English Version

দেশে বন্যায় বেড়েছে সবজীর দাম

প্রকাশিতঃ আগস্ট ২৯, ২০২০, ৪:৪৭ অপরাহ্ণ | শেষ আপডেটঃ আগস্ট ২৯, ২০২০্‌, ৪:৫০ অপরাহ্ণ


          নিউজ ডেস্কঃ
বন্যার কারণেও টানা বর্ষণে নষ্ট হয়ে গেছে স্থানীয় সবজি ক্ষেত। বন্যার কারণে বন্ধ উত্তরাঞ্চলের সবজি সরবরাহ। এ দুই কারণে উত্তাপ বেড়েছে বাজারে। প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে বাড়তি দামেই বিক্রি হচ্ছে সব ধরনের সবজি। সবচেয়ে বেশি দুইশ বা তার চেয়ে বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে কাঁচা মরিচ। গত সপ্তাহের মতো এ সপ্তাহেও সব ধরনের সবজি বাড়তি দামে বিক্রি হচ্ছে। বেড়েছে ডিমের দামও। তবে মাছের দাম রয়েছে নাগালের মধ্যেই। এছাড়া অপরিবর্তিত রয়েছে মুরগী ও গরুর মাংসের দাম।

 

সরেজমিনে দেখা যায়, গত সপ্তাহে ১৮০ টাকা কেজি বিক্রি হওয়া কাঁচা মরিচ এ সপ্তাহে ২০০-২২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। ১০ টাকা বেড়ে ৮০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে গাজর। টমেটো বিক্রি হচ্ছে ৯০-১০০ টাকায়, বরবটি ৮০ টাকা, বেগুন ৬০ টাকা। পটল ও লাউ কেজিতে পাঁচ টাকা বেড়ে ৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

গত সপ্তাহের দামেই বিক্রি হচ্ছে চিচিঙ্গা, প্রতিকেজি ৪৫ টাকা, কাকরোলের কেজি ৬০ টাকা, মুলা ৬০ টাকা, করলা ৬০ টাকা, ঝিঙে কেজি ৫০ টাকা, কাচা পেঁপে কেজি ৪০ টাকা, কচুর লতি ৫০ টাকা, ঢেঁড়স কেজি ৫০ টাকা, আলুর ৩৫ টাকা, ফুলকপি ১৫০ টাকা, বেগুন কেজি ৬০ টাকা, শসা কেজি ৫০ টাকা, বাঁধাকপি ৭০ টাকা, ধুন্দল কেজি ৪৫ টাকা, বরবটি ৯০ টাকা, মিষ্টি কুমড়া ৪০ টাকা, শিমের বিচি কেজি ৩৫০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে।

এছাড়া মাঝারি সাইজের এক আঁটি মিষ্টি কুমড়ার শাক বিক্রি হচ্ছে ২৫-৩০ টাকা, পাটশাক ১৫-২০ টাকা, লালশাক ১০-১৫ টাকা, পুঁইশাক ১৫-২০ টাকা, পালং শাক ১৫ টাকা এবং জোড়া আঁটি কলমি শাক ১০-১৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

কোনাপাড়ার একজন কাঁচাবাজারের ব্যবসায়ী বলেন, ‘এবার দেশে ব্যাপক বৃষ্টি হচ্ছে! সবজি আসবে কোথা থেকে? অধিকাংশ ক্ষেত নষ্ট হয়েছে। দাম বেড়েছে, সামনে আরও বাড়বে।’

বাজারে মাঝারি আকারের প্রতিকেজি রুই মাছ বিক্রি হচ্ছে ২২০-২৮০ টাকা কেজি, কাতলা ২০০-৩৫০ টাকা, কই ১৫০-১৮০ টাকা কেজি।

পাঙ্গাস ১৫০-২০০, তেলাপিয়া ১৫০-২০০, পাবদা ৩৫০-৪০০, শিং ৩০০-৫০০, মাগুর ৫০০-৬০০ এবং চিংড়ি আকারভেদে ৬০০-১২০০, লইট্টা ২০০, সামুদ্রিক বাইলা ৩০০, দেশি বাইলা ৬০০, রূপচাঁদা ৬৫০, কোরাল ৪৫০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। এক কেজি ওজনের ইলিশ ৯০০ থেকে এক হাজার টাকায় বিক্রি হচ্ছে। ৫০০-৭৫০ গ্রামের ইলিশ বিক্রি হচ্ছে ৭০০-৮০০ টাকায়।

প্রতিকেজি ব্রয়লার মুরগি বিক্রি হচ্ছে ১১৫ টাকায়, পাকিস্তানি সোনালী মুরগি ২৫০ টাকা, আর দেশি মুরগি প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ৪৩০-৪৪০ টাকায়। গরুর মাংস বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ৬০০ টাকায়।

এদিকে বাজারে বেড়েছে ডিমের দাম। প্রতি ডজন লাল ডিম বিক্রি হচ্ছে ১০৫-১১৫ টাকায়, দেশি মুরগির ডিম প্রতি ডজন ১৬০, হাঁসের ডিম ডজন ১৪০ টাকা।

প্রকাশকঃ
মোঃ মামুনুর হাসান (টিপু)

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক:
খন্দকার আমিনুর রহমান

বার্তা সম্পাদকঃ
সোরওয়ার্দী মিয়া

৫০/এফ, ইনার সার্কুলার (ভিআইপি) রোড, নয়া পল্টন, ঢাকা-১০০০।
ফোন: ০২-৯৩৩১৩৯৪, ৯৩৩১৩৯৫, নিউজ রুমঃ 015-35773314 - 013-18515080
ই-মেইল: khoborprotidin24.com@gmail.com

.::Developed by::.
Great IT