগ পাচ্ছিলাম না।

পরে আরো কয়েকজন পর্যটকের সহযোগিতায় ফায়ার সার্ভিসকে খবর দিলে তারা এসে কূপ থেকে তার লাশ উদ্ধার করে।’ তিনি আরো বলেন, ‘খুব কষ্ট লাগছে শাহরিয়ারের জন্য। সবাই একসাথে ঘুরতে আসলাম, এখন তাকে মৃত নিতে হবে।’ মিরসরাই ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশন কর্মকর্তা ইমাম হোসেন পাটোয়ারী জানান, খবর পেয়ে খৈয়াছড়া ঝর্নার কূপ থেকে লাশ উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়েছে। ধারণা করছি ছেলেটি পা পিছলে নিচে পড়ে মারা গেছে।

মিরসরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে দায়িত্বরত ডা. এরশাদ উল্ল্যাহ বলেন, ‘ঝর্নার উপর থেকে পড়ে যাওয়া একজনকে বৃহস্পতিবার বিকেলে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছে। তাকে হাসপাতালে আনার পূর্বেই সে মারা গেছে।’মিরসরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সহিদুল ইসলাম বলেন, নিহত মেডিকেল কলেজ ছাত্রের লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। পরিবারকে খবর দেওয়ার পর তারা এখানে আসছে। পরিবারের লোকজন এলে তারপর পরবর্তী আইনী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।


আরও খবর



যশোরের পল্লীতে যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

প্রকাশিত:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৫৩জন দেখেছেন

Image

ইয়ানূর রহমান শার্শা,যশোর প্রতিনিধি:যশোরের নোয়াপাড়ায় যুবলীগ নেতা মুরাদ হোসেনকে দুবৃত্তরা কুপিয়ে হত্যা করেছে । রোববার (১১ ফেব্রুয়ারি) রাত ১১ টায় অভয়নগর উপজেলার নওয়াপাড়া বেঙ্গল মিল গেট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

মুরাদকে হত্যার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন অভয়নগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)এস এম আকিকুল ইসলাম। নিহত মুরাদ হোসেন নওয়াপাড়া পৌরসভার ৪ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক।

নিহতের ভাই ফরহাদ রেজা জানায়, রোববার রাতে নওয়াপাড়া বাজার থেকে মুরাদ বাড়ির দিকে হেঁটে যাচ্ছিলেন। পথে কবরস্থানের কাছে গেলে আগে থেকে ওত পেতে থাকা সন্ত্রাসীরা তার ওপর হামলা করে ধারালো অস্ত্র দিয়ে মারাত্মক জখম করে মুরাদকে। তিনি বলেন, তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় প্রথমে অভয়নগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়।

পরে সেখান থেকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। হাসপাতালে নেওয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতর স্ত্রী ঋতু বেগম বলেন, আমার স্বামীকে যারা হত্যা করেছে তাদের আমি ফাঁসি চাই। অভয়নগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আকিকুল ইসলাম বলেন,এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতারের জন্য পুলিশ মাঠে রয়েছে।


আরও খবর



"ভারত-বাংলাদেশ মিয়ানমার ইস্যুতে একযোগে কাজ করবে"

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১০৩জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ জানিয়েছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এস জয়শঙ্করের সঙ্গে মিয়ানমারের চলমান পরিস্থিতি নিয়ে একযোগে কাজ করার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে, বলে।

বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় দিল্লির হায়দরাবাদ হাউজে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এস জয়শঙ্করের সঙ্গে প্রথমে একান্ত ও পরে আনুষ্ঠানিক দ্বিপাক্ষীয় বৈঠক শেষে তিনি এ কথা বলেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেনে, বৈঠকে অত্যন্ত আন্তরিক পরিবেশে খোলামেলা ও বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। তিনি বলেন, সীমান্তে হত্যা নয় সৌহার্দ্য বজায় রাখা, আন্তঃদেশীয় যোগাযোগ বৃদ্ধিতে চট্টগ্রাম ও মংলা বন্দরকে ভারতের ব্যবহারের কার্যকর সূচনা, বিদ্যুৎ শক্তির উৎসজনিত সহায়তার বিষয়সমূহের পাশাপাশি রোহিঙ্গাদের পূর্ণ অধিকারসহ তাদের নিজ দেশ মিয়ানমারে প্রত্যাবাসন এবং মিয়ানমারের চলমান পরিস্থিতি নিয়ে একযোগে কাজ করার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে

পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা এবং ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে দু'দেশের পারস্পরিক সম্পর্ক যে নতুন উচ্চতায় উঠেছে, সেটিকে আরও ঘনিষ্ঠ ও গভীর করার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে।

আনুষ্ঠানিক বৈঠক পর্বে বাংলাদেশের হাইকমিশনার মো. মুস্তাফিজুর রহমান, ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব স্মিতা পান্ট এবং দু'দেশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



রাজনীতি থেকে পুরোদমে সরে দাড়াচ্ছেন মিমি চক্রবর্তী

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ৮৩জন দেখেছেন

Image

বিনোদন প্রতিনিধি:অভিনয়ের পাশাপাশি রাজনীতিতেও বেশ সরব ওপার বাংলার দর্শকপ্রিয় অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী। তৃণমূল কংগ্রেসের হয়ে সংসদ সদস্যও হয়েছেন এই অভিনেত্রী। তবে এবার রাজনীতি থেকে পুরোদমে সরে দাড়াচ্ছেন এই নায়িকা। ইতিমধ্যে সংসদ সদস্য (এমপি) পদে থাকতে না চেয়ে পদত্যাগপত্রও জমা দিয়েছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ও তৃণমূল কংগ্রেস প্রধান মমতা বন্দোপাধ্যায়ের কাছে পদত্যাগপত্র তুলে দেন মিমি। এ ছাড়া তিনি আর রাজনীতি করতে চান না বলেও জানিয়েছেন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়, বিধানসভায় মমতা বক্তব্য দেওয়ার সময় তার কক্ষে ঢোকেন মিমি। কিছুক্ষণ পর ওই কক্ষে ঢোকেন তৃণমূলের দুই তারকা বিধায়ক সোহম চক্রবর্তী ও জুন মালিয়া। বক্তব্য শেষ হলে নিজের কক্ষে যান মমতা। তারপর তিনি মিমি এবং বাকিদের সঙ্গে বৈঠক করেন।

বৈঠক থেকে বের হয়ে মিমি জানান, তিনি মুখ্যমন্ত্রী মমতার কাছে এমপি পদ থেকে পদত্যাগপত্র দিয়েছেন। তবে মমতা এখনও সেই পদত্যাগপত্র গ্রহণ করেননি। পশ্চিমবঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী পদত্যাগপত্র গ্রহণ করলে তিনি ভারতীয় লোকসভার স্পিকারের কাছে গিয়ে পদত্যাগপত্র দিয়ে আসবেন।

সম্প্রতি সংসদের দুটি স্ট্যান্ডিং কমিটির সদস্যপদ থেকে পদত্যাগ করেছে মিমি। সংসদের শিল্পবিষয়ক স্ট্যান্ডিং কমিটির সদস্য ছিলেন তিনি। ছিলেন কেন্দ্রীয় শক্তি মন্ত্রণালয় এবং নবীন ও পুনর্নবীকরণযোগ্য বিদ্যুৎ মন্ত্রণালয়ের যৌথ কমিটির সদস্যও। এই দুটি পদ থেকেই তিনি পদত্যাগ করেন।

এরপর জানা যায়, যাদবপুর লোকসভার অধীন নলমুড়ি এবং জিরানগাছা ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রের রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারপারসন পদও ছেড়ে দিয়েছেন মিমি। তারপর থেকেই তার রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ ঘিরে জল্পনা শুরু হয়।

প্রশ্ন উঠেছে, ২০২৪ সালে যাদবপুর থেকে আবারও কি প্রার্থী হবেন মিমি? নিজের ধারাবাহিক পদত্যাগ প্রসঙ্গে অবশ্য এর আগে তিনি মুখ খোলেননি।

মিমি বলেন, ‘আমার যা বলার ছিল, দিদিকে (মমতা) বলেছি। অনেকে বলছিলেন, আমি পরবর্তী টিকিট পাকা করার জন্য এটা করছি। কিন্তু আমি বিশ্বাস করি, রাজনীতি আমার জন্য নয়।’

এর ব্যাখ্যা দিয়ে অভিনেত্রী বলেন, ‘রাজনীতি করলে আমার মতো মানুষকে গালাগালি দেওয়ার লাইসেন্স পেয়ে যায় লোকে। মিমি চক্রবর্তী যদি খারাপ কিছু করত, সবার আগে শিরোনামে উঠে আসত। আমি জেনে জীবনে কারও কোনো ক্ষতি করিনি। আমি রাজনীতিক নই। কখনও রাজনীতিক হব না। সবসময় আমি মানুষের জন্য কর্মী হিসাবে কাজ করতে চেয়েছি। আমি অন্য দলের কারও বিরুদ্ধেও কখনো খারাপ কথা বলিনি।’

কিছুদিন আগে প্রায় একইভাবে রাজনীতি থেকে কিছুটা ‘দূরত্ব বৃদ্ধি’ করেছিলেন তৃণমূলের আরেক তারকা দেব। তিনিও একের পর এক প্রশাসনিক পদ থেকে পদত্যাগ করছিলেন। নিজের লোকসভা এলাকা ঘাটালের তিনটি প্রশাসনিক পদ— ঘাটাল কলেজ, ঘাটাল মহকুমা হাসপাতালের রোগী কল্যাণ সমিতি ও বীরসিংহ উন্নয়ন পর্ষদের চেয়ারম্যান পদ থেকে পদত্যাগ করেন দেব। যা দেখে জল্পনা শুরু হয়, দেব হয়ত রাজনীতি ছেড়ে দিচ্ছেন।

তবে মমতা এবং তার ভাতিজা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠকের পর মত বদলেছেন দেব।


আরও খবর