Logo
আজঃ সোমবার ২৪ জুন 20২৪
শিরোনাম
মতিউর ও তার স্ত্রী-সন্তানদের বিদেশ যেতে নিষেধাজ্ঞা তরুণরাই বদলে যাওয়া বাংলাদেশকে এগিয়ে নেবে: প্রধানমন্ত্রী নতুন সেনাপ্রধানের বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন ভূয়া সৈনিক পরিচয়ে বিয়ে করে শশুড় বাড়ী শিকলবন্দী জামাই! খাগড়াছড়িতে পুনাক কমপ্লেক্স এর উদ্বোধন করলেন: পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল এিপুরা হিজবুল্লাহর সঙ্গে যুদ্ধ বাধলে ইসরায়েলকে সমর্থন দেবে যুক্তরাষ্ট্র হজ চলাকালীন ১৩০১ জন হজযাত্রীর মৃত্যু: সৌদি আরব সেতু ভেঙ্গে নয়জন নিহতের ঘটনায় দুইটি তদন্ত কমিটি গঠন, মাইক্রোবাস উদ্ধার বর ও কনের বাড়ীতে শোকের মাতম রাশিয়ায় বন্দুকধারীদের ভয়াবহ হামলায় ১৫ পুলিশ সদস্য নিহত

১০ টাকা দিয়ে টিকিট কেটে চোখ দেখালেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৩ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ২৫০জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সাধারণ রোগীদের মতোই লাইনে দাঁড়িয়ে ১০ টাকার টিকিট কেটে চোখ দেখালেন।

শুক্রবার (৩ মে) সকালে রাজধানীর শেরে বাংলা নগরে জাতীয় চক্ষু বিজ্ঞান ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে যান প্রধানমন্ত্রী। তারপর লাইনে দাঁড়িয়ে নিজেই টিকেট সংগ্রহ করেন এবং চোখ পরীক্ষা করান।

প্রধানমন্ত্রীর সহকারী প্রেস সচিব এ বি এম সারওয়ার ই আলম সরকার তা নিশ্চিত করেছেন।


আরও খবর



ফুলবাড়ীতে বীরমুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার লিয়াকত আলীর রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০24 | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৫৭জন দেখেছেন

Image

ফুলবাড়ী, দিনাজপুর প্রতিনিধি:দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা লিয়াকত আলীকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন। গত ১৭ জুন (সোমবার) সকাল ১০ টায় বার্ধক্য জনিত কারণে মৃত্যুবরণ করেছেন। ইন্নাল্লিলাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল(৭৪)বছর।

ফুলবাড়ী পৌর শহরের কাটাবাড়ী এলাকার নিজ বাসভবনে ঈদের দিন সকালে তিনি অসুস্থ হয়ে় পড়লে দ্রুত তাকে দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে বাডি়র সামনেই তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। পরে ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, দুই পুত্র ও এক কন্যা সন্তান রেখে যান।

গত ১৭ জুলাই বাদ আসর তাকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদা প্রদান করা হয়, রাষ্ট্রীয় মর্যাদা প্রদানে উপস্থিত ছিলেন ফুলবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) সহকারী কমিশনার (ভূমি) মুহাম্মদ জাফর আরিফ চৌধুরী, ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ( বিশ্ব শান্তিরক্ষা মিশনের পদকপ্রাপ্ত) মুস্তাফিজার রহমান। বাদ মাগরিব কেন্দ্রীয় কানাহার কবরস্থানে জানাজা শেষে সেখানে তাকে দাফন করা হয়।

তার মৃত্যুতে শোক জ্ঞাপন করেছেন সাবেক মন্ত্রী, আইন বিচার ও সংসদীয় কমিটির সভাপতি অ্যাডভোকেট মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার এমপি, উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউর রহমান মিলটন, ফুলবাড়ী পৌর মেয়র মাহমুদ আলম লিটন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এনামুল হুদা, সাধারণ সম্পাদক মুশফিকুর রহমান বাবুল, ফুলবাড়ী থানা প্রেসক্লাবের সভাপতি মোঃ আফজাল হোসেন সহ মুক্তিযোদ্ধা সংসদের নেতৃবৃন্দ ও ফুলবাড়ীর সকল রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ এবং ব্যবসায়ীগণ।


আরও খবর



নবীনগরে নিজ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী ফারুক আহামেদকে লাঞ্ছিত

প্রকাশিত:রবিবার ০২ জুন 2০২4 | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১৬৭জন দেখেছেন

Image

মোহাম্মদ হেদায়েতুল্লাহ  নবীনগর(ব্রাহ্মণবাড়িয়া)প্রতিনিধি:- ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মোঃ ফারুক আহামেদ এর ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। রবিবার দুপুরে উপজেলার আহাম্মদপুর গ্রামের রনাইয়া পাড়াতে এঘটনা ঘটে। 


সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, নির্বাচনকে সামনে রেখে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মোঃ ফারুক আহামেদ তার কর্মীসমর্থকদের সাথে নিয়ে আহাম্মদপুর রনাইয়া পাড়ার মসজিদ সংলগ্ন একটি দোকানে গণসংযোগ করছিলেন। এমন সময় একই গ্রামের আব্দুস সামাদ সরকারের ছেলে মোঃ সালাউদ্দিন ঐ দোকানের একটি টেবিলে বসা থাকা অবস্থায় ফারুক আহামেদ এর এক সমর্থকের টেবিলে বসা নিয়ে দুপক্ষের মধ্যে কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ের হাতাহাতির সৃষ্ঠি হয়। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, হাতাহাতির এক পর্যায়ে ফারুক আহামেদ এর গায়ে হাত সহ তাকে লাঞ্ছিত করা হয়।


এব্যাপারী লাউর ফতেহপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম বলেন, আমি ঘটনাস্থলে ছিলাম না তবে শুনেছি প্রার্থী ফারুক ভাইয়ের উপর অতর্কিত হামলা করা হয়েছে। বিষয়টি খুবই দুঃখজনক ও নেক্কারজনক। 


এব্যাপারে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মোঃ ফারুক আহামেদ বলেন, বাদল ভাইয়ের চাচাতো ভাই আজাদ ভাইকে বসার ব্যবস্থা করতে গিয়েই ঘটনাটা ঘটেছে। এরপর বিস্তারিত পরে কল দিয়ে বলবেন বলে তিনি কলটি কেটে দেন।


এব্যাপারে জানতে নবীনগর থানার ওসি মাহাবুব আলমকে একাদিকবার কল দিলেও তিনি রিসিপ করেননি।

   -খবর প্রতিদিন/ সি.ব

আরও খবর



রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ৩২

প্রকাশিত:সোমবার ১০ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৩ জুন ২০২৪ | ৯৬জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:মাদক বিক্রি ও সেবনের অভিযোগে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৩২ জনকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)।

সোমবার (১০ জুন) সকাল ৬টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে মাদকসহ তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। ডিএমপি সূত্রে জানা যায়, গ্রেপ্তারের পাশাপাশি তাদের হেফাজত থেকে ১৬০ পিস ইয়াবা, ২৪৮ গ্রাম হেরোইন, ১১৫ বোতল ফেনসিডিল ও ৭১ কেজি ১০০ গ্রাম গাঁজা জব্দ করা হয়েছে।

গ্রেপ্তার ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ২২টি মামলা করা হয়েছে।


আরও খবর



৬ দফার নিষিদ্ধকারীরা ১৫ই আগস্টের খুনের সঙ্গে জড়িত: ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৭ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১৪৮জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের দাবি করেছেন,৭৫-এর পর যারা ছয় দফাকে নিষিদ্ধ করেছিল তারা ১৫ই আগস্টের সঙ্গে জড়িত বলে।

ঐতিহাসিক ছয় দফা দিবস উপলক্ষ্যে শুক্রবার (৭ জুন) সকালে ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে তিনি এ কথা বলেন।

সেতুমন্ত্রী বলেন, ছয় দফা না হলে ৬৯-এর গণঅভ্যুত্থান হতো কি না সেটিই হলো বড় কথা। এই ছয় দফা আমাদের ইতিহাসের বাক পরিবর্তন করেছে। ৭৫-এর পর ৭ জুন ও ৭ মার্চ এসব দিবসকে নিষিদ্ধ করে দেওয়া হয়। যারা নিষিদ্ধ করে দেয়, তারা ৭৫-এর খুনের সঙ্গে জড়িত। তারা শুধু বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেনি, তারা হত্যা করতে চেয়েছিল আমাদের মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে, আমাদের স্বাধীনতার আদর্শকে। সেই জন্য বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে জয় বাংলা, ৭ মার্চ এবং ৭ জুন নির্বাসিত হয়ে যায়।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ছয় দফা বাস্তবায়নে বঙ্গবন্ধুর যে আহ্বান, তারই সাথে ৭ জুনের হরতালে বেশ কয়েকজন শ্রমিক নেতা নিহত হন। ছয় দফা হচ্ছে স্বাধীনতা আন্দোলনের মাইলফলক। ছয় দফার ভিত্তিতে ১১ দফা আন্দোলন শুরু করে ছাত্রসমাজ। ৬৫’তে পাক-ভারত যুদ্ধে পূর্ব বাংলার কোনো নিরাপত্তা ছিল না। পূর্ব বাংলাকে রক্ষা করার কোনো ব্যবস্থা ছিল না। সেই কারণে ছয় দফার প্রয়োজন বেশি ছিল।


আরও খবর



জনতা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের সাথে ইউসিবি’র ব্যাঙ্কাসুরেন্স চুক্তি স্বাক্ষর

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ৩০ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১২০জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:সম্প্রতি ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক পিএলসি (ইউসিবি) এর গ্রাহকদের কাছে বিভিন্ন বীমা পণ্য ও সেবা বিক্রি করার লক্ষ্যে জনতা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের সাথে একটি ব্যাঙ্কাসুরেন্স চুক্তি স্বাক্ষর করেছে।

ইউসিবি’র কর্পোরেট হেড অফিসে চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। উভয় প্রতিষ্ঠানের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক পিএলসি’র (ইউসিবি) পক্ষ থেকে এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিসি) সৈয়দ ফরিদুল ইসলাম; অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও কোম্পানি সেক্রেটারি এটিএম তাহমিদুজ্জামান এফসিএস; করপোরেট ব্যাংকিং বিভাগের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও হেড আলমগীর কবির; উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক এস.এম. মইনুল কবির; বিডিসিইউ-এর হেড ও এসইভিপি মো: সেকান্দার-ই-আজম; প্রধান ব্যাঙ্কাসুরেন্স অফিসার এটিএম তাজমিলুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। জনতা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো: আবু বক্কর সিদ্দিক; অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো: ইকবাল রশিদী এবং কোম্পানি সেক্রেটারি মো: আহসান হাবীব। 

এদেশে ব্যাঙ্কাসুরেন্স একটি নতুন ধারণা। এটি ব্যাংক ও ইন্স্যুরেন্স কোম্পানির মধ্যে এক ধরনের অংশীদারত্বের সুযোগ তৈরি করে, যার মাধ্যমে একটি ব্যাংক গ্রাহকদের কাছে বিমা কোম্পানির বিভিন্ন পণ্য ও সেবা বিক্রি করতে পারে। বর্তমান আর্থ-সামাজিক প্রেক্ষাপটে এই ধরনের সুবিধা জনপ্রিয়তা পাচ্ছে। ইউসিবির গ্রাহকদের জন্য আরও উন্নত সুবিধা এবং আর্থিক সুরক্ষা নিশ্চিত করতে জনতা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের সাথে একযোগে এই উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। এ ধরনের অংশীদারিত্ব দেশের জনগণকে সমন্বিত আর্থিক সেবার আওতায় নিয়ে আসতে সহায়ক ভূমিকা রাখবে। 

এই চুক্তির ফলে উভয় প্রতিষ্ঠান ও গ্রাহকরা উপকৃত হবে বলে আশা করা হচ্ছে। এই চুক্তির অধীনে, ইউসিবির গ্রাহকদের কাছে জনতা ইন্স্যুরেন্সের নন-লাইফ ইন্স্যুরেন্স পণ্য ও সেবা বিক্রি করতে পারবে; অন্যদিকে, এই উদ্যোগ জনতা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানিকে আরও বেশি সংখ্যক গ্রাহকদের কাছে পৌঁছাতে সাহায্য করবে। 


আরও খবর